১৯ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

লালমনিরহাটে দুই গরু ব্যবসায়ীকে গলা কেটে হত্যা

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ লালমনিরহাটে দুই গরু ব্যবসায়ীকে জবাই করে গরু লুট করে নিয়ে গেছে ডাকাতদল। দিনাজপুর ও চাঁদপুরে উদ্ধার হয়েছে তিন লাশ। স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতাদের পাঠানো খবর :

লালমনিরহাট ॥ হত্যাকা-ের শিকার গরু ব্যবসায়ী শহিদুল ইসলামের (২৩) লাশ শুক্রবার ভোরে জেলা সদরের দুরাকুটি গ্রামে এসে পৌঁছায়। এই সময় এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের সৃষ্টি হয়। পরে ভোর রাতেই পারিবারিক কবরস্থানে লাশ দাফন করা হয়। এই ঘটনার লালমনিরহাট সদরের ভারতীয় সীমান্ত সংলগ্ন বিখ্যাত গরুর হাট দুরারকুটি ও বড়বাড়ি হাটের গরুর ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতস্ক বিরাজ করছে। ঈদকে সামনে রেখে গরুর ব্যবসায়ীরা নিরাপত্তাহীন হয়ে পড়েছে। যা গরুর ব্যবসায় এবারের ঈদের বাজারে প্রভাব ফেলতে পারে। গরু ব্যবসায়ীরা উত্তরাঞ্চলের বিখ্যাত এই গরুর হাট হতে গরু কিনে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের হাট বাজারের ভোক্তাদের নিকট নির্বিঘেœ পৌঁছে দিতে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে দাবি তুলেছে। গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশ, দুরারকুটিহাট ও বড়বাড়িহাটের ইজারাদার সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ কাটাখালি হাওয়াখানার কলাবাগানে হাত-পা বাধা গলাকাটা অবস্থায় স্থানীয়রা কুমিল্লার গরু ব্যবসায়ী শাহ জামাল (৪৫) ও লালমনিরহাটের গরু ব্যবসায়ী সহিদুল লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ লাশ দু’টি উদ্ধার করে নিয়ে যায়। পরে পকেটে থাকা গরুর ক্রয় রশিদের সূত্র ধরে পরিচয় নিশ্চিত করে। গরু ব্যবসায়ীদ্বয় জেলা সদরের সীমান্ত সংলগ্ন দুরাকুটিহাট হতে মঙ্গলবার ১১টি ও বড়বাড়ি হতে ১১টি গরু ক্রয় করে। বুধবার পিকাপ ভ্যানে করে ৫টি গরু তারা কুমিল্লা নিয়ে যাচ্ছিল। ঢাকা রংপুর মহাসড়কের কাটাখালিতে দুই গরু ব্যবসায়ী শাহ জামাল ও শহিদুলকে কলাবাগানে ধরে নিয়ে গিয়ে হাত-পা বেঁধে জবাই করে পিকাপটি নিয়ে ঘাতকরা পালিয়ে যায়। এই ঘটনায় গোবিন্দগঞ্জ থানায় হত্যা ও ডাকাতি মামলা দায়ের হয়েছে। পুলিশ পিকাপ চালক পলাশ মিয়াকে আটক করেছে।

দিনাজপুর ॥ দিনাজপুরে শুক্রবার পৃথক দুটি ঘটনায় মহিলাসহ দু’জনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সদর উপজেলার কমলপুর ইউনিয়নের দাইনুর একটি পুকুর থেকে খালেদুর রহমান (১৭) নামে কিশোরের লাশ বেলা ১২টায় পুলিশ উদ্ধার করে। সে ওই গ্রামের আমিরুল ইসলামের ছেলে। মৃতের পরিবার জানায়, খালেদুরের মৃগী রোগ ছিল।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে খালেদুরকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। গ্রামের পুকুরে তার লাশ শুক্রবার ভেসে ওঠে। একই সময় শহরের সুইহারী ড্রাইভার পাড়ায় লাভলী বেগম (৩২) নামে গৃহবধূর গলায় ফাঁস দেয়া ঝুলন্ত লাশ পুলিশ উদ্ধার করেছে। পারিবারিক ঝগড়ার জের ধারে সে নিজ ঘরে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ হাসপাতাল মর্গে নেয়া হয়।

চাঁদপুর ॥ হাজীগঞ্জ উপজেলায় বড়কুল এলাকায় মরিয়ম আক্তার (১৬) নামে স্কুলছাত্রীর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টায় মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায় হাজীগঞ্জ থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার নাটেহারা গ্রামের গাজীবাড়িতে এই ঘটনা ঘটে। মরিয়ম উপজেলার বড়কুল পশ্চিম ইউনিয়নের নাটেহরা গাজীবাড়ির রিক্সাচালক রফিক উল্লাহর মেয়ে। রামচন্দ্রপুর ভূঁইয়া একাডেমির দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ছিল সে। মরিয়মের মা রেজিয়া বেগম জানান, বৃহস্পতিবার জোহরের নামাজের পর তিনি হাজীগঞ্জ বাজার এলাকার টোরাগড় বাবার বাড়িতে যান। ঘরে কেউ ছিল না বিধায় বড় মেয়ের নাতিনকে মরিয়মের কাছে রেখে যান। বাড়ির লোকজন জানায়, মেয়েটির সাথে তার খালাত ভাইয়ের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। দীর্ঘদিন প্রেমের সম্পর্ক থাকার পরও খালাত ভাই অন্যত্র বিয়ে করে। এ খবর শুনে ওই স্কুলছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।