২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সৈয়দপুরে এক শ’ টাকা কোচিং ফি না দেয়ায় শিক্ষার্থীকে নির্যাতন

স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী ॥ কোচিং ক্লাসের বকেয়া ১০০ টাকা ফি না পেয়ে এক ছাত্রকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করেছে নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার কাশিরাম বেলপুকুর ইউনিয়নের সাতপাই উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক খলিলুর রহমান। নির্যাতনের শিকার ছাত্রটি ওই স্কুলের এবার জেএসসি পরীক্ষার্থী আশরাফুল ইসলাম। সে ইউনিয়নের ডাক্তারপাড়া গ্রামের আমজাদ হোসেনের পুত্র। নির্যাতনের শিকার ওই ছাত্র হাসপাতালে চিকিৎসার পর বৃহস্পতিবার দুপুরে তাকে শারীরিকভাবে নির্যাতনের অভিযোগ এনে সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছে। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নির্যাতনের বিষয়ে আগামী তিন দিনের মধ্যে ব্যাখা চেয়ে প্রধান শিক্ষককে চিঠি দিয়েছেন। এ ঘটনার পর থেকে ওই বিদ্যালয়ের আশপাশের এলাকাবাসী ও অভিভাবকদের মধ্যে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। অভিযোগে জানা গেছে, ওই বিদ্যালয়ে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষার জন্য কোচিং ক্লাস করানো হচ্ছে। এ জন্য প্রত্যেক শিক্ষার্থীর কাছে বিদ্যালয়ের মাসিক বেতনের পাশাপাশি ৩০০ টাকা করে অতিরিক্ত কোচিং ফি ধরা হয়েছে। ইতোমধ্যে শিক্ষার্থী আশরাফুল ইসলাম কোচিং ফি- ২০০ টাকা পরিশোধ করেছে। কিন্তু তাদের সংসারের অভাব-অনটনের কারণে বাকি ১০০ টাকা দিতে বিলম্ব হচ্ছিল। ঘটনার দিন গত বুধবার ওই শিক্ষার্থী যথারীতি কোচিং ক্লাস করছিল। এ সময় বিদ্যালয়ের কৃষি শিক্ষা বিষয়ের শিক্ষক খলিলুর রহমান কোচিং ক্লাস নিতে এসে আশরাফুল ইসলামের কাছে কোচিং ফির বাকি ১০০ টাকা দাবি করে বসেন। এ সময় শিক্ষার্থী আশরাফুল কোচিং ফির বকেয়া ১০০ টাকা আগামী রবিবার দেবে বলে শিক্ষককে জানান। এতে ওই শিক্ষক রাগান্বিত ও ক্ষিপ্ত হয়ে আশরাফুল ইসলামকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করেন। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কামাল হোসেন জানান, ঘটনার দিন ওই শিক্ষক একটু বেশি শাসন করে ফেলেছেন। এটি তেমন কিছুই না।