১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রিয়ালের অমঙ্গল কামনায় পিকে

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ যেমনটি ছিলেন স্পেন ও বার্সিলোনার ডিফেন্ডার জেরার্ড পিকে। তেমনটিই আছেন। কোনভাবেই রিয়াল মাদ্রিদের মঙ্গল ভাবতে পারেননি আগেও। এখনও তা ভাবতেই চান না। রিয়াল মাদ্রিদের অমঙ্গল কামনাই শুধু করে চলেছেন।

সম্প্রতি ঘরের মাঠে জাতীয় দলের হয়ে খেলার সময় দর্শকদের ‘দুয়োধ্বনি’ শোনেন স্পেন ও বার্সেলোনা ডিফেন্ডার জেরার্ড পিকে। সেই থেকে এই বিশ্বকাপজয়ী তারকা স্পেনের হয়ে খেলা ছেড়ে দেবেন বলে গুঞ্জন উঠে। তবে বৃহস্পতিবার এক আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে তিনি স্পেনের হয়ে খেলা ছেড়ে দেয়ার গুঞ্জন উড়িয়ে দেন। কিন্তু বার্সেলোনার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের জন্য সব সময় অমঙ্গল কামনা করা অব্যাহত রাখবেন বলে ঘোষণা দেন পিকে।

শনিবার ঘরের মাটিতে সেøাভাকিয়াকে ২-০ গোলে পরাজিত করে স্পেন। সেই ম্যাচে দর্শকরা জেরার্ডকে পিকেকে ‘দুয়োধ্বনি’ দেয়। গেল সপ্তাহে পিকের জাতীয় দলের সতীর্থ সার্জিও র‌্যামোস জানিয়েছেন, ‘মাদ্রিদকে নিয়ে অযাচিত মন্তব্য করার আগে তাকে (পিকে) নতুন করে ভাবতে হবে।’

গত মৌসুমে বার্সিলোনা ট্রেবল জেতার পর উদযাপনের সময় রিয়াল মাদ্রিদকে খোঁচা মারেন জেরার্ড পিকে। ফেব্রুয়ারিতে এ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের সঙ্গে রিয়াল ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত হওয়ার কয়েক ঘণ্টা পর রোনাল্ডো জাঁকজমকভাবে তার ৩০তম জন্মদিন পালন করেন। বার্সার ট্রেবল জয় উদযাপন আর রোনাল্ডোর জন্মদিন উদযাপনকে সমান্তরালে এনে টিপ্পনি কাটেন পিকে। যে কারণে তার ওপর ক্ষেপা ছিলেন মাদ্রিদের সমর্থকরা। এছাড়া গত মৌসুমের কোপা ডেল রে’র ফাইনালের আগে কাতালুনিয়া অঙ্গরাজ্যের স্বাধীনতার দাবিতে ব্যানার নিয়ে মানববন্ধনে অংশ নেন জেরার্ড পিকে। এই বিষয়টিও মাদ্রিদ সমর্থকদের রাগান্বিত করে তোলেন। যে কারণে গত শনিবার বার্নাব্যুতে সেøাভাকিয়ার বিপক্ষে ইউরো বাছাই পর্বের ম্যাচে মাদ্রিদ সমর্থকদের রোষানলে পড়েন এই বার্সেলোনা ডিফেন্ডার। এরপর থেকে গুঞ্জন ভেসে ভেড়ায়, বৃহস্পতিবার হয় তো স্পেনের হয়ে খেলা ছেড়ে দেয়ার ঘোষণা দেবেন জেরার্ড পিকে। তবে স্পেনের হয়ে খেলা ছেড়ে দেয়ার গুঞ্জনই শুধু এদিন তিনি উড়িয়ে দেননি, পাশাপাশি রিয়াল সম্পর্কে বোমা ফাটালেন এই স্প্যানিশ তারকা। জেরার্ড পিকে বলেন, ‘জাতীয় দলের হয়ে খেলা ছেড়ে দেয়াটাই সর্বশেষ কাজ যেটা আমি করতে পারি। যারা অকারণে আমাকে ‘দুয়োধ্বনি’ দিচ্ছে তাদের জন্য এর চেয়ে বেশি কিছু করার নেই। তবে আমি জাতীয় দলকে বিদায় জানানোর কোন কারণ দেখছি না। দেশের হয়ে প্রতি ম্যাচেই আমি নিজের সেরাটা নিংড়ে খেলি। আমি বিশ্বকাপ ও ইউরো জিতেছি। আমি খারাপ কিছুই বলিনি। সুতরাং, আমার আত্মপক্ষ সমর্থনেরও দরকার নেই।’ স্প্যানিশ কয়েকটি পত্রিকা দাবি করেছে, কাতালুনিয়ার স্বাধীনতা আন্দোলনে সমর্থন ব্যক্ত করাতেই পিকেকে ‘দুয়োধ্বনি’ শুনতে হয়েছে। তবে এমনটা মনে করছেন না এই বার্সা তারকা। তার মতে, রিয়াল-বার্সার চিন্তিত শত্রুতার জন্যই তাকে সমর্থকদের ‘দুয়ো’ শুনতে হয়েছে।

জেরার্ড পিকে বলেন, ‘আমার মনে হয় বার্সা-রিয়াল চিরশত্রুতার জন্যই আমাকে ওরা (স্পেন/মাদ্রিদ সমর্থক) ‘দুয়ো’ দিয়েছে। কিন্তু আমি নিজের দৃষ্টিভঙ্গিতে পরিবর্তন আনব না। এই দ্বৈরথটা অনেক আবেগের। বার্সা ভাল করলে মাদ্রিদ খারাপ করে। আবার কখনও কখনও উল্টোটাও ঘটে। আমি সব সময়ই মাদ্রিদের অমঙ্গল কামনা করে এসেছি এবং এখনও করি। যারা আমার এই বিষয়টি পছন্দ করেন না তাদের আমার অবসর পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।’ এরপর যা বললেন পিকে তা মাদ্রিদ সমর্থকদের মেজাজ বিগড়ে দেয়ার জন্য যথেষ্ট ‘আমি রিয়াল-জুভেন্টাসের ম্যাচ (চ্যাম্পিয়ন্স লীগের সেমিফাইনাল) দেখেছি বুফনের জার্সি পরিধান করে। আমি সর্বদাই চাই ওরা (রিয়াল মাদ্রিদ) হারুক। আমি আমার ক্লাবকে ভালবাসি এবং কেউই আমার কাছ থেকে এই দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন আশা করতে পারেন না অথবা আমি এই বিষয়ে ক্ষমা চাইব সেটাও আশা করতে পারেন না। বার্নাব্যুতে যখন মাদ্রিদের সমর্থকরা আমাকে ‘দুয়োধ্বনি’ দেয় তখন তা আমার কানে গানের মতো বাজতে থাকে। আমি এটি দারুণ উপভোগ করি।’