১২ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আইনজীবী সহকারীদের পেশাগত স্বীকৃতি দিতে আইন পাস হবে

  • সহকারী সমিতির মহাসম্মেলনে আইনমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আইনজীবী সহকারীদের পেশাগত স্বীকৃতি প্রদানে শিগগিরই আইন পাস করা হবে বলে জানিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী এ্যাডভোকেট আনিসুল হক। শনিবার সুপ্রীমকোর্ট প্রাঙ্গণে বাংলাদেশ আইনজীবী সহকারী সমিতির চতুর্থ মহাসম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা জানান। তিনি বলেন, আলাপ-আলোচনা করে পার্লামেন্টে যেন দ্রুত এই আইন প্রণয়ন হয় সেই পদক্ষেপ নেয়া হবে। আইনজীবী সহকারীদের স্বীকৃতি দেয়া হলে আদালতে অনিয়ম দূর করা সহজ হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

আইনজীবী সহকারীদের আশস্ত করে আইনমন্ত্রী বলেন, আমার কাছে আপনাদের দাবি করতে হবে না। পেশাগত স্বীকৃতি চাওয়া আপনাদের ন্যায় সঙ্গত দাবি। আপনারা মর্যাদা পাবেন। কাউকে মর্যাদা দিতে শেখ হাসিনার সরকার কার্পণ্য করে না। তিনি বলেন, মামলা পরিচালনা করতে আইনজীবীরা যে ফি পান তার একটা অংশ তাদের সহকারীদের দেয়া উচিত। এতে তাদের কাজে আগ্রহ বাড়বে। পরে তিনি সারাদেশে আইনজীবীর সহকারীদের তহবিলের জন্য ৫ লাখ টাকা অনুদান প্রদান করেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, আইনজীবী সহকারীরা সৎ থাকলে কাজ করা সহজ হয়ে যায়। তাই আইনজীবী সহকারীদের সৎ থাকতে হবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে খাদ্যমন্ত্রী এ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন, বর্তমান সরকার বিচার ব্যবস্থার ওপর হস্তক্ষেপ করছে না। বরং দেশের বড় বড় সব মামলার বিচার কাজ সমাপ্ত করে সরকার ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করছে। বর্তমানে ফোন দিয়ে জুডিশিয়ারির ওপর মন্ত্রণালয় থেকে কোন মামলার বিষয়ে হস্তক্ষেপ করা হয় না।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সুপ্রীমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ বলেন, আইনজীবী সহকারী সমিতির দাবিকে আমরা সমর্থন জানাচ্ছি। আমরা চাই আদালত অঙ্গনে অনিয়মের সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য আপনারা অগ্রণী ভূমিকা পালন করবেন।

সুপ্রীমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বলেন, বিচার বিভাগেও ঘুষ দিতে হচ্ছে। একজন আইনজীবী সহকারী যতটাকা ফি না পান তার চেয়েও বেশি ঘুষ দিতে হয় একটা মামলা ফাইল করতে। এ বিষয়ে সহকারীদের সচেতন হতে হবে। ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।

বাংলাদেশ আইনজীবী সহকারী সমিতির সভাপতি নুর মিয়ার সভাপতিত্বে এবং সেক্রেটারি হারুন অর-রশিদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, ব্যারিস্টার রফিক-উল হক, এ্যাডভোকেট আব্দুল মতিন খসরু, এ্যাডভোকেট আব্দুল বাসেত মজুমদার, এ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন, এ্যাডভোকেট বশির আহমেদ ও অল- ইন্ডিয়া ক্লার্ক আইনজীবী কার্যকরী এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অশোক কুমার ম-ল। অনুষ্ঠানে আইনজীবীর সহকারী সংগঠনের পক্ষ থেকে স্বীকৃতিসহ মোট নয় দফা দাবি পাস করা হয়।