২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সিরিজ জিততে আত্মবিশ্বাসী মরগান

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ প্রথম দুই ওয়ানডেতে হেরে পিছিয়ে পড়েছিল ইংল্যান্ড। কিন্তু পরের দুই ম্যাচেই টানা জয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছে তারা। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ চতুর্থ ওয়ানডেতে ৩ উইকটের জয়ের পর ইংলিশ অধিনায়ক এবার সিরিজ জিততে আত্মবিশ্বাসী। ওল্ডট্র্যাফোর্ডে সিরিজ নির্ধারণী পঞ্চম ও শেষ ওয়ানডে আজই। মরগান বলেন, ‘তিন শতাধিক রান তাড়া করে এ জয়ের কৃতিত্ব সবার। এটি আমাদের বাড়তি আত্মবিশ্বাস যোগাবে। সবাই বিশ্বাস করছে শেষ ম্যাচ জিতে সিরিজ জয় সম্ভব। সব মিলিয়ে এটা দারুণ বিষয়।’ লিডসের নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেটে ২৯৯ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়ে অস্ট্রেলিয়া। জবাবে কোন সেঞ্চুরি না এলেও ব্যাটসম্যানদের সমন্বিত প্রচেষ্টায় ৪৮.২ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় ইংল্যান্ড। যেখানে ৯২ রানের চমৎকার ইনিংস খেলে সমানে থেকে নেতৃত্ব দেন মরগান। তিনি আরও যোগ করেন, ‘সমশক্তির দলের বিপক্ষে সফল হতে হলে সবাইকে একসঙ্গে জ্বলে উঠতে হয়। দুটি ম্যাচে আমাদের ক্ষেত্রে তাই হয়েছে। সামনের থেকে নেতৃত্ব দিতে কার না ভাল লাগে। ব্যাটে রান আসায় আমি নিজেও সেটি উপভোগ করছি। তবে কৃতিত্ব সবার। আমরা কখনই প্রয়োজনীয় রান রেট থেকে পিছিয়ে পড়িনি। বল হাতে ডেভিড উইলি-আর লিয়াম প্ল্যাঙ্কেট অভিজ্ঞদের মতোই পারফর্ম করেছে। অলরাউন্ড নৈপুণ্যে মঈন আলি যথারীতি ব্যতিক্রম।’ মরগানের আনন্দটা বেশিই হওয়ার কথা। বিশ্বকাপে এ্যালিস্টার কুককে সরিয়ে তার হাতে ওয়ানডের দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল। গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায়ে সেখানে ভরাডুবি হলেও ব্যাট হাতে যথারীতি ফর্মের তুঙ্গে ইংলিশ সেনাপতি। চতুর্থ ওয়ানডেতে গড়েছেন দারুণ এক রেকর্ডও। ৯২ বলে ৮ চার ও ২ ছক্কায় সর্বোচ্চ ৯২ রান করে আউট হন অধিনায়ক। ইংল্যান্ডের নেতৃত্ব পাওয়ার পর ২৬ ওয়ানডেতে মরগানের এটি ১৩তম হাফসেঞ্চুরি। সর্বোপরি ওয়ানডের ইতিহাসে নতুন রেকর্ড এটি। যেটি আগে ছিল পূর্বসূরি এ্যালিস্টার কুকের দখলে। অধিনায়ক জীবনের প্রথম ২৬ ম্যাচে ১২ হাফসেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন বর্তমান টেস্ট ক্যাপ্টেন। ১১টি করে হাফসেঞ্চুরিতে এ তালিকায় যৌথভাবে তৃতীয় স্থানে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ভিভ রিচার্ডস ও ক্রিস গেইল। এদিন ইনিংসে ২টি ছক্কা হাঁকান মরগান। ১২৭ ওয়ানডেতে তার মোট ছক্কা এখন ৯৪, ইংল্যান্ডের হয়ে যা নতুন রেকর্ড। ৯২ ও ৭৬ ছক্কা নিয়ে তার পেছনে এ্যান্ড্রু ফ্লিনটফ ও কেভিন পিটারসেন। শেষ হওয়া চার ম্যাচে মরগানের ব্যাট থেকে আসে ৩৮, ৮৫, ৬২ ও ৯২ রান। মোট ২৭৭। পাঁচ ম্যাচের কোন দ্বিপক্ষীয় সিরিজে ইংল্যান্ড অধিনায়ক হিসেবে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড এটি! ২৬৭ রান নিয়ে যে তালিকায় এতদিন এগিয়ে ছিলেন সাবেক এ্যান্ড্রু স্ট্রস। সুতরাং আজ সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে অসিদের জন্য বড় হুমকি হতে পারেন মরগানই।