১৬ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শিরোপা জিতেই অবসর...

  • ইতালিয়ান তারকার বিদায়ে সেরেনা-হ্যালেপের শুভেচ্ছা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ক্যারিয়ারের প্রথম গ্র্যান্ডস্লাম টুর্নামেন্ট জয়। উচ্ছ্বাস আর উল্লাসের জোয়ারে ভাসাটাই তাই স্বাভাবিক। কিন্তু অসামান্য এই কীর্তির পরই স্টেডিয়ামে থাকা প্রায় ২৩,০০০ দর্শককে চমকে দিলেন ইতালিয়ান টেনিস তারকা ফ্লাভিয়া পেনেত্তা। টেনিসকেই বিদায় বলে দিলেন তিনি। তবে সিদ্ধান্তটা হুট করেই নেয়া না তাঁর। বরং ইউএস ওপেন শুরুর এক মাস আগে থেকেই নাকি এমন সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছিলেন তিনি। এ বিষয়ে ফ্লাভিয়া পেনেত্তা বলেন, ‘এই টুর্নামেন্ট শুরুর এক মাস আগেই আমি আমার জীবনের বড় একটি সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছিলাম। তখন সিদ্ধান্তটা ছিল যে আমি ঠিক এভাবেই টেনিসকে বিদায় বলতে পারি। আর সে অনুযায়ীই এটা আমার ক্যারিয়ারের শেষ ইউএস ওপেন। আর আমি মনে করি এর চেয়ে আর ভাল কোন বিদায় হতে পারত না আমার।’ এই বছরের বাকি সময়টাতে খেলবেন ফ্লাভিয়া পেনেত্তা। তবে ইউএস ওপেন আর নিউইয়র্কের কোন টুর্নামেন্টে খেলছেন না তিনি। এ বিষয়ে তাঁর মন্তব্য, ‘আমি এ বছরের শেষ পর্যন্ত খেলব কিন্তু নিউইয়র্কে এটাই আমার ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচ।’ এর ফলে পেনেত্তা চীনে অনুষ্ঠিত দুটি টুর্নামেন্টে খেলবেন আর সিঙ্গাপুরে ডব্লিউটিএ টুর্নামেন্টে নির্বাচিত হলে খেলার কথা তার। টেনিস কোর্টে দীর্ঘ সময় কাটিয়েছেন টুর্নামেন্টের ২৬তম বাছাই এই তারকা খেলোয়াড়। তবে এখানকার জীবনটা খুবই কঠিন বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। এ বিষয়ে পেনেত্তা বলেন, ‘এখানে প্রতি সপ্তাহেই আপনাকে লড়াই করতে হবে। যদি কখনও কখনও আপনি সেভাবে পারফর্ম করতে না পারেন ঠিক যেভাবে আজ খেলেছি আমি। তাহলে খুব খারাপ সময় আসবে। তাই আরও চালিয়ে যাওয়ার মতো আমার এ রকম শক্তি আছে বলে আর মনে করছি না। টুর্নামেন্টে প্রতিপক্ষের বিপক্ষে কখনও কখনও প্রতিযোগিতা করাটা আমার জন্য খুব কষ্টের ছিল।’ তবে টেনিসকে বিদায় বলার সিদ্ধান্তটা যে কঠিন ছিল সেটা অকপটেই স্বীকার করেছেন ৩৩ বছর বয়সী পেনেত্তা। এ বিষয়ে তাঁর অভিমত হলো, ‘এটা আসলেই খুব কঠিন সিদ্ধান্ত ছিল। কিন্তু তারপরও আমি এতে অনেক খুশি। আমি আসলেই খুব আনন্দিত এবং নিজেকে নিয়ে গর্বিত।’

ইতালির ইতিহাসে দ্বিতীয় প্রমীলা খেলোয়াড় হিসেবে গ্র্যান্ডসøাম জয়ের রেকর্ড গড়লেন পেনেত্তা। তার আগে এই কীর্তিটি ছিল ফ্রান্সেসকা শিয়াভোনির। ২০১০ সালে ফ্রেঞ্চ ওপেনের শিরোপা জিতেছিলেন তিনি। এবার ইউএস ওপেন জিতে একটা পুরস্কার সঙ্গে সঙ্গেই পেয়ে গেলেন পেনেত্তা।