১২ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বেগুনবাড়ীতে গৃহবধূকে নির্যাতন, যাত্রাবাড়ীতে নারী কবিরাজের প্রতারণা

  • বাসের ধাক্কায় এক প্রাইভেটকার চালক নিহত

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর খিলক্ষেতে বাসের ধাক্কায় এক প্রাইভেটকার চালক নিহত হয়েছেন। তেজগাঁও শিল্পাঞ্চলে এক গৃহবধূকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। যাত্রাবাড়ীতে এক নারী কবিরাজ ঝাড়ফুঁকের মাধ্যমে প্রতারণা করে এক গৃহকর্তাকে অজ্ঞান করে তিন ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন নিয়ে গেছে। এছাড়া অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়েছেন বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষক। রবিবার পুলিশ ও মেডিক্যাল সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, খিলক্ষেত বাসস্ট্যান্ডে বাস চাপায় আরিফ খান (৩৭) নামে এক প্রাইভেটকার চালকের মৃত্যু হয়েছে। নিহতের বাবার নাম আকবর আলী। গ্রামের বাড়ি বরিশাল জেলার আগৈলঝড়া উপজেলায়। নিহতের ছোট ভাই রাহাত খান জানান, ভাই আরিফ পেশায় প্রাইভেটকার চালক। শনিবার রাতে তিনি মালিকের বাসায় প্রাইভেটকার রেখে তার গাজীপুরে নিজ বাসায় ফিরছিলেন। খিলক্ষেত বাসস্ট্যান্ড থেকে বাসে উঠার সময় পেছন থেকে আরেকটি বাস তাকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় এক পথচারী উদ্ধার করে প্রথমে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল নিয়ে যান। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত পৌনে ১২টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

গৃহবধূকে নির্যাতনের অভিযোগ ॥ রাজধানীর তেজগাঁও শিল্পাঞ্চলের উত্তর বেগুনবাড়ি এলাকায় খাদিজা বেগম (১৮) নামে এক গৃহবধূ স্বামীর হাতে নির্যাতিত হয়েছেন। পরে তাকে ঢামেক হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস (ওসিস) সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে। আহত গৃহবধূ খাদিজা বেগম জানান, ৬ বছর আগে মাসুদ নামে এক পিকআপ চালককে বিয়ে করে তিনি। উত্তর বেগুনবাড়ির জামান মেম্বরের বাড়িতে ভাড়া থাকেন তারা। এক বছরের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। তিনি জানান, বিয়ের পর থেকে তাকে বিভিন্ন সময় তার স্বামী মাসুদ নির্যাতন করত। রবিবার দুপুরে স্বামী মাসুদ বাইরে থেকে এলে তাকে ভাত খেতে দেন। ভাতের সঙ্গে ডাল দেয়ার পর মুখে দিয়ে বলে-তোর রান্না ভাল হয়নি। এই বলে মারধর শুরু করে। এরপর গরম ডাল মাথায় ঢেলে দেয়। পরে এক পর্যায়ে স্বামীর হাত থেকে বাঁচতে দৌঁড়ে বাসার বাইরে চলে আসেন। পরে পাশে ‘সখী’ নামে একটি এনজিও অফিসে গিয়ে সেখানকার কর্মী অনন্যা চক্রবর্তীকে জানান। তিনি তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসেন। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরী বিভাগের মেডিক্যাল অফিসার ডাঃ উম্মে সালমা জানান, তার শরীরের ৬ শতাংশ পুড়ে গেছে। শরীরের বিভিন্ন স্থানে নির্যাতনের চিহ্ন ছিল। তাই তাকে ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।

নারী কবিরাজের প্রতারণা ॥ রবিবার বেলা ১১টার দিকে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী গোলাপবাগের ২৯/২ নম্বর ৬ তলা ভবনের তৃতীয় তলায় গৃহকর্তা আব্দুল খালেক (৬৫) প্রতারক এক নারী কবিরাজের খপ্পরে পড়ে তার দামী তিন ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন খোয়ান। ওই নারী কবিরাজ তার বাসায় ঢুকে ঝাড়ফুঁকের মাধ্যমে প্রতারণা করে তাকে অচেতন করে ওই স্বর্ণের চেইন নিয়ে চম্পট দেন। পরে পরিবারের লোকজন আব্দুল খালেককে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করেন। খালেকের ছেলে আল আমিন বলেন, আমার বাবা সরকারী চাকরি করতেন। বর্তমানে তিনি অবসরে রয়েছেন। তিনি বেশ কিছুদিন ধরে অসুস্থ। তিনি জানান, বেলা ১১টায় এক নারী কবিরাজ আমাদের বাসায় আসেন। পরে কবিরাজ বাবাকে একটি রুমে নিয়ে দরজা বন্ধ করে পানি দিয়ে ঝাড়ফুঁক করেন। প্রায় ঘণ্টাখানেক পর কবিরাজ রুম থেকে বের হয়ে বলেন, আপনারা এক ঘণ্টা পর ওই রুমে যাবেন। নাহলে আপনারা ওই রোগে আক্রান্ত হবেন। এই কথা বলে কবিরাজ তার সম্মানী নিয়ে চলে যান। পরে পরিবারের অন্য সদস্যরা গিয়ে দেখেন তার বাবার গলার স্বর্ণের চেইন নেই। বাবা অচেতন অবস্থায় পড়ে আছেন। পরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই সেন্টু চন্দ্র দাস জানান, তাকে মেডিসিন বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে তিনি চিকিৎসাধীন আছেন।

অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে শিক্ষক ॥ শনিবার রাতে রাজধানীর মহাখালীতে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়েছেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির পাবলিক হেলথ বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডাঃ শাহজাহান (৪০)। ওই বিভাগের স্টাফ রমজান আলী জানান, ডাঃ শাহজাহান সিলেট গিয়েছিলেন। শনিবার রাতে তিনি বাসযোগে ঢাকায় ফেরেন। এ সময় অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা তাকে অচেতন করে নগদ টাকা ও মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পরে তাকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এখন ঢামেক নতুন ভবনে চিকিৎসাধীন তিনি।