১৬ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নীলফামারীতে জামায়াত নেতার পুত্রের বিরুদ্ধে ধর্ষনের মামলা দায়ের

স্টাফরির্পোটার,নীলফামারী॥ জামায়াত নেতার পুত্র কর্তৃক এক শহীদ মুক্তিযোদ্ধার কন্যা ধর্ষনের শিকার হয়েছে। প্রভাবশালীদের হুমকী আর বাধার কারনে থানায় মামলা করতে ব্যর্থ হয়ে আজ সোমবার দুপুরে ধর্ষিতা বাদী হয়ে নীলফামারীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতে মামলা দায়ের করেছে।

জানা গেছে নীলফামারীর কিশোরীগঞ্জ উপজেলার চাঁদখানা আলুপাড়া গ্রামের ৭১ সালের স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশ নিয়ে শহীদ হন মুক্তিযোদ্ধা আজাদ মিয়া। এই শহীদ মুক্তিযোদ্ধার মেয়ের বিয়ে হয় একই উপজেলার পুটিমারী ইউনিয়নের কালিকাপুর গ্রামে ইনছান আলীর সাথে। তাদের দুই পুত্র সন্তান। অভিযোগ মতে একই গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত মাদ্রাসা শিক্ষক জামায়াত নেতা মোশাররফ হোসেনের অবিবাহিত পুত্র মশিউর রহমানের (২৫) ক্যু দৃষ্টি পড়ে ওই শহীদ মুক্তিযোদ্ধার মেয়ের উপর। ঘটনার দিন ১১ সেপ্টেম্বর ওই নারীর স্বামী পারিবারিক কাজে রাতে বাড়িতে অনুপস্থিত ছিলেন। এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে মশিউর রহমান ঘটনার দিন রাতে ঘরে বেড়া কেটে ওই নারীর ঘরে প্রবেশ করে জোর পূর্বক ধর্ষন করে। এ সময় ওই নারী চিৎকার করলে গ্রামের লোকজন ছুটে এসে ধর্ষককে হাতে নাতে আটক করে বেধরক মারপিট করতে থাকে। খবর পেয়ে ধর্ষনের বাড়ির লোকজন এসে ধর্ষককে ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে ধর্ষিতার স্বামী বাড়ি ফিরে পরের দিন এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের চেষ্টা চালালে প্রভাবশালীদের হুমকী আর বাধার কারনে থানার মামলা দায়েরে ব্যর্থ হন। শহীদ মুক্তিযোদ্ধার জামাতা ও ধর্ষিতার স্বামী ইনছান আলী জানান প্রভাবশালীদের হুমকী আর বাধায় তিনি তার স্ত্রীকে নিয়ে রাতের আধারে নীলফামারী জেলা শহরের পালিয়ে আসেন। এখানে এসে আইনজীবির মাধ্যমে তার স্ত্রী বাদী হয়ে আজ সোমবার দুপুরে নীলফামারীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতে মামলা দায়ের করেন। বাদির আইনজীবি কামরুজ্জামান শাসন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।