১৩ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

দেশে গণতন্ত্র নেই-এরশাদ

অনলাইন ডেস্ক ॥ সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, সংবিধানের পাতায় গণতন্ত্র থাকলেও দেশে নেই। দখলবাজ ও টেন্ডারবাজদের দখলে দেশ চলে গেছে বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, এখন অার সুশাসন নেই, সবার কাছে আছে বন্দুক-পিস্তল।

সোমবার দুপুর ২টায় খুলনা শহরের শহীদ হাদিস পার্কে খুলনা জেলা জাতীয় পার্টির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন তিনি।

এরশাদ বলেন, দেশের মানুষের মূল্যবোধ নষ্ট হয়ে গেছে। শিশুরা ধর্ষিত ও নির্যাতিত হচ্ছে। বিচারকার্য বিলম্ব হওয়ায় অপরাধ প্রবণতা বেড়েছে। এসব অপরাধীরা শাসক দলের সঙ্গে জড়িত।

‘আমি দলীয়করণে বিশ্বাস করি না, আইনের শাসনে বিশ্বাস করি। আমি বিচারকদের কাজে হস্তক্ষেপ করিনি’ বলে দাবি করে সাবেক রাষ্ট্রপতি বলেন, বেসিক ব্যাংক ও শেয়ারবাজারের মাধ্যমে হাজার হাজার কোটি টাকা পাচার হচ্ছে, সে টাকা উদ্ধার হয়নি। এখনও হলমার্ক কেলেঙ্কারির হোতাদের গ্রেফতার করা হয়নি। রাষ্ট্রীয় অর্থপাচার হলে কেউ তার প্রতিবাদ করলে অর্থমন্ত্রী রসিকতা করেন।

‘জাপাকে প্রতিষ্ঠিত করতে আবার গ্রামাঞ্চলে ছুটছি’ জানিয়ে, মানুষের মুখে আবার হাসি ফুটাতে জাতীয় পার্টিকে নির্বাচিত করার আহবান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন জাপা মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু ও পানিসম্পদ মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, প্রসিডিয়ামের সদস্য, কৃষক পার্টির সভাপতি সাহিদুর রহমান, প্রেসিডিয়ামের সদস্য তাজ রহমান, প্রেসিডিয়াম সদস্য যুব সংহতির সভাপতি রেজাউল ইসলাম ভূইয়া, কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান সাবেক সংসদ সদস্য শেখ আবুল হোসেন প্রমূখ।

সম্মেলনে জেলা শাখার সভাপতি পদে একমাত্র প্রার্থী শফিকুল ইসলাম মধুকে পুনরায় মনোনীত করেন এরশাদ। সম্মেলনের উদ্বোধনী পর্বে খুলনা জেলা শাখার আহবায়ক ও এরশাদের প্রেস সচিব সুনীল শুভ রায় সভাপতিত্ব করেন।