২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সংশোধিত বৈদেশিক মুদ্রা নিয়ন্ত্রণ আইন পরিপালনের নির্দেশ

  • আইন লঙ্ঘন করলে ৭ বছরের জেল

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ সংশোধিত বৈদেশিক মুদ্রা নিয়ন্ত্রণ আইন পরিপালনের নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এখন থেকে বৈদেশিক মুদ্রা নিয়ন্ত্রণ আইন লঙ্ঘন করলে আর্থিক দ-ের পাশাপাশি সর্বোচ্চ শাস্তি হবে ৭ বছরের জেল। এর আগে আইন লঙ্ঘনের সর্বোচ্চ শাস্তি ছিল ৪ বছর। তবে আর্থিক জরিমানার কোন বিধান ছিল না। একইসঙ্গে বাংলাদেশে অবস্থানরত বিদেশী নাগরিকের বিদেশে স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তির হিসাব চাওয়ার ক্ষমতা দেয়া হয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংককে।

জানা গেছে, গত ৬ সেপ্টেম্বর সংসদে পাস হওয়া সংশোধিত ফরেন এক্সচেঞ্জ রেগুলেশন (এ্যামেন্ডমেন্ট) এ্যাক্ট বা বৈদেশিক মুদ্রা নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৫-তে এসব বিষয় অন্তর্ভুক্ত করা হয়। সংশোধিত আইন পরিপালনের জন্য সোমবার বাংলাদেশ ব্যাংক একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে ব্যাংকগুলোর প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠিয়েছে। বৈদেশিক মুদ্রা ও সিকিউরিটিজ ক্রয়-বিক্রয় নিয়ন্ত্রণের জন্য ১৯৪৭ সালে এ আইন করা হয়। পরে ১৯৭৬ ও ২০০৩ সালে আইনটি সংশোধন করা হয়েছিল। এখন আরও যুগোপযোগী করা হলো। সংশোধিত আইনের আওতায় আইন লঙ্ঘনকারীর বিরুদ্ধে আর্থিক দ- দিতে পারবে বাংলাদেশ ব্যাংক। তবে দ-ের পরিমাণ কী হবে তা আলাদা প্রজ্ঞাপন জারি করে নির্ধারণ করে দিতে বলা হয়েছে। সময়ে-সময়ে যা পরিবর্তন করা যাবে। এতে বলা হয়েছে, এ আইন বাংলাদেশের সব নাগরিক ও বাংলাদেশে বসবাসরত বিদেশী নাগরিকদের জন্য প্রযোজ্য হবে। সরকার ও বাংলাদেশ ব্যাংক প্রয়োজনে বাংলাদেশে বসবাসরত বাংলাদেশী ও অন্য দেশের নাগরিকদের হাতে থাকা বিদেশী মুদ্রা বা বৈদেশিক সিকিউরিটিজ সম্পর্কিত তথ্য এবং বিদেশে তাদের স্থাবর বা অন্য সম্পত্তির তথ্য চাইতে পারবে। এছাড়া সেবা খাতের ক্রয়-বিক্রয়ের বিষয়টি নতুন আইনে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

আইন সংশোধনের ফলে বিদেশী প্রতিষ্ঠানের এজেন্ট হিসেবে কাজ করতে এখন থেকে আর বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন নিতে হবে না। একইসঙ্গে বিদেশী প্রতিষ্ঠানের শাখা বা লিয়াজোঁ অফিস খুলতে শুধু বিনিয়োগ বোর্ডের অনুমোদন নিলে চলবে। তবে ব্যবসা শুরুর বিষয়টি সঙ্গে সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকে রিপোর্ট করতে হবে।

চট্টগ্রামে সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলা শুরু কাল

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ চট্টগ্রামে আগামীকাল বুধবার শুরু হচ্ছে সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলা। নগরীর আগ্রাবাদ সরকারী কার্যভবন-২ সংলগ্ন মাঠে আয়োজিত এ মেলায় থাকছে নতুন টিআইএন নম্বর গ্রহণ, রিটার্ন দাখিল, আয়কর পরিশোধসহ করদাতাদের জন্য প্রয়োজনীয় সেবা। এতে প্রধান অতিথি থাকবেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। বিশেষ অতিথি থাকবেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন। আয়কর বিভাগ সূত্রে জানানো হয়, আগামী ১৬ থেকে ২২ সেপ্টেম্বর প্রতিদিন সকাল ১০টা হতে বিকেল ৫টা পর্যন্ত মেলাঙ্গন খোলা থাকবে। এতে আয়কর সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য প্রদানের ব্যবস্থা রয়েছে। মেলায় প্রতিটি কর অঞ্চলের জন্য পৃথক বুথে আয়কর রিটার্ন গ্রহণের ব্যবস্থা রয়েছে। নতুন করদাতাদের টিআইএন নম্বর প্রদান করা হবে। এ পুরাতন করদাতাদের টিআইএন নবায়নের ব্যবস্থাও থাকছে। আয়কর পরিশোধের জন্য মেলায় ই-পেমেন্ট সুবিধাসহ ব্যাংকের বুথ থাকবে। আলাদা বুথ থাকছে মহিলা, প্রতিবন্ধী ও প্রবীণ করদাতাদের জন্য।

এদিকে, জাতীয় আয়কর দিবস উপলক্ষে একই স্থানে আজ মঙ্গলবার রয়েছে বিশেষ অনুষ্ঠান। এতে করদাতাদের সম্মাননা প্রদান করা হবে। অনুষ্ঠান উদ্বোধন করবেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। বিশেষ অতিথি থাকবেন চসিক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন।

নির্বাচিত সংবাদ