১৬ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

স্ত্রীকে পিটিয়ে দুই পা ও হাতের আঙ্গুল থেঁতলে দিয়েছে স্বামী

স্ত্রীকে পিটিয়ে দুই পা ও হাতের আঙ্গুল থেঁতলে দিয়েছে স্বামী
  • নওগাঁয় যৌতুকলোভী পাষণ্ডের কাণ্ড

নিজস্ব সংবাদদাতা, নওগাঁ, ১৪ সেপ্টেম্বর ॥ বাবার বাড়ি থেকে যৌতুকের টাকা এনে না দেয়ায় নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলার নজিপুর কলোনিপাড়া মহল্লায় মাহবুবা আখতার ববি (২৩) নামে এক গৃহবধূর ওপর অমানুষিক নির্যাতন চালিয়েছে তার পাষণ্ড স্বামী। নির্যাতন চালিয়ে দুই পা ও হাতের আঙুল থেতলে দিয়েছে স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন। মুমূর্ষু অবস্থায় তিনি এখন পতœীতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। রবিবার এ ব্যপারে থানায় একটি মামলা দায়ের হলেও পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

মামলা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, বছর তিনেক আগে জেলার মহাদেবপুর উপজেলার পৈশাতা গ্রামের বজলুর রশিদের মেয়ে মাহবুবা আখতার ববিকে মোটা অঙ্কের যৌতুকের বিনিময়ে পত্নীতলা উপজেলার নজিপুর কলোনী পাড়া মহল্লার ওসমান আলীর ছেলে ফল ব্যবসায়ী জালাল বিয়ে করেন। বিয়ের পর থেকেই ব্যবসার পরিসর বৃদ্ধির নাম করে ববির পিতার কাছ থেকে যৌতুকের অতিরিক্ত টাকা দাবি করে আসছিলো জালাল। এ নিয়ে তাদের স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া-বিবাদ দেখা দিলে পারিবারিকভাবে দুই পক্ষের লোকজন নিয়ে বেশ কয়েক দফা বৈঠকও হয়। কিন্তু তাতে কোন সমাধান আসেনি।

গৃহবধূ ববি জানান, কারণে অকারণে প্রায়ই নির্যাতন চালিয়ে আসছে জালাল। এমনকি ব্যবসায়ী পার্টনার ও পাওনাদারদের টাকা না দেয়ার ফন্দি হিসেবে আমাকে দিয়ে তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করার ষড়যন্ত্র করে। এসব কাজের বিরুদ্ধাচারণ করলে তার ওপর নেমে আসে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন। তিনি আরও জানান, বৃহস্পতিবার রাতে বাড়ি ফিরে হঠাৎ করেই ক্ষিপ্ত হয়ে ঘরে বন্দী করে লাঠি ও লোহার রড দিয়ে মারধর শুরু করে জালাল। একপর্যায় গোপনাঙ্গসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে লোহার রড দিয়ে আঘাত করে ক্ষত-বিক্ষত করে। একইসঙ্গে দুই পা ও হাতের আঙুলগুলো থেতলে দেয়। মারপিট শেষে একটি সিরিঞ্জে করে বিষাক্ত ওষুধ শরীরে ঢোকানোর চেষ্টা করলে প্রতিবেশীরা ছুটে আসে। প্রতিবেশী ফজলুর রহমান, মৌসুমী আকতার, জয়নব বানুসহ বেশ ক’জন সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, ববিকে প্রায়ই মারপিট করে জালাল। সর্বশেষ বৃহস্পতিবার তাকে হত্যা করার উদ্দেশেই বিষাক্ত ইঞ্জেকশন দেয়ার চেষ্টা করে সে। প্রতিবেশীরা ছুটে যাওয়ায় ববি প্রাণে রক্ষা পেয়েছে। জালাল পালিয়ে যাওয়ায় পর ববিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পতœীতলা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ আব্দুল মজিদ জানান, মারপিটের কারণে ববির শরীরের গলা, বুক ও পিঠসহ বিভিন্ন অঙ্গস্থানে রক্তাক্ত ফোলা-জখম হয়েছে। পা ও হাতের আঙুলগুলো ফেটে গেছে। তাকে সার্বক্ষণিক চিকিৎসা ও পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। এদিকে এ ঘটনায় গৃহবধূ ববি নিজেই বাদী হয়ে রবিবার পতœীতলা থানায় স্বামীকে প্রধান আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। এ বিষয়ে পতœীতলা থানার অফিসার ইনচার্জ আজিমুদ্দীন জানান, থানায় মামলা দায়ের হওয়ার পর থেকেই আসামিরা পালিয়ে আছে। তবে তাদের গ্রেফতার করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে।