১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুঁজিবাজারে সূচক বাড়লেও লেনদেন কমেছে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ টানা চতুর্থ দিনের মতো দেশের পুঁজিবাজারে সূচকের উর্ধগতি দিয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে। বেশিরভাগ কোম্পানির দর কমলেও মূলত বড় মূলধনী কোম্পানির দর বাড়ার কারণেই সূচকের এই উর্ধগতি। তবে সূচকের ইতিবাচক প্রবণতা থাকলেও সোমবারের তুলনায় মঙ্গলবার দুই বাজারেই কমেছে লেনদেনের পরিমাণ। পবিত্র ঈদ উল আযহার আগের বিনিয়োগকারীদের মূলত নগদ টাকার চাহিদা বেড়ে যাওয়াই লেনদেন কমে যাওয়ার অন্যতম কারণ হিসেবে দেখছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা। এছাড়া সমাপ্ত প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করতে কিছুটা দেরি এবং জুন ক্লোজিং কোম্পানিগুলোর লভ্যাংশ কেমন আসতে পারে তা নিশ্চিত হতে না পারাও লেনদেনে কিছুটা ভাটা পড়েছে বলে সংশ্লিষ্টরা বলছেন।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, সকালে সূচকের বৃদ্ধি দিয়ে লেনদেন শুরু হলেও শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের হাতবদল কমতে থাকে। দিনশেষে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪২০ কোটি ৪০ লাখ টাকার। যা সোমবারেও তুলনায় ১৬ কোটি ৬০ লাখ টাকা বা ৩ দশমিক ৮০ শতাংশ কম। আগের দিন ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ৪৩৭ কোটি টাকার শেয়ার। ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয় ৩২৩টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১৭টির, কমেছে ১৫৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৭টির শেয়ার দর।

সকালে ইতিবাচক প্রবণতা দিয়ে শুরুর পরে ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্য সূচক ১৫ পয়েন্ট বেড়ে ৪ হাজার ৮০১ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৪ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে এক হাজার ১৮০ পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক ১২ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৮৩৭ পয়েন্টে।

ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হলো - বেক্সিমকো ফার্মা, কাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেড, আমান ফিড লিমিটেড, ইসলামি ব্যাংক, আল-হাজ্ব টেক্সটাইল, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট লিমিটেড, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস, ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি), ইফাদ অটোস এবং অ্যাপোলো ইস্পাত কমপ্লেক্স লিমিটেড।

ডিএসইর দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো: পাওয়ার গ্রীড, আমান ফিড, হাক্কানী পাল্প, বিএসআরএম লিমিটেড, এ্যাপোলো ইস্পাত, এ্যাপেক্স ফুটওয়ার, ইসলামী ব্যাংক, ঢাকা ব্যাংক মিউচুয়াল ফান্ড, মুন্নু সিরামিক ও এ´িম ব্যাংক ১ম মিউচুয়াল ফান্ড।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : সোনারগাঁও টেক্সটাইল, দেশবন্ধু পলিমার, মেঘনা লাইফ, পপুলার লাইফ, সাভার রিফ্যাক্টরীজ, রূপালী লাইফ, ন্যাশনাল টিউবস, রহিমা ফুড, বিডি ল্যাম্পস ও ইমাম বাটন।

অন্যদিকে ঢাকার মতো অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক একচেঞ্জেও সব ধরনের স্চূক বেড়েছে। সকালে সূচকের উর্ধগতির পরে দিনশেষে স্টক এক্সচেঞ্জটিতে ২৬ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক ৬৮ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ৭০১ পয়েন্টে। একইভাবে সেখানকার বাছাই সূচকটিও বেড়েছে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৪১টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১০২টির, কমেছে ১০৭টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩২টির।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : ইউনাইটেড এয়ার, আমান ফিড, বিএসআরএম লিমিটেড, বে´িমকো ফার্মা, লাফার্জ সুরমা, অলিম্পিক এ´েসরিজ, দেশবন্ধু পলিমার, বে´িমকো, স্কয়ার ফার্মা ও ইসলামী ব্যাংক।