২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

লালমনিরহাটে গৃহবধুর অশ্লিল ভিডিও চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা, লালমনিরহাট ॥ জেলার সদরের মোগলহাট ইউনিয়নের কুরুল গ্রামে দুই সন্তানের জননী এক গৃহবধুর কে ব্ল্যাকমেইল করে নীল ছবি তৈরী করেছে স্বামীর ধর্ম ভাই। সেই ভিডিও দেখিয়ে দেড় বছর ধরে দৈহিক সর্ম্পক রেখে চলছে। বিষয়টি স্বামী জেনে যায়। ভিডিওটি ধংস্ব করতে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। অর্থ না পেয়ে বাজারে ভিডিও চিত্রটি ছড়িয়ে দিয়েছে। তথ্য প্রযুক্তির এমএমএস ম্যাসেজের মাধ্যমে মোগলহাটের উড়তি বয়সের প্রায় সকল যুবকের মোবাইলে ফোনে নীল ছবি ভিডিও চিত্রটি ছড়িয়ে দিয়েছে। এখন লোকলজ্জার ভয়ে স্বামী তার ক্ষুদ্র গালামালের দোকান বন্ধ করে রেখেছে। স্ত্রী লোকলজ্জার ভয়ে কোন ঠাসা হয়ে পড়েছে।

সোমবার রাতে মোগলহাট ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্ব ব্ল্যাক মেইলের শিকার গৃহবধু ও তার স্বামীর বিরুদ্ধে এক সালীশ বৈঠক হয়। সালীশে এই ভিডিও চিত্র বাজারে ছড়িয়ে দেয়ার ঘটনায় স্বামী স্ত্রীর মধ্যে মনোমালিন্য আপোষ মিমাংসা করে দেয়। স্ত্রীকে স্বামীর সংরারে তুলে দেয়। কিন্তু রহস্য জনক কারনে লম্পট যুবক মোঃ লুৎফর রহমানের(৩০) এর বিরুদ্ধে কোন অভিয়োগ আরোপ হয়নি। ভিডিও চিত্র ধারনকারীকে বাঁচাতে একটি প্রভাবশালী মহল অপতৎপরতা চালাচ্ছে।

মোগলহাট ইউপির চেয়ারম্যান মোঃ হাবিবুর রহমান গ্রাম্য বিচারের কথা স্বীকার করেছে। স্বামী স্ত্রীর সংসার বাঁচাতে সালীশ করেছে বলে জানায়। লম্পটের বিচার ঈদের পড়ে করা হবে বলে জানান।