২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাগেরহাটে ৫ম শ্রেনীর ছাত্রী বর্বরতার শিকার

স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট॥ বাগেরহাটের কচুয়া উপজেলায় ৫ম শেনীর ছাত্রী এক ছাত্রী শ্লীলতাহানীর শিকার হলেও গত ৮দিনে কোন মামলা হয়নি। ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে প্রভাবশালী মহলের জোর তদ্বিরে ভিকটীম পরিবার অসহায় হয়ে পড়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অভিযোগ, উপজেলার শাখারীকাঠি শহীদ স্মৃতী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেনীর এক ছাত্রীকে পিংড়–ড়ীয়া গ্রামের লম্পট সরোয়ার সরদার (৪২) বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে মৎস ঘেরের পাহারা ঘরে নিয়ে শ্লীলতাহনী করে। গত ৭ সেপ্টেম্বর সন্ধায় স্কুল ছাত্রী বাড়ীর সামনের রাস্তায় বের হলে লম্পট সরোয়ার জোর করে পাশ্ববর্তী সুপারী বাগানে নিয়ে গেলে স্থানীয় লোকজন টের পেয়ে সুপারী বাগার থেকে ছাত্রীকে উদ্বার করে। তখন লোকজনের উপস্থিতি টের পেয়ে সরোয়ার পালিয়ে যায়। উদ্বারের পর ছাত্রীটি স্থানীয়দের ঘটনার বর্ননা দেয়। এঘটনায় এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। বিষয়টি স্কুল ছাত্রীর নানী স্থানীয় সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্যকে জানায় এবং বিচার দাবী করে। এরপর মিমাংসার নামে একটি প্রভাবশালী মহল তদ্বির ও চাপ প্রয়োগ করে। ঘটনাটি থানা পুলিশ টের পেয়ে কচুয়া থানার এক এসআই ঘটনা স্থলে গেলেও অজ্ঞাত কারনে কোন ব্যাবস্থা গ্রহন করেনি। পুলিশ কোন ব্যাবস্থা না নেয়ায় নির্যাতনের শিকার ছাত্রীটি সহ তার পবিবার রয়েছে বিভিন্ন হুমকীর মুখে। এব্যাপারে কচুয়া থানার অফিসার ইন-চার্জ মোঃ সমশের আলী বলেন, ,ঘটনাটি শুনে সেখানে এক জন এসআই পাঠানো হয়। কিন্তু আজও লিখিত কোন অভিযোগ না পাওয়ার কারনে ব্যাবস্থা গ্রহন করতে পারিনি।