১০ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মুন্সীগঞ্জ পৌরসভা খুঁড়িয়ে চলছে ॥ দেখার কেউ নেই

স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ ॥ মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার প্রকৌশলী বিভাগের ঠুটোজগন্নাথ অবস্থা। প্রথম শ্রেণীর পৌরসভাটির এই বিভাগের লেজেগোবরে অবস্থা। রাস্তাঘাটের নাজুক অবস্থা সত্ত্বেও মেরামত বা নতুন প্রকল্পের কোন খবর নেই। বছরে তিন দফায় সরকারের বরাদ্দ এলেও সেগুলোও যথাযথভাবে কাজে লাগানো হচ্ছে না। চলমান প্রকল্পগুলোরও নেই কোন তদারকি।

তাই কাজ হচ্ছে নি¤œমানের। ঢাকা থেকে এসে সিভিল ইঞ্জিনিয়াররা এখানে অফিস করেন অনিয়মিত। মাসে ৭/৮ দিনও অফিস করেন না। সপ্তাহে ২/১ দিন এসে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করছেন। তাই পৌরবাসী শুধু উন্নয়ন থেকেই বঞ্চিত নয়। বিল্ডিং নির্মাণ, গ্যাস ও পানির লাইনের জন্য অনুমতি, ডিমারগেশন নানা সমস্যার জন্য পৌরসভায় এসে ফিরে যাচ্ছে। আর এই বিভাগের নাজুক অবস্থার কারণে শহরে জলবদ্ধতা, ড্রেনেজের অচল অবস্থা, রাস্তা-ঘাট ভাঙ্গাসহ হরেক রকম সমস্যায় হাবুডুবু খাচ্ছে।

এখানে একজন নির্বাহী প্রকৌশলী, একজন সহকারী প্রকৌশলী, দু’জন উপ সহকারী প্রকৌশলী এবং একজন করে ইলেকট্রিক্যাল ও মেকানিক্যাল উপ সহকারী প্রকৌশলী রয়েছেন। মেকানিক্যাল উপ সহকারী প্রকৌশলীর বাড়ি মুন্সীগঞ্জে। আর ইলেকট্রিক্যাল উপ সহকারী প্রকৌশলী পানির দায়িত্বে তিনি মুন্সীগঞ্জেই বসবাস করছেন। কিন্তু বাকিরা দল বেঁধে অনিয়মিত। অভিযোগ রয়েছে বর্তমান পৌর মেয়র একেএম ইরতদ মানুর কথাও এদের কেউ কেউ অবজ্ঞা করার মতো সাহস দেখাচ্ছেন।

দিনাজপুরে ইউপি সচিবদের বেতন বন্ধ তিন মাস

স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর ॥ দিনাজপুরের ১০২ ইউনিয়ন পরিষদ সচিব ঈদ বোনাসসহ তিন মাস ধরে বেতন পাচ্ছেন না।

দিনাজপুর জেলার ১০২ ইউনিয়ন পরিষদ সচিব জুন থেকে তাদের বেতন পাচ্ছেন না। বরাদ্দ না থাকায় বেতন বকেয়া পড়েছে বলে জেলা ইউনিয়ন পরিষদ সচিব এ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোকাররম হোসেন জানান। স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক ইমতিয়াজ হোসেন জানান, বরাদ্দ না থাকায় সচিবদের ঈদ বোনাসসহ তিন মাসের বেতন বকেয়া রয়েছে। ইতিমধ্যেই বরাদ্দ চেয়ে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেয়ার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, এ মাসেই ডিসেম্বর পর্যন্ত বেতনের বরাদ্দ পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তিন মাস ধরে বেতন না পাওয়ায় ইউনিয়ন পরিষদ সচিবদের কষ্টের মধ্যে দিন কাটাতে হচ্ছে বলে জানানো হয়।