২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

‘নিয়মিত কর পরিশোধ করলে ২০৪১ সালের আগেই উন্নত দেশ’

  • আয়কর মেলা ২০১৫ উদ্বোধন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, নাগরিকরা নিয়মিত কর পরিশোধ করলে ২০২১ সালের আগেই বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের এবং ২০৪১ সালের আগেই উন্নত ও সমৃদ্ধ রাষ্ট্রে পরিণত হবে বাংলাদেশ। এজন্য নাগরিকদের স্বপ্রণোদিত হয়ে কর দিতে এগিয়ে আসার আহবান জানান তিনি।

বুধবার রাজধানীর বেইলী রোডের অফিসার্স ক্লাব প্রাঙ্গণে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) আয়োজিত সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথিরন বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

আয়কর মেলা ২০১৫ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য (কর প্রশাসন ও মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা) মোঃ আব্দুর রাজ্জাক। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন এনবিআরের চেয়ারম্যান মোঃ নজিবুর রহমান।

অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রী বলেন, প্রতিবেশি দেশগুলোর তুলনায় জনসংখ্যার অনুপাতে করদাতার সংখ্যা অনেক কম। কর প্রদানে জটিলতাই এর কারণ। করদাতারা আয়কর রিটার্ন পূরণ ও দাখিল করাকে ঝামেলাপূর্ণ মনে করেন। তারপরও ইতোমধ্যে বাংলাদেশ নিম্নমধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে।

তিনি বলেন, করযোগ্য অনেকেই কর দিচ্ছে না। এখন কর দিতে আগ্রহী হলেও বিগত দিনের কর ফাঁকি উদঘাটনের ভয়ে তারা পিছিয়ে যাচ্ছেন। এই ভয়ভীতি দূর করতে পারলে দেশের করদাতার সংখ্যা দ্রুত বেড়ে যাবে।

আমির হোসেন আমু বলেন, নাগরিকরা তাদের আয়কর পরিশোধ করলে, সরকারের রাজস্ব আয় বাড়বে। সরকারের রাজস্ব আয় বাড়লে, দেশে অবকাঠামোসহ বিভিন্নখাতে অধিক পরিমাণে উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন সম্ভব হবে। এতে করে রাষ্ট্রের নাগরিকরাই উন্নত ও সমৃদ্ধ জীবন যাপনের সুযোগ পাবে। বিদেশি ঋণের পরিবর্তে নিজস্ব অর্থায়নে উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করলে, সরকারের বিপুল পরিমাণ অর্থ সাশ্রয় হয় বলে তিনি মন্তব্য করেন।

করদাতার মধ্যে নেতিবাচক বিষয় দূর করার জন্য জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে উল্লেখ করে শিল্পমন্ত্রী বলেন, এনবিআরের পদক্ষেপের মধ্যে আয়কর মেলা অন্যতম। এই মেলা করবান্ধব পরিবেশ তৈরিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে। এতে করদাতারা কর পরিশোধসহ আইন ও বিধি সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারণা পাবেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণের সাহসী সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এর পাশাপাশি পায়রা সমুদ্র বন্দর নির্মাণ কাজও এগিয়ে চলছে। এসব প্রকল্প সম্পন্ন হলে, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের আদলে বাংলাদেশ অর্থনৈতিকভাবে অনেক দূর এগিয়ে যাবে। এর মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে ত্রিশ লাখ শহীদের আত্মা শান্তি পাবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এনবিআরের চেয়ারম্যান মোঃ নজিবুর রহমান বলেন, ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে সেরা করদাতাদের সিআইপি মর্যাদা দেওয়ার দাবি উঠেছে। এ বিষয়ে শিগগিরই নীতিগত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, এ মেলা চলবে ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। মেলা চলাকালে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত করসংক্রান্ত যাবতীয় সেবা পাবেন করদাতারা। এবারের মেলায় ৫৬টি হেল্প ডেস্ক, ৬টি ব্যাংক বুথ ও ই-টিআইএন রেজিস্টেশন বুথসহ মোট ১৭২টি বুথ রয়েছে। এ ছাড়া শুল্ক, ভ্যাট ও জাতীয় সঞ্চয় পরিদপ্তরের স্টল রয়েছে এবারের আয়কর মেলায়। মেলায় আগত করদাতাদের শারীরিক অসুস্থতাজনিত সমস্যার জন্য থাকছে চিকিৎসা কেন্দ্র ও অ্যাম্বুলেন্স সেবার সুবিধা। যে কোন দুর্ঘটনা এড়াতে সতর্ক অবস্থায় ফায়ার সাভিৃস এন্ড সিভিল ডিফেন্স টিম।