২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নবীগঞ্জের বড়মিয়া, আঙ্গুর ও রাজ্জাকের চার্জ গঠন আদেশ ২৯ সেপ্টেম্বর

  • যুদ্ধাপরাধী বিচার

স্টাফ রিপোর্টার ॥ একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার দুই ভাই মহিবুর রহমান বড়মিয়া ও মুজিবুর রহমান আঙ্গুর মিয়া এবং তাদের চাচাত ভাই আবদুর রাজ্জাকের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের আদেশ আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর। নেত্রকোনার পূর্বধলার ৭ রাজাকারের মধ্যে গ্রেফতারকৃত দুই রাজাকার আবদুর রহমান (৭৫) ও আহমদ আলীকে (৭০) অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ২০ সেপ্টেম্বর সেফ হোমে নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়। অন্যদিকে নেত্রকোনার অপর মামলায় দুই রাজাকার মো. ওবায়দুল হক তাহের ও আতাউর রহমান ননীর বিরুদ্ধে প্রসিকিউশন পক্ষের ১৯তম সাক্ষীর জবানবন্দীর জন্য ৫ অক্টোবর দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। চেয়ারম্যান বিচারপতি আনোয়ারুল হকের নেতৃত্বে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ বুধবার এ আদেশগুলো প্রদান করেছে। ট্রাইব্যুনালে অন্য দুই সদস্য ছিলেন বিচারপতি মোঃ শাহিনুর ইসলাম ও বিচারপতি মোঃ সোহরাওয়ারদী। হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার দুই ভাই মহিবুর রহমান বড়মিয়া ও মুজিবুর রহমান আঙ্গুর মিয়া এবং তাদের চাচাত ভাই আবদুর রাজ্জাকের বিরুদ্ধে বুধবার অভিযোগ গঠনের পক্ষে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন প্রসিকিউটর সুলতান মাহমুদ সীমন। আসামিপক্ষে অভিযোগ গঠনের বিরোধিতা করে শুনানি করেন আইনজীবী মোঃ মাসুদ রানা। শুনানি শেষ করে অভিযোগ গঠনের বিষয়ে আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর আদেশের দিন ধার্য করেন।

গত ৩১ মে এই তিনজনের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ আমলে নেয় ট্রাইব্যুনাল। তাদের বিরুদ্ধে হত্যা, ধর্ষণ, অপহরণ, নির্যাতন, অগ্নিসংযোগসহ ৪টি মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ আনা হয়। ২০১৪ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি মামলার তদন্ত শুরু করে গত ২৮ এপ্রিল শেষ করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা নুর হোসেন। গত ১০ ফেব্রুয়ারি ট্রাইব্যুনালের গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হলে ওইদিনই নবীগঞ্জ উপজেলার ইমামবাড়ি এলাকা থেকে খাগাউড়া ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মহিবুর রহমান বড়মিয়া (৭০) ও তার ছোট ভাই বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান মজিবুর রহমান আঙ্গুর মিয়াকে (৬৫) গ্রেফতার করে পুলিশ।

গত ৩০ এপ্রিল মহিবুর ও মজিবুরের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন প্রসিকিউটর সুলতান মাহমুদ সীমন। ১৭ মে রাজ্জাককেও এ মামলার আসামি করে তিন আসামির বিরুদ্ধে চারটি অভিযোগে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দাখিল করেন প্রসিকিউটর সুলতান মাহমুদ সীমন ও রেজিয়া সুলতানা চমন। এদিন আব্দুর রাজ্জাকের বিরুদ্ধেও গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে ট্রাইব্যুনাল।১৯ মে মৌলভীবাজার জেলা সদরের আতানগিরি পাহাড় থেকে আবদুর রাজ্জাককে গ্রেফতার করে বানিয়াচং থানা পুলিশ। ২০০৯ সালে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা আকল মিয়ার স্ত্রী ভিংরাজ বিবি হবিগঞ্জের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কগনিজেন্স-৪ এ মামলাটি দায়ের করেন। পরে মামলাটি আদালত থেকে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে পাঠানো হয়।

সেফহোমে জিজ্ঞাসাবাদ ॥ একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে নেত্রকোনার পূর্বধলার ৭ রাজাকারের মধ্যে গ্রেফতারকৃত দুই রাজাকার আবদুর রহমান (৭৫) ও আহমদ আলীর (৭০) অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ২০ সেপ্টেম্বর তদন্ত সংস্থাকে সেফহোমে নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। চেয়ারম্যান বিচারপতি আনোয়ারুল হকের নেতৃত্বে তিন সদস্য বিশিষ্ট আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এ আদেশ প্রদান করেছেন। ১২ আগস্ট নেত্রকোনার ৭ রাজাকারের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে ট্রাইব্যুনাল। গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির পর নেত্রকোনার পুলিশ দুই রাজাকারকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃত রাজাকাররা হলেন, পূর্বধলার আবদুর রহমান ও আহমদ আলী। তদন্ত সংস্থা সূত্রে জানা গেছে, তাদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। গত বছরের ১১ ফেব্রুয়ারি থেকে ওই সাতজনের বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে তদন্ত করছেন তদন্ত কর্মকর্তা শাহজাহান কবির।

ননী তাহেরের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য ৫ অক্টোবর ॥ একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে নেত্রকোনার দুই রাজাকার মো. ওবায়দুল হক তাহের ও আতাউর রহমান ননীর বিরুদ্ধে প্রসিকিউশন পক্ষের ১৯তম সাক্ষীর জবানবন্দীর জন্য ৫ অক্টোবর দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। বুধবার প্রসিকিউশনের ১৮তম সাক্ষী সুরোধ চন্দ্র দেব রায়ের জেরা করেছেন আসামি পক্ষের আইনজীবী আবদুস সুবহান তরফদার।

নির্বাচিত সংবাদ