১৯ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জলাবদ্ধতায় অস্তিত্ব সংকটে চট্টগ্রামের বাণিজ্যপাড়া

  • ব্যবসায়ীদের স্মারকলিপি

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ বর্ষা মৌসুমে অতিবৃষ্টি এমনকি শুকনো মৌসুমে জোয়ারের পানিতেও প্লাবিত হয় দেশের বৃহত্তম পাইকারি পণ্যের বাজার খাতুনগঞ্জ ও চাক্তাই। এতে প্রতি বছরই বিনষ্ট হয় শত কোটি টাকার ভোগ্যপণ্য। টাকার অঙ্কে বিপুল ক্ষতির বোঝা মাথায় নিয়ে অনেকটা অস্তিত্ব সঙ্কটে পতিত হয়েছেন ব্যবসায়ীরা। উদ্ভুত পরিস্থিতিতে চাক্তাই ও খাতুনগঞ্জকে রক্ষায় জরুরী ভিত্তিতে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি জানিয়েছে প্রসিদ্ধ এই বাণিজ্য পাড়ার ব্যবসায়ী সংগঠনগুলো। বুধবার ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স এ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মাহবুবুল আলমের কাছে এই দাবিতে একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

স্মারকলিপিতে বলা হয়, অতিবৃষ্টি ও জোয়ারের পানিতে সৃষ্ট জলাবদ্ধতায় নষ্ট হয় দেশের সর্ব বৃহৎ পাইকারি বাজার খাতুনগঞ্জ চাকতাইয়ের হাজার ব্যবসায়ীর মালামাল। বৃষ্টির পানি অপসারিত হতে না হতে চলে আসে জোয়ারের পানি। এতে করে তলিয়ে যায় চট্টগ্রাম তথা দেশের সবচেয়ে বড় এই বাণিজ্যপাড়া। নাব্য হারিয়ে রাজাখাল, তুলাতলি খাল, রাজাখালী খাল ও চাকতাই খাল এখন অন্তিম সময় পার করছে। চাকতাই খালের মোহনা ভরাট ও কর্ণফুলী নদীতে বন্দর কর্তৃপক্ষের অপরিকল্পিত ড্রেজিংয়ের ফলে চাকতাই-খাতুনগঞ্জে অবর্ণনীয় বিপর্যয় ঘটছে। এতে শত শত ব্যবসায়ীর বিশাল ক্ষতি হয়েছে এবং শত কোটি টাকার ভোগ্যপণ্য জলমগ্ন হয়ে নষ্ট হয়েছে। পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই গত ৩১ জুলাই শুক্রবার বন্ধের দিন কাপ্তাই লেকের পানি ছেড়ে দিয়ে চাকতাই খাতুনগঞ্জসহ কর্ণফুলী নদীর তীরবর্তী এলাকাকে বিপর্যয়ের মুখে ঠেলে দেয়া হয়েছে। জোয়ারের লবণাক্ত পানি ঠেকানোর সম্ভাব্য উপায় ও করণীয় বিষয়ে আমরা সরকারের সহয়তা কামনায় চিটাগাং চেম্বারের ভূমিকা প্রত্যাশা করছি। চাক্তাই ও খাতুনগঞ্জ রক্ষার দাবিতে স্মারকলিপিতে বেশকিছু প্রস্তাবনা তুলে ধরা হয়। এর মধ্যে রয়েছেÑ চাক্তাই খাল ও রাজা খালের মোহনায় সøুইচ গেট স্থাপন, নৌপথে বাণিজ্য পুনরুদ্ধার ও সম্প্রসারণের জন্য কর্ণফুলী নদীর কার্যকর ড্রেজিং ও চাক্তাই খালসহ উপখালগুলো নৌচলাচলের উপযোগী করে তোলা, চাক্তাই প্রথম পোল টার্নিং পয়েন্টে গাড়ি চলাচলের সংকট দূরীকরণ, কর্ণফুলীর নদীর তীর দিয়ে চাক্তাই হতে কালুঘাট হয়ে মদুনাঘাট পর্যন্ত সুপ্রশস্ত মেরিন ড্রাইভওয়ের মাধ্যমে শহর রক্ষা বাঁধ ও নৌঘাট সৃষ্টি করা, চাক্তাই কর্ণফুলী নদীর তীরে সরকারী, খাস জমিতে একটি ট্রাক টার্মিনাল নির্মাণ করা, ট্রেড লাইসেন্স ফি’র অস্বাভাবিক বৃদ্ধি রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ, মধ্যম চাক্তাই ব্রিজের পাশ দিয়ে আছাদগঞ্জ শুঁটকি পট্টি কলাতলীর সঙ্গে চাক্তাই খালের ওপর একটি বেইলি ব্রিজ নির্মাণ, চেক-ডিজ অনার মামলার প্রতিকার ও ব্যবসায়িক প্রতারণা রোধে বিশেষ সেল গঠনের মাধ্যমে ব্যবসায়ীদের স্বার্থ সংরক্ষণের ব্যবস্থা ইত্যাদি। ব্যবসায়ীরা দেশের ঐতিহ্যবাহী এই বাণিজ্য কেন্দ্রকে রক্ষায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ এবং বাস্তবায়নের জন্য চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন, চউক, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ এবং সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সুদৃষ্টি কামনা করেন।