২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

এই ঈদে রুপালি পর্দায় নিবিড় লতিফুল বারী

ঈদ মানে বছরের কর্মব্যস্ত সময় থেকে ক’দিনের জন্য একটুখানি অবসর। আর এই অবসরকে পরিপূর্ণ করতে সিনেমার বিকল্প নেই। বাংলাদেশের চলচ্চিত্র জগতের সেরা ছবিগুলো মুক্তি পায় ঈদের সময়। শুধু নায়ক-নায়িকা নয়, হল মালিক এবং পরিবেশকরাও অপেক্ষায় থাকেন এই সময়ের। আর দর্শকদের কথা তো বলাই বাহুল্য।

এবারের কোরবানির ঈদে ৩টি ছবির কথা শোনা যাচ্ছে মুক্তি প্রতীক্ষিত হিসেবে। সংখ্যাটা ৪ হতে পারতো। হয়নি কারণ ‘পূর্ণদৈর্ঘ্য প্রেম কাহিনী ২’ এবারে মুক্তি পাওয়া ছবির দৌড় থেকে নিজেদের সরিয়ে নিয়েছে। ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান অভিনীত এই ছবির প্রিকুয়্যেল ‘পূর্ণদৈর্ঘ্য প্রেম কাহিনী’ ব্যাপক দর্শকপ্রিয়তা পাওয়ায় পরিচালক সাফিউদ্দিন সাফি এই ছবির সিকুয়্যেল নির্মাণে মনোযোগী হন। সঙ্গে গতবারের মতো এবারেও ছিলেন শাকিব খান ও জয়া। কিন্তু শেষ মুহূর্তে নিজেদের সরিয়ে নিল প্রযোজনা সংস্থা। কারণ হিসেবে দেখানো হচ্ছে কিছু শুটিং বাকি এবং সম্পাদনা প্রক্রিয়াও শেষ হয়নি। তবে শাকিব খান কে শাকিব খানের বিরুদ্ধে না দাঁড় করানোর জন্যেই মূলত সরে যাওয়া এমনও হতে পারে। কারণ শাকিব অভিনীত আরও ছবি মুক্তি পাচ্ছে এই ঈদে। আর তা হলো ‘রাজাবাবু দ্যা পাওয়ার’।

বদিউল আলম খোকন পরিচালিত এই ছবিটিই হতে যাচ্ছে শাকিব খানের ট্রাম্প কার্ড। গত ঈদেও এমন পরিস্থিতি হয়েছিল।

‘আরও ভালবাসবো তোমায়’ এবং ‘লাভ ম্যারেজ’ এই দুটি শেষ পর্যন্ত মুক্তি পেল লাভ ম্যারেজ। ফলাফল সুপার ডুপার হিট। সিনেমার অলিখিত নিয়ম এ কারণেই হয়তো ‘পূর্ণ দৈর্ঘ্য প্রেমকাহিনী’ কে সাইড লাইনে বসিয়ে ‘রাজাবাবু দ্যা পাওয়ার’ কে নিয়ে এগিয়ে চলছে। এ ছবিতে শাকিব খানের বিপরীতে আছেন তার চিরায়ত জুটি অপু বিশ্বাস। এ ছাড়াও অভিনয় করেছেন অনেকেই। এ ছবি নিয়ে শাকিব খান বলছেন ‘রাজাবাবু দ্যা পাওয়ার’ একটি বিনোদনধর্মী ছবি। আশা করছি এ ছবি দর্শকদের পরিপূর্ণ বিনোদন দিবে। রোমান্স, এ্যাকশন এবং কমেডি সব কিছুর মিশেল রয়েছে এই ছবিতে। ছবিতে শাকিবের বিপরীতে দেখা যাবে অপু বিশ্বাসকে। এছাড়া আরও অভিনয় করেছেন ববি হক, দিতি, ওমর সানি, শাহনূর, প্রবীর মিত্র, মিশা সওদাগর, উজ্জ্বল, সাদেক বাচ্চু, আফজাল শরীফ প্রমুখ। সিনেমাটি থাইল্যান্ডসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন লোকেশনে একটানা শূটিং করা হয়। এর কাহিনী লিখেছেন কাশেম আলী দুলাল। সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন আলী আকরাম শুভ।

ঈদে অপর একটি আলোচিত ছবির নাম ‘আশিকি’। আর এই ছবিতে অভিনয় করতে ইতোমধ্যে আলোচনার জন্ম দিয়েছেন নুসরাত ফারিয়া। কারণ নবাগতা এই নায়িকার ক্যারিয়ারের শুরুতেই একটি যৌথ প্রযোজনার ছবিতে কাজের সুযোগ যে ছবির জন্য ঘুরতে হয়েছে দেশের বাইরে এমনকি স্কটল্যান্ডেও। ভারত ও বাংলাদেশের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত এ ছবিটির বাংলাদেশ অংশ থেকে আছে জাজ মাল্টি মিডিয়া এবং ভারত অংশে রয়েছে এস কে মুভিজ। আর পরিচালনায় রয়েছেন অশোক পাতি এবং আব্দুল আজিজ। নুসরাতের বিপরীতে রয়েছে কোলকাতার জনপ্রিয় অভিনেতা অঙ্কুশ। এদিকে ইউটিউবে মুক্তি পেয়েছে এই সিনেমার গান ‘তোর আশিকি’ যেটি মানুষের মাঝে সারা ফেলে দিয়েছে ব্যাপক। এছাড়া ‘বৃষ্টি ভেজা’ গানও ব্যাপক উৎসাহ সৃষ্টি করেছে। নুসরাত জাজের সঙ্গে কাজ করার জন্য নতুন করে চুক্তিবদ্ধ হওয়া অভিনেত্রী। এর আগে জাজের বাঁধা নায়িকা ছিল মাহিয়া মাহি। এবার জাজ সঙ্গে নিলো নুসরাত ও জোলিকে। আর তারপর থেকে এটাই নুসরাতের প্রথম ছবি। দেশের পুরো চলচ্চিত্র সমাজ অধীর আগ্রহে অপেক্ষায় আছে আশিকির জন্য।

এবারের ঈদে যৌথ প্রযোজনার আরও একটি ছবি আসার সম্ভাবনা আছে। আর সেটি হলো রাজচন্দ ও কামাল মোঃ কিবরিয়া লিপু পরিচালিত ‘ব্যাক’। এই ছবির প্রযোজনায় বাংলাদেশ অংশে রয়েছে কিবরিয়া ফিল্মস এবং ভারতীয় অংশে রয়েছে দাগ মাল্টিমিডিয়া। এ ছবির মূল আকর্ষণ ভারতীয় বাংলা ছবির জনপ্রিয় মুখ সোহমের অভিনয়।

‘বোঝে না সে বোঝে না’ ছবির মাধ্যমে বাংলাদেশে সোহম ব্যাপক জনপ্রিয়। আর এ জনপ্রিয়তাকে পুঁজি করেই প্রযোজক তাকে কাস্ট করেছেন। সোহম অভিনয় করছে মিম এর বিপরীতে। আর এই ছবির মাধ্যমেই টালিউডের বড় কোন স্টার মূলত বাংলাদেশে প্রবেশ করল ঢাকাই নায়কদের প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে। বিশেষ করে এবারের ঈদে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে হবে সোহমের সঙ্গে শাকিবের। সব মিলিয়ে এবারের ঈদ আয়োজন বেশ ভাল।

ছবির সংখ্যা কম সুতরাং দর্শকের বিভাজনও কম। সব ছবিরই রয়েছে কিছু শক্ত জায়গা যা তাদের ব্যবসায়িক সাফল্যে এনে দিতে পারে অনায়াসেই।