১৩ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুঁজিবাজারে পাঁচশ কোটি টাকার লেনদেন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ একদিনের সূচকের সামান্য পতন থেকে আবারো দরবৃদ্ধির ধারায় ফিরেছে দেশের পুঁজিবাজার। ঈদ উল আযহা উপলক্ষে নগদ টাকার চাহিদা কমে যাওয়ায় বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণও আগের তুলনায় বাড়ায় প্রধান বাজার ঢাকা স্টক একচেঞ্জের (ডিএসই) লেনদেন ফের পাঁচশ কোটি টাকা ছাড়িয়েছে। সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবারে ডিএসইর মোট ৫২ শতাংশ কোম্পানির লেনদেন বেড়েছে। দিনটিতে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৫১৪ কোটি ৪৩ লাখ টাকার। যা বুধবারের তুলনায় ৮৭ কোটি টাকা বা ২০ দশমিক ৩৬ শতাংশ বেশি লেনদেন। আগের দিন ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ৪২৭ কোটি ৪১ লাখ টাকার শেয়ার। একইভাবে অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক একচেঞ্জেও আগের চেয়ে ১০ কোটি টাকার লেনদেন বেড়েছে।

সকালে সূচকের বৃদ্ধি দিয়ে লেনদেন শুরুর পরে ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্য সূচক ২২ পয়েন্ট বেড়ে ৪ হাজার ৮১৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে এক হাজার ১৮৬ পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক ১১ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৮৪৮ পয়েন্টে।

ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয় ৩১৭টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৭১টির, কমেছে ৯৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫০টির শেয়ার দর।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, এ ক্যাটাগরির ২৬৯টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ১৩৬টির, কমেছে ৯৮টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩৫টির। তবে এন ক্যাটাগরির ৫টির শেয়ারের লেনদেন হয়েছে, ৫টিরই দর বেড়েছে। এছাড়া জেড ক্যাটাগরির ২৯টির মধ্যে ১৬টির দর বেড়েছে, ৮টির দর কমেছে এবং ৫টির দর অপরিবর্তিত ছিল।

ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হচ্ছে - বেক্সিমকো ফার্মা, ইসলামি ব্যাংক, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি, আমান ফিড লিমিটেড, বিএসআরএম স্টিলস লিমিটেড, গ্রামীণফোন, ইফাদ অটোস, বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেড, আরএকে সিরামিকস (বাংলাদেশ) লিমিটেড এবং বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কোম্পানি লিমিটেড।

ডিএসইর দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : আমান ফিড, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড, হাক্কানী পাল্প, গোল্ডেন হার্ভেস্ট, আরএকে সিরামিক, বেঙ্গল উইন্ডসর থার্মোপ্লাস্টিক, এমারেল্ড ওয়েল, এনসিসি ব্যাংক ১ম মিউচুয়াল ফান্ড, ইউনিক হোটেল অ্যান্ড রিসোর্ট লিমিটেড ও বে´িমকো।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : কেয়া কসমেটিকস, অগ্রনী ইন্স্যুরেন্স, ন্যাশনাল টিউবস, দেশবন্ধু পলিমার, ইউনাইটেড ফাইনান্স, পূররী জেনারেল, মেঘনা পেট, কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্স, পপুলার লাইফ ও জেমিনি সী ফুড।

অন্যদিকে প্রধান বাজারের মতো অপর স্টক একচেঞ্জেও সব ধরনের সূচক বেড়েছে। সেখানেও শেয়ার বিক্রির চাপ কম ছিল। এর বিপরীতে শেয়ারের ক্রেতা বেশি দেখা গেছে। একইভাবে বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণও আগের তুলনায় বেড়েছে। দিনটিতে চট্টগ্রাম স্টক একচেঞ্জে ৩৭ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক ৭৭ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ৭৬৫ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৪৭টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১৮টির, কমেছে ৮৬টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৩টির।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড, বে´িমকো ফার্মা, আমান ফিড, কেয়া কসমেটিকস, বিএসআরএম লিমিটেড, বে´িমকো, মোজাফফর হোসেন স্পিনিং, শাহজিবাজার পাওয়ার, ইসলামী ব্যাংক ও লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট।