১২ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরেছে ১৬ বাংলাদেশি

সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরেছে ১৬ বাংলাদেশি

স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার ॥ মিয়ানমারের কারাগারে বিভিন্ন মেয়াদে সাজাভোগ শেষে ১৬ বাংলাদেশি দেশে ফিরেছে।

বৃহস্পতিবার বেলা ১২টায় কক্সবাজারের টেকনাফ স্থলবন্দরের ইমিগ্রেশন জেটিঘাট দিয়ে তাদের দেশে আনা হয়।

এর অাগে সকালে বিজিবি টেকনাফ ৪২ ব্যাটালিয়নের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মো: আবদুল মান্নান খানের নেতৃত্বে ১৭সদস্য বিশিষ্ট প্রতিনিধিদল বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় টেকনাফ স্থলবন্দর জেটি হয়ে মিয়ানমারে যান। সকাল ১০টায় দেশটির সীমান্তরক্ষীদল বিজিপি বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলকে অভ্যর্থনা জানান। এরপর মিয়ানমারের মংডু এক নম্বর পয়েন্ট অব এন্ট্রি এন্ড এক্সিট এলাকায় পতাকা বৈঠকে মিলিত হন উভয় দেশের প্রতিনিধিদল।

বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের প্রতিনিধি নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ফাহমিদা মোস্তফাসহ পুলিশ ও অভিবাসন কেন্দ্রের প্রতিনিধিগণ বিজিবির সঙ্গে ছিলেন। আন্তরিক ও সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে দুই ঘন্টা ব্যাপী পতাকা বৈঠক শেষে সেদেশের কারাগারে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা ভোগকারী ১৬ বাংলাদেশীকে বিজিবির কাছে হস্তান্তর করে মিয়ানমার। পতাকা বৈঠকে বাংলাদেশের ১৭ সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন টেকনাফ ৪২বিজিবি ব্যাটালিয়নের উপ-অধিনায়ক মো: আজহারুল আলম। মিয়ানমারের পক্ষে ১৬ সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন মংডু ইমিগ্রেশন অফিসার ইউমিউ মাইং অং।

টেকনাফ থেকে জনকণ্ঠের সংবাদদাতা জানান, দেশে ফিরিয়ে আনা ব্যক্তিরা হলেন-টেকনাফের হোয়াইক্যং উনছিপ্রাংয়ের আলী আহমদ, নুর কবির, বাশাত করিম, লম্বাবিলের আমির হোসেন, সাবরাংয়ের রুহুল্ল্যার ডেবার মো: আলম, নয়াপাড়ার জাগির হোসেন, দক্ষিণ পাড়ার হাসিম উল্লাহ মিয়া, শাহপরীর দ্বীপ পশ্চিম পাড়ার এরশাদ উল্লাহ, নুরুল ইসলাম, জালিয়া পাড়ার মো: আবদুল্লাহ, ক্যাম্প পাড়ার জাগির হোসেন, সদরের গোদার বিলের আয়াজ উদ্দিন, উখিয়া সোনার পাড়ার নুরুল আলম, পূর্ব মরিচ্যার এনায়েত উল্লাহ ও চকরিয়ার মায়ার খান প্রকাশ মিরহান। এদের নিয়ে দুপুরে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দল টেকনাফ ট্রানজিট ঘাট হয়ে দেশে ফিরে আসেন।