২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

`রোহিঙ্গা ঢুকতে দেয়া যাবেনা'

স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার ॥ শিল্প মন্ত্রী আমির হোসেন আমু এমপি বলেছেন, রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ ঠেকাতে নতুন কৌশল করছে সরকার। তারা দেশের শক্র। আইন শৃঙ্খলার অবনতিতে এদের সম্পৃক্ততা রয়েছে। কোনমতেই রোহিঙ্গাদের এদেশে ঢুকতে দেয়া যাবেনা।

বৃহস্পতিবার সকালে কক্সবাজারে জেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির বিশেষ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যদের আরও নজরদারী বাড়ানোর নির্দেশ দিয়ে মন্ত্রী আরও বলেন- মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ, মানবপাচার ও মিয়ানমার সীমান্তে অনুপ্রবেশ প্রতিরোধে কঠোরতা প্রদর্শন করতে হবে। অন্যথায় আইন শৃঙ্খলা ঠিক রাখা যাবেনা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গাদের সঙ্গে কোন বাংলাদেশীর সম্পর্ক রাখা যাবেনা। যে সকল জনপ্রতিনিধি মিয়ানমারের নাগরিকদের বাংলাদেশীী জাতীয়তা সনদ দেবে- তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক ড.অনুপম সাহার সভাপতিত্বে সভায় মন্ত্রী বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৫৬ সালে শিল্পমন্ত্রী থাকাকালে কক্সবাজারে প্রথম পর্যটন কেন্দ্র চালু করেন। আর জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই পর্যটন নগরীকে আন্তর্জাতিক মানে উন্নীতকরনে কাজ করছেন।

জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্টিত সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম এমপি। সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল, আশেক উল্লাহ রফিক এমপি, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের সিনিয়র সচিব ড. মোজাম্মেল হক, জেলা পরিষদ প্রশাসক মোস্তাক আহমেদ চৌধুরী ও জেলা আ.লীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট আহমদ হোসেনসহ পদস্থ সরকারী কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এরপর মন্ত্রী শিল্প উদ্যোক্তা, লবন চাষী-মিল মালিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। এ সময় লবন ব্যবসায়ীদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, আর কোন লবন আমদানি নয়। বিসিককে মিথ্যা তথ্য দিয়ে কোন শক্তিকে লবন আমদানির সুযোগ দেয়া হবেনা। প্রান্তিক লবনচাষীদের ন্যায্যমূল্য প্রাপ্তি নিশ্চিত করা হবে। এ সময় তিনি শীঘ্রই বর্তমান ‘লবন নীতিমালাকে সংশোধন করে নতুন নীতিমালা ঘোষণার কথাও জানান।