২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাংলাদেশ ‘এ’ দলের ভারত সফর ॥ দ্বিতীয় একদিনের ম্যাচ শুক্রবার

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ ‘এ’ দলের তিন ম্যাচের আনঅফিসিয়াল ওয়ানডে সিরিজে টিকে থাকার তিনটি পথই খোলা আছে, সেটি হয় জয়, না হয় টাই, না হয় ম্যাচ পরিত্যক্ত হতে হবে। এ রেজাল্টগুলোর বিপরীত কোন কিছু ঘটলেই সিরিজ থেকে ছিটকে পড়বে বাংলাদেশ ‘এ’ দল। প্রথম ম্যাচে ৯৬ রানে জেতায় তখন ভারত ‘এ’ দল এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতে নেবে। শুক্রবার ব্যাঙ্গালুরুতে বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ৯টায় দ্বিতীয় ম্যাচটি শুরু হবে। ম্যাচটি বাংলাদেশের জন্য যেমন সিরিজে টিকে থাকার, ভারতের জন্য সিরিজ জিতে নেয়ার ম্যাচ হয়ে গেছে।

প্রথম ম্যাচে যে অবস্থা দেখা গেছে, তাতে বাংলাদেশ ‘এ’ দল যে অনেক পিছিয়ে রয়েছে তা বোঝাই গেছে। স্বাগতিকরা যেখানে ৩২২ রান করেছে, সেখানে বাংলাদেশ ‘এ’ দল ২২৬ রানেই গুটিয়ে গেছে। ৭৫ রান করা লিটন কুমার দাস ও ৫২ রান করা নাসির হোসেন ছাড়া আর কেউই ব্যাট হাতে জ্বলে উঠতে পারেননি। অথচ ভারতের ওপেনার মায়াঙ্ক আগারওয়ালের (৫৬) পর সঞ্জু স্যামসন (৭৩), গুরকিরাত সিং (৬৫) ও ঋষি ধাওয়ান (৫৬*) অর্ধশতক হাঁকিয়েছেন।

বাংলাদেশ বোলাররা অবশ্য শুরুতে একটু চাপ প্রয়োগ করতে পেরেছেন। কিন্তু তা আর শেষপর্যন্ত ধরে রাখা যায়নি। সেই তুলনায় ডানহাতি স্পিনার গুরকিরাত সিং দুর্দান্ত বোলিং করে একাই ৫ উইকেট তুলে নেন।

বাংলাদেশ দলের কোচ বলেছেন, ‘আমার মনে হয় প্রথম পাঁচ ওভার খারাপ হওয়ার পর আমরা ভাল করেছি। কয়েকটি উইকেট নিয়েছি। কিন্তু শেষপর্যন্ত চাপে রাখতে পারিনি। লিটন-নাসির জুটিটি দুর্দান্ত হয়েছে। যদি উইকেটে টিকে থাকা যায় ভাল ব্যাটিংও করা যায়, তা বুঝিয়ে দিয়েছেন নাসির-লিটন।’ সেই শিক্ষা নিয়ে এখন শুক্রবার দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশ ব্যাটসম্যানরা ভাল কিছু দিতে পারলেই হয়। না হলেই বিপদ! সিরিজ জয়ের স্বপ্ন নিয়ে গিয়ে টানা দুই ম্যাচ হেরে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই একদিনের আনঅফিসিয়াল সিরিজ হার হয়ে যাবে।

নির্বাচিত সংবাদ