২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ঝলক

রোবট সাংবাদিক!

রোবট সাংবাদিক! বিষয়টি শুনলে আজব মনে হলেও গুজব নয়। সম্প্রতি চীনা সোশ্যাল এবং গেমিং জায়ান্ট টেনসেন্ট কোম্পানি তৈরি করেছে একটি রোবট। মাত্র এক মিনিটে রোবটটি চীনা ভাষায় ৯১৬ শব্দের একটি নির্ভুল বাণিজ্যিক প্রতিবেদন তৈরি করেছে। এই রোবট সাংবাদিকটির নাম ‘ড্রিমরাইটার’। অবশ্য ড্রিমরাইটারের প্রকাশিত প্রতিবেদনটি সহজভাবে নেয়নি দেশটির স্থানীয় সাংবাদিকরা। তারা আশঙ্কা করছেন, এর জন্য ভবিষ্যতে তাদের চাকরি হুমকির মুখে পড়তে পারে।

সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট পত্রিকার সাংবাদিক লি উই বলেন, প্রকাশিত প্রতিবেদনটি পুরোপুরিভাবে পাঠযোগ্য। এটি পড়ে আমার মনেই হয়নি যে প্রতিবেদনটি কোন মানুষ লেখেনি।

তিনি আরও বলেন, আমি অনেকদিন থেকেই সংবাদপত্রে রোবট সাংবাদিক ব্যবহারের বিষয়টি শুনছিলাম। কিন্তু ভেবেছিলাম এটি শুধু ইউরোপ বা যুক্তরাষ্ট্রেই ব্যবহার হবে। তাই আমি এখনও তাদের সঙ্গে প্রতিযোগিতার জন্য প্রস্তুত নই।

অনাথের জন্য প্রাসাদ বিক্রি!

মানুষ মরে যায়, থেকে যায় তার কর্ম। এক বিবেচনায় বেঁচেও থাকে সে। মন থেকে মনান্তরে। যুগ থেকে যুগান্তরে। এই বেঁচে থাকা কর্মের মধ্য দিয়ে। এদিক দিয়ে মানুষ চিরঞ্জীব, অমর। মৃত্যুর পরও অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলসের বাসিন্দাদের স্মৃতিতে কর্মের মধ্য দিয়ে অমর হয়ে আছেন এক নারী। নাম তার লিলি ফ্যারডেল। অস্ট্রেলীয় সাবেক এক কোটিপতি। গত বছরের গোড়ারদিকে পৃৃথিবীর মায়া ত্যাগ করেন লিলি। ছিলেন নিঃসন্তান। মাতৃত্বের স্বাদ বঞ্চিত এই নারী তার সমুদয় সম্পত্তি অনুদান হিসেবে দিয়ে গেছেন গৃহহীন অনাথ শিশুদের জন্য। এর মাধ্যমেই বদলে গেছে স্থানীয় গৃহহীন শিশুদের জীবন।

২৩.৫ লাখ ডলার মূল্যের প্রাসাদ প্যাসিফিক হাউসের মালিক ছিলেন। অনিন্দ্যসুন্দর এই প্রাসাদের ভেতর রয়েছে দুর্লভ ভাস্কর্য, দুর্মূল্য পাথর ও দামী আসবাবের সম্ভার। শিশুদের কল্যাণের জন্য তহবিল যোগাতে মৃত্যুর আগে এই প্রসাদ নিলামে চড়ান লিলি। এ থেকে সংগ্রহ হয় ৪০ লাখ ডলার। প্রয়াত লিলির উইল অনুসারে নিলামে সমুদয় অর্থ গৃহহীন-দুস্থ শিশুদের কল্যাণের জন্য ব্যয় করা হবে বলে জানা গেছে।

‘প্রত্যেকে মোরা পরের তরে’- মৃত্যুর আগে এরই আরেক দৃষ্টান্ত রেখে গেলেন এই মহীয়সী।

নির্বাচিত সংবাদ