১৬ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

প্রাইমারীতে প্যানেলভুক্তদের ৬০ দিনের মধ্যে নিয়োগের নির্দেশ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রেজিস্টার্ড প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্যানেলভুক্ত শিক্ষকদের আগামী ৬০ দিনের মধ্যে নিয়োগ দিতে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। অন্যদিকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদে উত্তীর্ণ নিয়োগ বঞ্চিতদের নিয়োগ আদালতের রায় পালন না করায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিবসহ সাত জনের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল জারি করা হয়েছে। এদিকে জাতীয় সংসদের সরকারদলীয় চীফ হুইপ আ স ম ফিরোজের সংসদ সদস্য পদের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে দায়ের করা রিট আবেদনটি খারিজ করে দিয়েছে হাইকোর্ট। বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট বেঞ্চ এসব আদেশ প্রদান করেছে।

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্যানেলভুক্ত শিক্ষকদের আগামী ৬০ দিনের মধ্যে নিয়োগ দিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বিচারপতি ফারাহ মাহবুব ও বিচারপতি কাজী মোঃ ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট দ্বৈত বেঞ্চ এ রায় প্রদান করেছে। বৃহস্পতিবার আদালতে রিট আবেদনকারীর পক্ষে শুনানি করেন এ্যাডভোকেট সিদ্দিক উল্লাহ মিয়া। অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি এ্যাটর্নি জেনারেল আমাতুল করিম।

সচিবসহ সাত জনের বিরুদ্ধে রুল ॥ রেজিস্টার্ড প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদে উত্তীর্ণ নিয়োগ বঞ্চিতদের নিয়োগ আদালতের রায় পালন না করায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিবসহ সাত জনের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। বিচারপতি ফারাহ মাহবুব ও বিচারপতি কাজী মোঃ ইজারুল হক আকন্দের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রুল জারি করে। আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন এ্যাডভোকেট এমএম নুরুজ্জামান। আইনজীবী নুরুজ্জামান জানিয়েছেন, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব মেজবাহ উল আলম, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক মোঃ আলমগীর, পরিচালক(পলিসি এ্যান্ড অপারেশন) মোঃ আনোয়ারুরুল হক, উপসচিব নুজহাত ইয়াসমিন, নওগাঁ জেলার ডিসি ড. আমিনুর রহমান, নওগাঁ প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আমিনুল ইসলাম ম-ল, মহাদেবপুর উপজেলার শিক্ষা অফিসার মোঃ আতাউর রহমানের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল জারি করা হয়েছে। চার সপ্তাহের মধ্যে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। ১০ জনের পক্ষে আদালত অবমাননার আবেদনটি দায়ের করেন নওগাঁ জেলার মহাদেবপুর উপজেলার মোঃ শফিকুল ইসলাম জুয়েল।

আ স ম ফিরোজের সংসদ সদস্য পদের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট খারিজ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ জাতীয় সংসদের সরকারদলীয় চীফ হুইপ আ স ম ফিরোজের সংসদ সদস্য পদের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে দায়ের করা রিট আবেদনটি খারিজ করে দিয়েছে হাইকোর্ট। বিচারপতি আশফাকুল ইসলাম ও বিচারপতি জাফর আহমদের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ বৃহস্পতিবার এ আদেশ প্রদান করে। এর আগে ঋণখেলাপীর অভিযোগে আ স ম ফিরোজের সংসদ সদস্য পদের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে এ রিট আবেদনটি দায়ে করেন জিয়াউল হক জুয়েল।