২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ইতালিয়ান কোচ লোপেজের অধীনে মামুনুলদের প্রথম দিন

ইতালিয়ান কোচ লোপেজের অধীনে মামুনুলদের প্রথম দিন

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ফিফা বিশ্বকাপ ও এএফসি এশিয়ান কাপের বাছাইপর্বে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের পরবর্তী ম্যাচ (এ্যাওয়ে) আগামী ১৩ অক্টোবর কিরগিজস্তানের বিপক্ষে। এ উপলক্ষে সোমবার বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের ৪১ জনের প্রাথমিক দল ঘোষণা করে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। এদের নিয়ে একটি আবাসিক প্রশিক্ষণ ক্যাম্প মঙ্গলবার থেকে মতিঝিলে অবস্থিত বাফুফে ভবনে শুরু হয়। ডাক পাওয়া খেলোয়াড়দের মধ্যে ৩৬ জন মঙ্গলবার বাফুফে ভবনে বেলা সাড়ে ১১টায় প্রয়োজনীয় ক্রীড়া সরঞ্জামাদিসহ দলের ম্যানেজার আমিরুল ইসলাম বাবু এবং সহকারী প্রশিক্ষক একেএম সাইফুল বারী টিটুর কাছে রিপোর্ট করেন। বৃহস্পতিবার প্রথমবারের মতো জাতীয় দলে ডাক পাওয়া ফুটবলারদের নিয়ে নেমে পড়েন দলের নতুন হেড কোচ ফ্যাবিও লোপেজ (ইনজুরির কারণে হেমন্ত ভিনসেন্ট ও দেশের বাইরে থাকায় জামাল ভূঁইয়া হাজির ছিলেন না) অভিজ্ঞ ও তারুণ্যের মিশেলে ঘোষিত বিশাল স্কোয়াড নিয়ে যাত্রা শুরু করলেন ইতালিয়ান কোচ লোপেজ। পাঁচ দিনব্যাপী অনুশীলনের প্রাথমিক বাছাইয়ে ডাক পাওয়া খেলোয়াড়দের যাচাই করে তালিকাটা চূড়ান্ত করতে হবে লোপেজকে। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে কিরগিজস্তানের বিপক্ষে আগামী ১৩ অক্টোবরের ম্যাচটি দিয়েই প্রথম মাঠে নামবেন এই ইতালিয়ান। নতুন মিশনে দল গুছিয়ে নিতে ফুটবলারদের পরখ করতে বৃহস্পতিবার সকালেই নেমে পড়েন লোপেজ। তার অধীনে আপাতত ঢাকাতেই পাঁচ দিনের অনুশীলন চলবে। ৪১ ফুটবলারকে যাচাই-বাছাই করবেন নতুন কোচ। কোচিং স্টাফদের নিয়ে লোপেজ ২০ সেপ্টেম্বর থেকে সাভারের জিরানির বিকেএসপিতে শুরু করতে পারেন আবাসিক ক্যাম্প। জানা গেছে, তখন ছোট হয়ে যাবে দল। দল হবে ২৩ জনের। ফলে ঈদের ছুটি হয় তো পাবে না খেলোয়াড়রা। সেখান থেকেই চূড়ান্ত হবে ২৩ সদস্যের স্কোয়াড। পরে চূড়ান্ত দল নিয়ে আগামী ৯ অক্টোবর কিরগিজস্তানের উদ্দেশে রওনা হবে বাংলাদেশ দল। প্রথমদিনে লোপেজ ফুটবলারদের করিয়েছেন ফিজিক্যাল ট্রেনিং। বল ছাড়া অনুশীলন কমই করান। গত ৮ সেপ্টেম্বর জর্দানের বিপক্ষে বাংলাদেশের যেসব ফুটবলার খেলেছিলেন, তাদের নিয়ে একটি গ্রুপ এবং যারা খেলেননি বা দলে নতুন মুখÑ তাদের নিয়ে আরেকটি গ্রুপ করে তারপর অনুশীলন করিয়েছেন। তীব্র গরমের কারণে দেড় ঘণ্টার বেশি কোচ অনুশীলন করাতে পারেননি। সমস্যাটা খেলোয়াড়দের নয়, কোচের। কারণ বাংলাদেশের উষ্ণ আবহাওয়ার সঙ্গে এখনও খাপ খাইয়ে নিতে পারেননি তিনি।

প্রথম দিন কোচ মিডিয়ার কাছে মুখ খোলেননি। তারপরও একটি সূত্র থেকে জানা গেছে, তার পরিকল্পনা আছে প্রাথমিক দলের ৪১ ফুটবলারকে নিয়ে তিন ভাগে অনুশীলন করাবেন। জর্দানের বিপক্ষে বাংলাদেশ দলের খেলা দেখে মোটেও সন্তুষ্ট হতে পারেননি লোপেজ। তিনি নাকি কিরগিজস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে দলে বেশ কিছু পরিবর্তন আনতে পারেন। ইতালিয়ান ফুটবল মানেই রক্ষণাত্মক ফুটবল। নিজেদের রক্ষণভাগ সুদৃঢ় রেখে তারপর আক্রমণে যাওয়া। লোপেজের কোচিং স্টাইলও সে রকমই হওয়ার কথা। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশ দলের ডিফেন্ডারদের ওপর অনেক গুরু দায়িত্ব যে অর্পিত হতে যাচ্ছে, তাতে কোন সন্দেহ নেই। রেজাউল করিম দুই বছর পর জাতীয় দলে আবারও ডাক পেয়েছেন। শেখ রাসেলের এই ফুটবলার জানান, ‘নতুন কোচকে প্রথমদিনেই অনেক বন্ধুভাবাপন্ন মনে হয়েছে। যদিও মাঝে মাঝে তিনি বেশ প্রতিক্রিয়াও দেখিয়েছেন।’

বাংলাদেশ দলের নতুন দুই কোচ (সহকারী কোচ কস্তানতিনো জুকারিনি এবং ফিটনেস কোচ এ্যাঞ্জেলো পাভিয়া। দুজনেই ইতালিয়ান) বাংলাদেশে এসেছেন বৃহস্পতিবার এবং অনুশীলনেও তারা ছিলেন।

এছাড়া দলের তরুণ রাইট উইঙ্গার জুয়েল রানা বলেন, ‘ভাল লেগেছে প্রথম দিনের অনুশীলন। তবে প্রচ- গরমের কারণে বেশিক্ষণ অনুশীলন করা যায়নি। গরমের কারণে কোচেরও হয়তো খারাপ লাগছিল। প্রাথমিক ওয়ার্মআপ করিয়েছেন ফিটনেস কোচ’। নতুন কোচের সঙ্গে ভাষাগত আদান-প্রদানে কোন সমস্যা হচ্ছে কি না, এ প্রসঙ্গে জুয়েল বলেন, ‘তেমন না। আর তিনি কি বলছেন, তা বাংলায় একজন বলে দেয়। আর কাজ করতে গিয়ে সব ঠিক হয়ে যাবে।’