১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আজ বাংলাদেশের সামনে আরেক কঠিন প্রতিপক্ষ আমিরাত

আজ বাংলাদেশের সামনে আরেক কঠিন প্রতিপক্ষ আমিরাত
  • এএফসি অনুর্ধ ১৬ চ্যাম্পিয়নশিপ বাছাই ফুটবল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ‘আমাদের হারানোর কিছু নেই। তাই আমরা আজ নির্ভার হয়েই খেলার চেষ্টা করব। গত ম্যাচে যেসব ভুল করেছি, তা এই ম্যাচে শোধরাবার চেষ্টা করব। প্রতিপক্ষ হিসেবে আমিরাত নিঃসন্দেহে আমাদের থেকে অনেক এগিয়ে। তারপরও আমাদের লক্ষ্য থাকবে ভাল ফুটবল খেলা। নেগেটিভ নয় পজেটিভ ফুটবলই খেলতে চাই আমরা। কোন কোচই ম্যাচে হারতে চান না। মাঠে নামব জয়ের লক্ষ্য নিয়েই।’ কথাগুলো সৈয়দ গোলাম জিলানীর। বাংলাদেশ অনুর্ধ ১৬ জাতীয় ফুটবল দলের কোচ। প্রথম ম্যাচে এএফসি অনুর্ধ ১৬ চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাইপর্বে ‘ডি’ গ্রুপে আজ স্বাগতিক বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ সংযুক্ত আরব আমিরাত। সন্ধ্যা ৬টায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে দুই দল। নিজেদের প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবের কাছে ১-৫ গোলে বড় হারের পরও আজকের ম্যাচে ঘুরে দাঁড়াতে চান কোচ জিলানী।

তবে প্রথম ম্যাচ হারায় বাংলাদেশের জন্য গ্রুপ সেরা হওয়ার সুযোগ নেই বললেই চলে। সেক্ষেত্রে সেরা রানার্সআপ হওয়ার জন্য তাদের তাকিয়ে থাকতে হবে অন্য গ্রুপের খেলাগুলোর দিকে। তবে এর জন্য আজ আমিরাতকে বড় ব্যবধানে (কমপেক্ষে পাঁচ গোলে জয়) জেতার বিকল্প নেই বাংলাদেশের, যা অনেকটা অসম্ভবই। ২০১৬ সালে ১৬ দলকে নিয়ে ভারতে অনুষ্ঠিত হবে এএফসি অনুর্ধ ১৬ চূড়ান্ত পর্ব। স্বাগতিক হওয়ায় বাছাইপর্ব খেলতে হবে না ভারতকে। বাছাইপর্বের ৪২ দল থেকে ১৫ দল উঠবে মূলপর্বে। ১১ গ্রুপ সেরা দলের সঙ্গে সেরা চার রানার্সআপ দল খেলবে মূলপর্বে। সৌদি আরবের মতোই কঠিন প্রতিপক্ষ আরব আমিরাত। তারপরও তাদের বিপক্ষে রক্ষণাত্মক না খেলে পজেটিভ ফুটবল উপহার দিতে চান জিলানী। প্রথম ম্যাচে সৌদির বিপক্ষে শুরুটা চমৎকারই করেছিল বাংলাদেশ। নিপুর গোলে এগিয়ে গিয়েছিল সাফ অনুর্ধ ১৬ টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়নরা। কিন্তু ৫০ মিনিটে সাফ টুর্নামেন্টে টাইব্রেকারে বাংলাদেশের জয়ের নায়ক গোলরক্ষক ফয়ছল আহমেদের লাল কার্ড প্রাপ্তিতে সব ল-ভ- হয়ে যায়। ১০ জনের দলে পরিণত হওয়া বাংলাদেশ হজম করে চার গোল, তিনটিই শেষ ১০ মিনিটে! জিলানী জানান, তার দলে আপাতত কোন ইনজুরি সমস্যা নেই। তবে দলের চার খেলোয়াড় কিছুদিন আগে জ্বরে আক্রান্ত হয়। তাদের কেউই এখনও সেভাবে সুস্থ হয়নি। যে কারণে সৌদি আরবের বিপক্ষে শেষের ২০ মিনিটে হাঁপিয়ে উঠেছিল তারা। তারপরও সবমিলিয়ে দলের অবস্থা ভাল বলেই জানান কোচ। লাল কার্ডের কারণে এই ম্যাচে মাঠে থাকতে পারছে না গোলরক্ষক ফয়ছল। তার স্থলে নূর আলম অথবা অন্তর কুমার খেলতে পারে। আমিরাতের কোচ আব্দুল্লাহ আল শাহীন জানান, সম্পূর্ণ প্রস্তুত হয়েই তারা বাংলাদেশে এসেছেন। জয় নিয়েই দেশে ফিরতে চান তারা। ঢাকায় আসার আগে দুবাইয়ে ২২ দিন ট্রেনিং করেছে। এর মধ্যে জর্দানের সঙ্গে ২টি ম্যাচ খেলে ২টিতেই জিতেছে। তবে সর্বশেষ প্রস্তুতি ম্যাচে শক্তিশালী ইরাকের কাছে ২-১ গোলে হেরেছে। এছাড়া সৌদি আরব, কাতারের সঙ্গেও প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে। কোচ শাহীন বলেন, ‘আগামীকালের (আজকের) ম্যাচে আমরা জয়ের বিকল্প ভাবছি না। ছেলেদের নিয়ে খুব আশাবাদী। এখানে আসার আগে স্থানীয় টিমের সঙ্গে অনেক প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছি। ইতালিতেও একটি টুর্নামেন্টে খেলেছি। সেখানেও ছেলেরা ভাল করেছে। ইংল্যান্ডের অন্যতম ক্লাব লিভারপুলের বয়সভিত্তিক দলের সঙ্গেও প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছি। আশা করছি এর ফলটা আজ মাঠে পাব।’