১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শুরুতেই রোমার ধাক্কায় বেসামাল বার্সিলোনা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট ধরে রাখার মিশনে শুরুতেই ধাক্কা খেয়েছে বার্সিলোনা। উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগ ফুটবলে ২০১৫-১৬ মৌসুমে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই পয়েন্ট খুইয়েছে কাতালানরা। বুধবার রাতে ‘ই’ গ্রুপের ম্যাচে স্বাগতিক ইতালিয়ান ক্লাব এএস রোমার সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে অতিথি বার্সিলোনা।

লুইস সুয়ারেজের গোলে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা এগিয়ে গেলেও আলেসান্দ্রো ফ্লোরেঞ্জির অবিশ্বাস্য গোলে সমতা ফেরে রোমা। গ্রুপের আরেক ম্যাচে বড় জয় পেয়েছে জার্মান ক্লাব বেয়ার লেভারকুসেন। বে এ্যারানায় স্বাগতিকরা ৪-১ গোলে হারায় বেলারুশের বাটে বরিসভকে। ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে বাজে অবস্থার মধ্যে থাকা চেলসি মিশন শুরু করেছে বড় জয় দিয়ে। ‘জি’ গ্রুপের ম্যাচে নিজেদের মাঠ লন্ডনের স্টামফোর্ড ব্রিজে ব্লুজরা ৪-০ গোলে পরাজিত করে ইসরাইলের ক্লাব মাক্কাবি তেল আবিবকে। বিজয়ী দলের হয়ে গোলগুলো করেন উইলিয়ান, অস্কার, দিয়াগো কোস্তা ও চেস ফেব্রিগাস। গ্রুপের আরেক ম্যাচে ডায়নামো কিয়েভ ও পোর্তোর মধ্যকার ম্যাচটি ২-২ গোলে ড্র হয়। এই ম্যাচের মধ্য দিয়ে ফের চ্যাম্পিয়ন্স লীগে সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার রেকর্ড গড়েছেন পোর্তোর ইকার ক্যাসিয়াস। রোমের অলিম্পিক স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরু থেকেই স্বাগতিকদের চেপে ধরে চ্যাম্পিয়ন বার্সিলোনা। যার ফল হিসেবে ২১ মিনিটে এগিয়ে যায় অতিথিরা। সম্মিলতি আক্রমণ থেকে ক্রোয়েশিয়ান মিডফিল্ডার ইভান রাকিটিচ গোলমুখে মাপা ক্রস দেন ফাঁকায় দাঁড়ানো লুইস সুয়ারেজকে। উরুগুইয়ান তারকা হেড করে লক্ষ্যভেদ করেন সহজেই। পিছিয়ে পড়ার পর গোলের জন্য মরিয়া হয়ে উঠে রোমা। সমতা ফেরাতে খুব বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি ইতালির সিরি এ লীগের দলটির। ৩১ মিনিটে মিডফিল্ডার আলেসান্দ্রো ফ্লোরেঞ্জির অবিশ্বাস্য গোলে উল্লাসে মেতে উঠে পুরো স্টেডিয়াম। গোলটিতে অসাধারণ মুন্সিয়ানা দেখান ২৪ বছর বয়সী ইতালি জাতীয় দলের এই মিডফিল্ডার। নিজেদের অর্ধে বল পেয়ে ডানপ্রান্ত ঘেঁষে মধ্যরেখা পার হয়েই গোলে শট নেন ফ্লোরেঞ্জি। কিছুটা এগিয়ে আসা গোলরক্ষক মার্ক-আন্দ্রে টের-স্টেগেন বিপদ বুঝে পিছিয়ে এসে বাঁচানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু ফেরাতে পারবেন না বুঝতে পেরে এক সময়ে থেমে যান তিনি। তাকে হতবাক করে তার মাথার ওপর দিয়ে বারের ভেতরের কানায় বল লেগে জালে জড়ায়। ম্যাচ শেষে এই গোলের জন্য শত্রু-মিত্র সবার প্রশংসায় সিক্ত হচ্ছেন ফ্লোরেঞ্জি। বার্সা ডিফেন্ডার জেরার্ড পিকে তো বলেই দিয়েছেন, এটি তার ক্যারিয়ারে দেখা অন্যতম সেরা গোল। আগের রাতে শাখতার ডোনেস্কের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করে লিওনেল মেসিকে টপকে চ্যাম্পিয়ন্স লীগে সর্বোচ্চ ৮০ গোলের মালিক হওয়ার কৃতিত্ব অর্জন করেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। নিজের শততম ম্যাচে মেসির সামনেও সুযোগ ছিল নিজেকে আরেকবার শীর্ষে নিয়ে যাওয়ার। কয়েকটি সুযোগও তিনি পেয়েছিলেন। তবে ম্যাচে কোন গোল করতে না পারায় হতাশা নিয়েই মাঠ ছেড়েছেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক। পুরো ম্যাচে বার্সিলোনা একচেটিয়ে খেলেও গোল মিসের মহড়ার কারণে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে মাঠ ছাড়তে হয় কাতালানদের। এ জন্য মূলত রোমার শক্তিশালী রক্ষণভাগই দায়ী। ম্যাচ শেষে বার্সা কোচ লুইস এনরিকে বলেন, যেভাবে আমরা খেলেছি তাতে আমি সন্তুষ্ট। কয়েকটি সুযোগও আমরা সৃষ্টি করেছিলাম। কিন্তু প্রতিপক্ষ যখন পুরোপুরি রক্ষণাত্মক কৌশলে চলে যায় তখন ম্যাচ ততটা সহজ থাকে না। যদিও ম্যাচে জয় পাওয়াটা অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ। তবে এই ফলাফলেও আমি খুশি। ম্যাচে জয়ের জন্য যা কিছু করার দরকার আমরা করেছি, কিন্তু এটাই ফুটবল।ইনজুরি আক্রান্ত পোলিশ গোলরক্ষক ওজিচেচ সিজিসনির পরিবর্তে দ্বিতীয়ার্ধে মরগান ডি সানটিসকে নামাতে বাধ্য হয়েছিলেন রোমা কোচ রুডি গার্সিয়া। আর কোচের আস্থার প্রতিদান দিয়ে ম্যাচের শেষের দিকে সানটিস কয়েকটি দুর্দান্ত সেভ করে রোমাকে রক্ষা করেন।