২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মালিকের কঠিন সময়ে প্রেরণা দেয় সানিয়ার সাফল্য

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ তারকা খ্যাতিতে সানিয়া মির্জা যে শোয়েব মালিকের চেয়ে যোজন এগিয়ে এ নিয়ে খুব একটা বিতর্ক নেই। সানিয়াকে বলা হয় গোটা ভারতীয় টেনিসের ‘আইকন’। যাকে সামনে রেখে কোর্টে নামে হাজারো কিশোরী, হাজারো তরুণী। এবার সানিয়াকে প্রেরণা মানছেন স্বামী মালিক। কদিন আগে টেনিসের মর্যাদার আসর ইউএসওপেনে প্রমীলা দ্বৈতের শিরোপা জেতেন ইন্ডিয়ান-টেনিসকুইন। যেটিকে মালিক তার নিজের জন্য নব-প্রেরণা বলে মানছেন। এমন কি কোর্টে স্ত্রীর এ সাফল্যে ক্রিকেট মাঠে ভাল করতে এটিকে ‘বাড়তি চাপ’ বলেও স্বীকার করেছেন পাক-অলরাউন্ডার!

‘আমি খুবই গর্বিত, আনন্দে আপ্লূত। সানিয়া ভারতের মেয়ে। সেরা হওয়ার জন্য যে শতভাগ খিদে নিয়ে প্রতিনিধিত্ব করে। আবার ও যেহেতু আমার স্ত্রী, তাই পাকিস্তানেরও গর্ব। সানিয়ার ইউএস ওপেনের সাফল্য আমাকে জিম্বাবুইয়ে সফরে অনুপ্রেরণা যোগাবে। একই সঙ্গে ক্রিকেটে আরও ভাল করার জন্য এটা আমাকে কিছুটা চাপেও রাখবে!’ সংবাদ মাধ্যমকে বলেন ৩৩ বছর বয়সি মালিক। প্রসঙ্গত, ইউএস ওপেনে সুইস তারকা মার্টিনা হিঙ্গিসের সঙ্গে জুটি বেঁধে চার্লসটন খেতাব জয় করেন সানিয়া। টানা দ্বিতীবার এমন সাফল্য আর কোনো ভারতীয়র নেই। ২৮ বছরের হায়দরাবাদী কণ্যা প্রথম ভারতীয় প্রমীলা টেনিস খেলোয়াড় হিসেবে বিশ্বের শীর্ষ ওপেন দ্বৈথের শিরোপা বগলদাবা করেন।

আগামি মাসে আরব আমিরাতে ইংল্যান্ডের সঙ্গে পুর্নদৈর্ঘের সিরিজ খেলবে পাকিস্তান। তার আগে এ মাস থেকে জিম্বাবুইয়ে সফর (দুই টি২০ ও তিন ওয়ানডে)। সেখানে আরও ভাল করতে সানিয়ার সাফল্য তাঁকে অনুপ্রেরণা যোগাবে বলে উল্লেখ করেন মালিক ‘মেয়ে হয়েও সানিয়ার এত বড় সাফল্য আমাকে অনুপ্রানিত করবে। অনেকে জিম্বাবুইয়েকে ছোট করে দেখছেন। কিন্তু আমি তা মনে করি না। ঘরের মাটিতে ওরা ভয়ঙ্কর দল। আমাদের তাই সেরাটা দিতে হবে।’