১৭ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মা ও ছেলেকে বিবস্ত্র করার জের ॥ পুলিশ-জনতা সংঘর্ষে নিহত ২

  • টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ

নিজস্ব সংবাদদাতা, টাঙ্গাইল, ১৮ সেপ্টেম্বর ॥ বৈঠকে মা ও ছেলেকে বিবস্ত্র করার ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকাবাসী-পুলিশ সংঘর্ষে ২ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় পুলিশসহ আহত হয়েছেন অন্তত ২৫ জন। নিহতরা হলেন- ঘাটাইল উপজেলার সাতুটিয়া গ্রামের বাসিন্দা ফারুক (৩২) ও কালিয়া গ্রামের আলহাজের ছেলে শামীম (৩৫)। শুক্রবার সন্ধ্যায় কালিহাতী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ফারুক এবং টাঙ্গাইল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে শামীম মারা যান। শুক্রবার বিকেল ৫টার দিকে এ সংঘর্ষ শুরু হয়। এ ঘটনায় টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ মহাসড়কে যানবাহন চলাচল কিছুক্ষণের জন্য বন্ধ হয়ে যায়।

কালিহাতী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক মাহফুজা ইয়াসমিন দুইজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শুক্রবার বিকেলে মা ও ছেলেকে বিবস্ত্র করার প্রতিবাদে ও দোষীদের বিচার চেয়ে টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ মহাসড়কে বিক্ষোভ মিছিল বের করে ঘাটাইল ও কালিহাতী উপজেলার বিক্ষুব্ধ জনতা। কালিহাতী বাসস্ট্যান্ড ও ঘাটাইল উপজেলার হামিদপুরেও পৃথকভাবে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। এ সময় পুলিশ মিছিলে বাধা দিলে শুরু হয় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ প্রথমে টিয়ার শেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। পরে শটগানের গুলি ছুড়লে ৬ জন গুলিবিদ্ধ হন। তাদের টাঙ্গাইল মেডিক্যাল, বিভিন্ন ক্লিনিক ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ফারুকের মৃত্যুর খবরে টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ মহাসড়কে কয়েকটি যানবাহন ভাংচুর করে বিক্ষোভকারীরা।

এদিকে টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে মা ও ছেলেকে বিবস্ত্র করে তাদের ওপর নির্যাতন চালানোর ঘটনায় এ পর্যন্ত দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার বিকেলে কালিহাতীর সাতুটিয়া গ্রামে মা ও ছেলেকে পৈশাচিকভাবে নির্যাতন করা হয়। এ ঘটনায় মা বাদী হয়ে কালিহাতী থানায় মামলা করেন। পুলিশ এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে রফিকুল ইসলাম রোমা ও ভগ্নিপতি হাফিজুর রহমানকে বৃহস্পতিবার গ্রেফতার করেছে। পুলিশ তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠিয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, কালিহাতী উপজেলা সদরে সাতুটিয়া গ্রামে মোজাফফর হোসেনের ছেলে রফিকুল ইসলাম রোমার স্ত্রীর সঙ্গে পার্শ্ববর্তী ঘাটাইল উপজেলার রাজমিস্ত্রি শ্রমিকের (২২) প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ওই ছেলের সঙ্গে রোমার স্ত্রী কয়েক মাস আগে চলে গিয়েছিল। পরে তাকে ফিরিয়ে আনা হয়। চারদিন আগে রোমার স্ত্রী আবার তার প্রেমিকের কাছে চলে যায়। গত মঙ্গলবার রোমার পরিবারের লোকেরা আলোচনার কথা বলে প্রেমিক, তার মা ও রোমার স্ত্রীকে কালিহাতীতে রোমাদের বাড়িতে ঢেকে আনে। পরে স্ত্রীর সঙ্গে প্রেম করে ভাগিয়ে নেয়ার অপরাধে ওই ছেলেকে বিবস্ত্র করা হয়। এ সময় তার মাকেও বিবস্ত্র করতে বাধ্য করা হয়। এ ঘটনায় এলাকাবাসী পুলিশকে জানালে পুলিশ এসে মা ও ছেলেকে উদ্ধার করে ও রফিকুল ইসলাম রোমাকে আটক করে।

কালিহাতী থানার অফিসার ইনচার্জ শহিদুল ইসলাম জানান, ঘাটাইল উপজেলার কয়েকটি গ্রাম থেকে ২-৩ হাজার লোক দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে বিক্ষোভ করতে করতে থানার দিকে আসতে থাকলে পুলিশ বাধা দেয়। এ সময় ক্ষিপ্ত বিক্ষোভকারীরা পুলিশের ওপর হামলা করে। এতে একজন এসআই ও দু’জন কনস্টেবল মারাত্মক আহত হন। বাধ্য হয়ে পুলিশ কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়ে। কিন্তু কেউ পুলিশের গুলিতে নিহত হয়নি।

নির্বাচিত সংবাদ