২২ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সাতক্ষীরায় ভুল চিকিৎসায় গহবধূর মৃত্যু, বিক্ষোভ আটক তিন

স্টাফ রিপোর্টার, সাতক্ষীরা ॥ শহরের অনুমোদনহীন একতা ক্লিনিকে এবার ভুল চিকিৎসায় প্রাণ গেল কুড়ি বছর বয়সী গৃহবধূ সুমনা খাতুনের। নিহত সুমনা খাতুন সদর উপজেলার রেউই গ্রামের লিটন হোসেনের স্ত্রী। বৃহস্পতিবার রাত ১০ টার দিকে শহরের পুলিশ সুপার বাসভবনের নিকটবর্তী পলাশপোল একতা ক্লিনিকে সিজার করার সময় অপারেশন থিয়েটারে তার তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর অপারেশন থিয়েটারে থাকা দুই ডাক্তার ডাঃ দেবদুলাল ও ডাঃ সুদীপ্ত শেখর দেবনাথ এবং ক্লিনিক মালিক হরিপদ ও ভৈরব চন্দ্র সরকার পালিয়ে যায়। এলাকাবাসী দুই ডাক্তার ও ক্লিনিক মালিকের গ্রেফতারের দাবিতে রাতেই বিক্ষোভ করলে পুলিশ দুই ওয়ার্ড বয়সহ ৩ জনকে আটক করে। নিহত সুমনা খাতুনের ভাই মোঃ হোসাইন আলী ও মামা মনিরুল ইসলাম জানান, লিটন হোসেনের স্ত্রী সুমনা বৃহস্পতিবার রাতে অসুস্থ হলে তাকে একতা ক্লিনিকে নেয়া হয়।

দশ হাজার টাকা চুক্তিতে সেখানে অপারেশন থিয়েটারে তাকে সিজার করা হয়। তাকে সিজার করেন সাতক্ষীরার বহুল আলোচিত বিতর্কিত ডাক্তার দেবদুলাল। এ সময় তাকে এনেসথেশিয়া করেন ডাঃ সুদীপ্ত শেখর দেবনাথ। নিহতের বড় ভাই জানান, অপারেশন থিয়েটারেই ভুল চিকিৎসায় তার বোনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় তার বোনের একটি পুত্রসন্তান হয়। এ ব্যাপারে ডাক্তার দেবদুলাল জানান, রুগীর অবস্থার অবনতি দেখে সুমনাকে দ্রুত খুলনায় নিয়ে যাওয়ার জন্য পরামর্শ দেয়া হয়। খুলনায় নিয়ে যাওয়ার পথে শহরের অদূরে বিনেরপোতায় এলাকায় গিয়ে তার মৃত্যু হয়। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ওয়ার্ড বয় আরাফাত হোসেন (২৭), কৃষ্ণ ম-ল (৩১) ও আয়া শিরিনা খাতুনকে আটক করে পুলিশ। সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এনামুল হক শেখ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, অভিযোগ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ক্লিনিক বন্ধ করা হয়েছে।