২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ফের পেছাল বরিশাল মহানগর আ’লীগের কমিটি গঠন

খোকন আহম্মেদ হীরা, বরিশাল ॥ ফের পিছাল গেল বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন প্রক্রিয়া। আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে এ কমিটি গঠনের আভাস পাওয়া গেলেও তা আবার পিছিয়েছে। বৈঠকে এ মুহূর্তে নতুন কমিটি গঠন না করে আগের দুই সদস্যের কমিটিই বহাল রাখার সিদ্ধান্ত দিয়েছেন দলীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পাশাপাশি আগামী এক মাসের মধ্যে জেলা আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের সঙ্গে সঙ্গেই মহানগর আওয়ামী লীগের কমিটি গঠনেরও নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

গত ১১ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যার পর গণভবনে দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে কার্যনির্বাহী কমিটির এ সভা শুরু হয়ে রাত ১০টায় শেষ হয়। সভায় দলের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফ, যুগ্ম সম্পাদক মাহাবুবুল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ চৌধুরী, আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাছিম, প্রেসিডিয়াম সদস্য মোঃ নাসিম, আলহাজ আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, ওবায়দুল কাদেরসহ দলের সিনিয়র নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে অংশ নেয়া মোঃ নাসিম জানান, শুধু বরিশাল নয়; দেশের যেসব জেলা ও মহানগরের সম্মেলন হয়েছে আগামী একমাসের মধ্যে সেসব জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনেরও নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

মহানগর আওয়ামী লীগের ত্যাগী কর্মী জাহিদুর রহমান মনির বলেন, আমরা যোগ্য ও তরুণ নেতৃত্ব চাই। একমাসের মধ্যে নতুন কমিটি গঠন হলে দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে গতিশীলতা ফিরে আসবে। মহানগর আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতা ও কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ জানান, তিনি দীর্ঘদিন ধরে মহানগর আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে নিজেকে জড়িয়ে রেখেছেন। দলের নেতাকর্মীদের জন্য সার্বক্ষণিক কাজ করছেন। মহানগরের ৩০টি ওয়ার্ডের নেতাকর্মীরা তার সঙ্গে রয়েছেন। দলকে সু-সংগঠিত করার জন্য এবং আগামীদিনের বিএনপি-জামায়াতের যেকোন আন্দোলন সংগ্রাম মোকাবেলায়ও তিনিসহ নেতাকর্মীরা প্রস্তুত রয়েছেন।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, বিএনপির ঘাঁটি বলে পরিচিত বরিশাল মহানগর আ’লীগের সভাপতির পদ প্রত্যাশী প্রায় একডজন নেতার মধ্যে অন্যতম হচ্ছেন প্রয়াত এমপি শওকত হোসেন হিরণের স্ত্রী সাংসদ জেবুন্নেছা আফরোজ, কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ, বরিশাল শহর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী এ্যাডভোকেট গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল, আওয়ামী লীগ নেতা কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক শামীম, মুক্তিযোদ্ধা মাহবুব উদ্দিন আহম্মেদ বীরবিক্রম। এরমধ্যে সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ ও জেবুন্নেছা আফরোজের নাম আলোচনার অগ্রভাগে রয়েছে।

সূত্রে আরও জানা গেছে, ২০১২ সালে সম্মেলনের মাধ্যমে সাবেক সিটি মেয়র ও সাংসদ শওকত হোসেন হিরণকে সভাপতি এবং এ্যাডভোকেট আফজালুল করিমকে সাধারণ সম্পাদক করে মহানগর আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন করা হয়। দীর্ঘদিনেও আর পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়নি। ২০১৪ সালে হিরণের অকাল মৃত্যুর পর জনগুরুত্বপূর্ণ এ পদটি শূন্য হয়ে পড়ার পাশাপাশি তৃণমূল নেতাকর্মীরা হ-য-ব-র-ল অবস্থায় পড়েন। ঠিক তখনই দলকে সু-সংগঠিত করার লক্ষ্যে হাল ধরেন কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ। পরবর্তীতে হিরণের শূন্য আসনে (বরিশাল-৫ সদর) উপ-নির্বাচনে হিরণপতœী জেবুন্নেছা আফরোজ সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলেও রাজনৈতিকভাবে স্বামীর পদটি ধরে রাখতে তিনি মাঠে সক্রিয় হওয়ার চেষ্টা করছেন। তবে সাদিক আব্দুল্লাহ ইতোমধ্যে নগরীর ৩০টি ওয়ার্ডের ত্যাগী ও নির্যাতিত নেতাকর্মীদের সু-সংগঠিত করার পাশাপাশি দলের কা-ারী হিসেবে সর্বস্তরে বেশ সুনাম অর্জন করেছেন। তার (সাদিক আব্দুল্লাহ) নেতৃত্বে দলের প্রকৃত নেতাকর্মী ও সমর্থকেরা সংগঠিত হয়ে রাজপথে থাকায় বিএনপির শক্ত ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত বরিশাল নগরীতে চলতি বছরের ৫ ফেব্রুয়ারির পরবর্তী সময়ের টানা অবরোধ ও হরতালে বিএনপির নেতাকর্মীরা কোন কর্মসূচী পালন করতে পারেনি।

নির্বাচিত সংবাদ