২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

প্রতিবাদের মুখে বিআরডিবির নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আসন বিন্যাসে অব্যবস্থপনা, হলে প্রশ্নপত্র না পাওয়া ও প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ নিয়ে প্রার্থীদের প্রতিবাদের মুখে বাতিল করা হয়েছে বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ডের (বিআরডিবি) নিয়োগ পরীক্ষা। শুক্রবার বেলা তিনটা থেকে চারটা পর্যন্ত উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা পদের জন্য এ নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হলেও পরে সঙ্কট এড়াতে পরীক্ষা বাতিল করেছে বিআরডিবি কর্তৃপক্ষ। পরীক্ষা পরপরই প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইটে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে বলা হয়েছে, ‘পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে। পরীক্ষার নতুন তারিখ পরে জানিয়ে দেয়া হবে।’

জানা গেছে, পরীক্ষা শুরু হতেই আসন বিন্যাসে চরম অব্যবস্থপনার কারণে দুর্ভোগে পড়েন প্রার্থীরা। অধিকাংশ কেন্দ্রের দেয়ালে টাঙিয়ে রাখা রোল নম্বরের সঙ্গে প্রবেশ পত্রে থাকা রোল নম্বরের মিল না থাকায় বিক্ষোভ করেন প্রার্থীরা। প্রশ্নপত্র কম থাকায়ও একই প্রশ্নে একাধিক পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা নেয়া হয়েছে। অনেক স্থানে প্রতিবাদের পরে সমস্যা সমাধান করে পরীক্ষা নেয়া হয়। তবে বড় জটিলতা বাধে রাজধানীর কাকরাইলে অবস্থিত উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল এ্যান্ড কলেজ পরীক্ষাকেন্দ্রে। এখানে নিয়োগ পরীক্ষা দিতে আসা কয়েকজন চাকরিপ্রার্থী জানান, পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা পদে এ কেন্দ্রে প্রায় সাড়ে ৫ হাজার পরীক্ষার্থীর অংশ নেয়ার কথা ছিল। কিন্তু প্রায় দেড় হাজার পরীক্ষার্থী তাদের নির্ধারিত আসন খুঁজেই পাননি। এরপর তারা কর্তৃপক্ষের কাছে বিষয়টি জানাতে চাইলে তারাও এর কোন সমাধান দিতে পারেননি। এরপর শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে রাস্তায় এসে অবরোধ করেন। পরে বিআরডিবির যুগ্ম-পরিচালক স্বপন কুমার উপস্থিত হলে বিক্ষুব্ধ পরীক্ষার্থীরা তাকে অবরুদ্ধ করে রাখেন। এ সময় পরীক্ষার্থীরা নিয়োগ পরীক্ষা বাতিলের দাবি জানান। পরে স্বপন কুমার উর্ধতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে এ নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল ঘোষণা করেন। আমিনুল ইসলাম নামের আরেক পরীক্ষার্থী বলেন, পল্লী উন্নয়ন বোর্ড যতবার পরীক্ষা নিয়েছে, ততবার প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছে। সিট প্লানেও সমস্যা। এদিকে ইডেন কলেজ কেন্দ্রেও ছিল আসন বিন্যাসের জটিলতা। একজন প্রার্থীরও প্রবেশ পত্রের রোল নম্বরের সঙ্গে দেয়ালে টাঙানো নম্বরের মিল পাননি। তবে যারা পরীক্ষায় ভালভাবে অংশ নিয়েছেন তারা পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ। প্রার্থীরা অনেকেই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আদালতে যাওয়াও হুমকি দিয়েছেন। বিআরডিবির যুগ্ম-পরিচালক (অর্থ ও হিসাব) স্বপন কুমার নাথের কাছে পরীক্ষার নতুন তারিখ সম্পর্কে প্রশ্ন করা হলে বলেন, এখন এসব বিষয়ে বলা যাচ্ছে না। আপাতত কেবল পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে। নতুন তারিখ হলে জানানো হবে।