২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কলাপাড়ার নিখোঁজ ১৬ জেলে এখন ভারতের কারাগারে

  • গভীর সমুদ্রে ইঞ্জিন বিকল

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলাপাড়া, ১৯ সেপ্টেম্বর ॥ গভীর বঙ্গোপসাগরে মাছ শিকারের সময় এফবি কাসেম ট্রলারের ১৬ জেলে এখন ভারতের কারাগারে আটক রয়েছেন। ট্রলারের ইঞ্জিন বিকল হয়ে সাগরে ভাসতে ভাসতে ভারতীয় জল সীমানায় প্রবেশ করলে ১৫ সেপ্টেম্বর ভারতীয় জেলেরা তাদের উদ্ধার করে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার কাকদ্বীপ থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। ১২ সেপ্টেম্বর কলাপাড়ার আলীপুর মৎস্য বন্দর থেকে মাছ শিকারে গিয়ে ১৬ জেলে নিখোঁজ হয়।

আটক জেলেরা হলেন নজিবপুর গ্রামের ট্রলারের মাঝি কুদ্দুস মৃধা (৪৫), জেলে আলামিন (৪৫), সাইফুল হাওলাদার (২৫), নাসির হাওলাদার (২৭), বেলাল ফকির (৩৮), রাকিবুল খান (৩৭), বেলাল সিকদার (২৭), মনির মৃধা (২৮), রাসেল মৃধা (১৯), মেহেদী হাসান ফকির (২৬), খাজুরার কলাইয়াপাড়া গ্রামের মোঃ পলাশ (৩০), আনোয়ার হোসেন ওরফে আনু প্যাদা (৪৫), ডালবুগঞ্জ ইউনিয়নের নুরপুর গ্রামের ইলিয়াস সিকদার (২৯), লতাচাপলী ইউনিয়নের দিয়ার আমখোলা গ্রামের মনির হোসেন (২৬), ছাইফুল ইসলাম (২৯) ও চরফ্যাশন উপজেলার নুরাবাদ গ্রামের ইসরাফিল (১৯)।

ট্রলারের মালিক আবুল কাসেম জানান, ১২ সেপ্টেম্বর ১৬ জেলে নিয়ে ট্রলারটি মাছ শিকারের জন্য আলীপুর বন্দর থেকে সাগরে যায়। এরপর থেকে সবাই নিখোঁজ থাকে। এ ঘটনায় তিনি ১৭ সেপ্টেম্বর কলাপাড়া থানায় জিডি করেছেন। কুয়াকাটা-আলীপুর মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির সভাপতি মোঃ আনসার উদ্দিন মোল্লা জানান, ভারতের কাকদ্বীপ থানার ওয়েস্ট বেঙ্গল ইউনাইটেড ফিশারম্যান এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি তাকে জানিয়েছেন এফবি কাসেম ট্রলারের ১৬ জেলে এখন কাকদ্বীপ থানা হেফাজতে এবং ট্রলারটি তাদের সমিতির হেফাজতে রয়েছে। বর্তমানে এসব জেলে পরিবারগুলোতে এখন আহাজারি চলছে। কলাপাড়া থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ মনিরুজ্জামান জানান, ভারতের কারাগারে আটক ১৬ জেলেকে দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য ইতোমধ্যে তারা প্রশাসনের উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি অবহিত করেছেন। ভারতীয় দূতাবাস এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে আটক জেলেদের পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পর তাদের ফিরিয়ে আনা হবে।