২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জেরার্ডকে মরিনহোর জবাব

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের পাঠ চুকিয়ে এখন লস এ্যাঞ্জেলস গ্যালাক্সিতে খেলছেন স্টিভেন জেরার্ড। সম্প্রতি নিজের আত্মজীবনী প্রকাশ করে দারুণভাবে আলোচনায় এসেছেন তিনি। এবার প্রশ্ন তুলেছেন চেলসির কোচ মরিনহো আর জন টেরির মধ্যকার সম্পর্ক নিয়ে। তবে এসব উড়িয়ে দিয়েছেন স্পেশাল ওয়ান জোশে মরিনহো। বরং তিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন এ বিষয়ে ভুল বলেছেন জেরার্ড। মরিনহোর মতে, ‘স্টিভেন ভুল মন্তব্য করেছেন। টেরিকে আমি খুব ভালবাসি এবং সম্মানও করি। কিন্তু জেরার্ড যা বলেছেন তা একেবারেই ঠিক নয়। কারণ টেরির সঙ্গে আমার সম্পর্কটা অনেক ভাল।’নিজের আত্মজীবনীতে অনেক অজানা তথ্যই জানিয়েছেন জেরার্ড। লস এ্যাঞ্জেলসে যাওয়ার আগে প্রিমিয়ার লীগের কয়েকটা ক্লাবও তাকে প্রস্তাব দিয়েছিল। যার মধ্যে টটেনহ্যাম হটস্পার অন্যতম। কিন্তু লিভারপুলের বিপক্ষে খেলবেন না বলেই মূলত লীগে থাকেননি তিনি। শুধু তাই নয় সুয়ারেজ নিয়েও মুখ খুলেছেন এই ইংলিশ মিডফিল্ডার। ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে দ্বিতীয় সর্বাধিক ১৮ বার শিরোপা জয়ের গৌরব লিভারপুলের। তবে শেষ শিরোপার স্বাদ পায় তারা ১৯৮৯-৯০ মৌসুমে। ২৫ বছরে প্রথমবার শিরোপার নাগালে পৌঁছে তারা ২০১২-১৩ মৌসুমে। কিন্তু শেষ মুহূর্তে পা ফসকে ম্যানচেস্টার সিটির কাছে শিরোপা খোয়ায় তারা মাত্র দুই পয়েন্টের ব্যবধানে। সেবার প্রিমিয়ার লীগে লিভারপুলের তুখোড় ফর্মের দুই স্ট্রাইকার লুইস সুয়ারেজ ও ড্যানিয়েল স্টারিজ করেন ৫৫ গোল। মাই স্টোরি বইয়ে স্টিভেন জেরার্ড লিখেছেন এ দুই রেড ডেভিল স্ট্রাইকারের অম্ল­মধুর সম্পর্ক নিয়েও। জেরার্ড সেখানে লিখেছেন, মাঠে আত্মনিবেদিত সুয়ারেজকেই দেখা গেছে সবসময়। তবে সতীর্থ স্ট্রাইকারের (স্টারিজ) জন্য তার মনোভাব সব সময় সমান থাকত, তা নয়। ২০১২ সালের ১৩ মার্চের ঘটনাটি আমার কাছে স্মরণীয় দিন। নিজেদের এ্যানফিল্ড মাঠে এভারটনের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করলাম আমি। মার্সিসাইড ডার্বিতে ৩০ বছরে হ্যাটট্রিকের প্রথম ঘটনা ছিল তা। ১৯৮২ সর্বশেষ হ্যাটট্রিক পেয়েছিলেন গুডিসন পার্ক মাঠে লিভারপুলের ইয়ান রাশ। আমার হ্যাটট্রিকের পেছনে নিঃস্বার্থ নৈপুণ্য দেখান লুইস সুয়ারেজ। তার দারুণ পাস থেকে একাধিক গোল পাই আমি। সুয়ারেজ ফেরেশতা নন। আমার মনে হয় না স্টারিজকে এমন গোলের সুযোগ দিতেন তিনি। ২০১২-১৩ মৌসুমে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে সর্বোচ্চ ৩১ গোল করেন উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার সুয়ারেজ। এতে তিনি জিতে নেন ইউরোপিয়ান গোল্ডেন বুটও। প্রিমিয়ার লীগে সেবার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৪ গোল পান ইংলিশ স্ট্রাইকার ড্যানিয়েল স্টারিজ। তবে মৌসুম শেষে ৭৫ মিলিয়ন পাউন্ডের ট্রান্সফারে লিভারপুল থেকে বার্সিলোনায় পাড়ি দেন সুয়ারেজ। ন্যুক্যাম্পেও দুর্দান্ত খেলছেন এই উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার।