২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জিততে রাজশাহীর প্রয়োজন ৩৪৫ রান

  • ওয়ালটন জাতীয় ক্রিকেট লীগ, ৬ উইকেট শিকার করলেন বরিশালের তৌহিদুল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ জাতীয় ক্রিকেট লীগের ১৭তম আসরের প্রথম রাউন্ডের খেলায় তৃতীয় দিনেই একটি ম্যাচের রেজাল্ট আসতে পারে। সেটি দ্বিতীয় স্তরের রাজশাহী বনাম বরিশাল ম্যাচের এবং ম্যাচটিতে বরিশাল জিততেও পারে। রাজশাহীর সামনে জিততে ৩৪৫ রানের বোঝা আছে, সেখানে বরিশাল ১০ উইকেট নিয়ে নিতে পারলেই হয়। বরিশালের তৌহিদুল ইসলাম একাই ৬ উইকেট নিয়ে রাজশাহীকে ফলোঅনেও ফেলেছেন। প্রথম রাউন্ডে প্রথম স্তরের দুটি ও দ্বিতীয় স্তরের দুটি মিলিয়ে যে চারটি ম্যাচ হচ্ছে, তাতে এই একটি ম্যাচেই উত্তেজনা বিরাজ করছে। বাকি ম্যাচগুলো যে বৃষ্টির জন্য ঠিকমতো হতে পারছে না।

প্রথম স্তর

বগুড়ায় ঢাকা মেট্রো ও রংপুর ম্যাচে প্রথম দিনেই ঢাকা বিপাকে পড়েছিল। প্রথম ইনিংসে ২৩৮ রানে অলআউট হয়ে গিয়েছিল। রংপুর ১২ রান করেও ফেলেছিল। দ্বিতীয় দিন ৬০ রানে রংপুরের ৩ উইকেট পড়লেও ধীমান ঘোষের অপরাজিত ৮৫ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ২৬৬ রান করে। প্রথম ইনিংসে ২৮ রানে এগিয়ে রয়েছে রংপুর। আজ তৃতীয় দিনে ধীমানের সঙ্গে ৪৮ রানে ব্যাট হাতে থাকা আরিফুল হক দলের স্কোর আরও মজবুত করতে নামবেন।

খুলনায় ঢাকা ও খুলনা বিভাগের ম্যাচে প্রথমদিনে ঢাকা ৮ উইকেটে ১৭৪ রান করে। দ্বিতীয় দিনে এর সঙ্গে আরও ১৩ রান যোগ করতেই অলআউট হয়ে যায়। মুস্তাফিজুর রহমান ও আব্দুর রাজ্জাক ৪টি করে উইকেট নেন। ব্যাট হাতে ঢাকার সাইফ হাসান সর্বোচ্চ ৬৮ রান করেন। খুলনা অবশ্য ৪ উইকেটেই ১৬৮ রান তুলে ফেলে। ঢাকা থেকে ১৯ রান পিছিয়ে থাকলেও খুলনাই ভাল অবস্থানে আছে। তবে বল হাতে ১ উইকেট নেয়ার পর ব্যাট হাতেও ব্যর্থ অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। করেছেন ১৩ রান। মেহেদী হাসানের ৫৩ রানের সঙ্গে ইমরুল কায়েসের ২৯ ও তুষার ইমরানের ২৬ রানে এতদূর এসেছে খুলনা। আজ তৃতীয় দিনে ২৫ রান করা নুরুল হাসান ও ২১ রান করা মোঃ মিঠুন ব্যাট হাতে নামবেন।

দ্বিতীয় স্তর

রাজশাহীতে বরিশালের কাছে বিপাকে পড়ে গেছে রাজশাহী। রাজশাহীর জিততে ৩৪৫ রান দরকার। বরিশালের লাগবে ১০ উইকেট। এমন অবস্থা হয়েছে, ম্যাচে বোঝাই যাচ্ছে জিততে পারে বরিশালই। রাজশাহী প্রথম ইনিংসে ফলোঅনেই পড়ে গেছে। প্রথম ইনিংসে মোসাদ্দেক হোসেনের ১২২ রানে বরিশাল ৩০২ রান করে। তৌহিদুল ইসলামের (৬/৩১) বোলিং তোপে প্রথম ইনিংসে রাজশাহী ৯৩ রানেই অলআউট হয়ে যায়। প্রথম ইনিংসেই ২০৯ রানের বড় ব্যবধানে পিছিয়ে পড়ে। ফলোঅনে পড়ে রাজশাহী। কিন্তু বরিশাল আবারও ব্যাট করতে নেমে সানজামুল ইসলাম (৪/৪৯), ফরহাদ হোসেন (৩/২০) ও ফরহাদ রেজার (৩/৩১) দুর্দান্ত বোলিংয়ে ১৬০ রানেই অলআউট হয়ে যায়। দ্বিতীয় ইনিংসে বিপাকে পড়ে বরিশালও। কিন্তু প্রথম ইনিংসে বিশাল রান করায় বড় টার্গেটই রাজশাহীর সামনে দাঁড় করাতে পারে। রাজশাহীর সামনে জিততে ৩৭০ রানের টার্গেট দাঁড় হয়। দিন শেষে বিনা উইকেটে ২৫ রান করে রাজশাহী।

ফতুল্লায় সিলেট-চট্টগ্রামের ম্যাচে বৃষ্টির বাগড়ায় এখনও এক ইনিংসই শেষ হয়নি। প্রথমদিনে সিলেট ৪ উইকেটে ২৪০ রান করেছিল। দ্বিতীয় দিনে ৮ উইকেটে ৩৫২ রান করতেই বৃষ্টিতে আর খেলা হয়নি। ৩০ ওভার মাত্র খেলা হয়।

স্কোর ॥ দ্বিতীয় দিন শেষে-

ঢাকা মেট্রো-রংপুর

ঢাকা মেট্রো প্রথম ইনিংস ২৩৮/১০; মার্শাল ৬৫, শামসুর ৫৪, ইলিয়াস ৫২*; মাহমুদুল ৫/৪৪)।

রংপুর প্রথম ইনিংস প্রথম দিন ১২/০ ও দ্বিতীয় দিন ২৬৬/৫; ৯২ ওভার (ধীমান ৮৫*, আরিফুল ৪৮*, নাঈম ৪৬, মাহমুদুল ৪১; শহীদ ২/৬৩)।

ঢাকা-খুলনা

ঢাকা বিভাগ প্রথম ইনিংস প্রথম দিন ১৭৪/৮ ও দ্বিতীয় দিন ১৮৭/১০; সাইফ ৬৮, নাদিফ ৩৬; মুস্তাফিজ ৪/২৯, রাজ্জাক ৪/৭২)।

খুলনা বিভাগ প্রথম ইনিংস ১৬৮/৪; ৪৯ ওভার (মেহেদী ৫৩, ইমরুল ২৯, তুষার ২৬, নুরুল ২৫*, মিঠুন ২১*)।

রাজশাহী-বরিশাল

বরিশাল প্রথম ইনিংস ৩০২/১০; মোসাদ্দেক ১২২, শাহরিয়ার ৭৫; সানজামুল ৬/১২৩ ও দ্বিতীয় ইনিংস ১৬০/১০; ৪৪.৪ ওভার (মোসাদ্দেক ৪০; সানজামুল ৪/৪৯, ফরহাদ হোসেন ৩/২০, ফরহাদ রেজা ৩/৩১)।

রাজশাহী প্রথম ইনিংস ৯৩/১০; মুশফিক ৩২; তৌহিদুল ৬/৩১) ও দ্বিতীয় ইনিংস ২৫/০; নাজমুল ১৬*, জহুরুল ৯*)।

সিলেট-চট্টগ্রাম

সিলেট প্রথম ইনিংস প্রথম দিন ২৪০/৪; রাজিন ৭২*, রুমান ৭০* ও দ্বিতীয় দিন ৩৫২/৮; রুমান ৮০, রাজিন ৭৪, রাহাতুল ৫৬; নাবিল সামাদ ৩/৭৮)।