১২ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাড়ছে আয়করে আগ্রহ

দেশের মানুষকে আয়কর বিষয়ে সচেতন করে তুলতে এবং তা দেয়ায় উদ্বুদ্ধ করতে এবার আয়োজন করা হয়েছে জাতীয় আয়কর মেলা। ২০১০ সাল থেকে চালু হওয়া আয়কর মেলার ধারাবাহিকতায় এবারও তা হচ্ছে। তবে এবার আয়কর মেলা হচ্ছে দেশব্যাপী। ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয়েছে এই মেলা। রাজধানী ঢাকাসহ বিভাগীয় শহরে সাত দিনব্যাপী আয়কর মেলা চলছে। ৬৪টি জেলা শহরের সঙ্গে এই প্রথম ৮৬টি উপজেলায় আয়কর মেলার আয়োজন করা হয়েছে। জেলা শহরে চার দিনব্যাপী আয়কর মেলা পালিত হয়েছে। এবং ২৯টি উপজেলায় দুই দিনব্যাপী ও ৫৭টি উপজেলায় এক দিনব্যাপী আয়কর মেলা আয়োজিত হয়েছে। এই আয়কর মেলার উদ্যোগ নিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। প্রায় পৌনে দুই লাখ কোটি টাকা রাজস্ব আদায়ের যে লক্ষ্যমাত্রা তা অর্জনের জন্যই এবার উপজেলা পর্যায়েও মেলার আয়োজন করা হয়েছে। সাফল্যর সঙ্গেই জেলা, উপজেলা পর্যায়ের আয়কর মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রাজধানীর অফিসার্স ক্লাবের আয়কর মেলায় স্থাপন করা ১৭২টি বুথ মেলায় আগতদের বিভিন্ন সেবা দিচ্ছে। অন্যান্য বিভাগীয় শহরেও পর্যাপ্ত বুথ স্থাপন করা হয়েছে মেলায় আগত মানুষদের আয়কর সংক্রান্ত বিভিন্ন সেবা প্রদান করতে। এবারের মেলায় প্রথমবারের মতো শুল্ক, মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) ও জাতীয় সঞ্চয় পরিদফতরের আলাদা আলাদা বুথ করা হয়েছে। এছাড়া মুক্তিযোদ্ধা, নারী, প্রতিবন্ধী ও প্রবীণ করদাতাদের জন্যও করা হয়েছে আলাদা আলাদা বুথ। মেলায় ই-টিআইএন নিবন্ধন, পুনঃনিবন্ধন, আয়কর রিটার্ন জমা, আয়কর দেয়া, ই- পেমেন্টসহ আয়কর সংক্রান্ত বিভিন্ন সেবা প্রদান করা হচ্ছে। মানুষের মাঝে আয়কর দিতে দিন দিন আগ্রহ বাড়ছে, তার প্রমাণ এই আয়কর মেলা। দেশের সর্বত্রই আয়কর মেলায় মানুষের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। এটাই প্রমাণ করে দিন দিন মানুষের মাঝে আয়কর বিষয়ক সচেতনতা সৃষ্টি হয়েছে। আয়কর দিতে মানুষ আগ্রহী হয়ে উঠছে।

অর্থনীতি ডেস্ক