২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

‘শেখ হাসিনার শান্তিতে নোবেল পাওয়া উচিত’

স্টাফ রিপোর্টার ॥ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন বলেছেন, নোবেল কমিটির দীনতার কারণে এখন পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নোবেল পুরস্কার পাননি। জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবেলায় অবদান রাখায় প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ পুরস্কার পেয়েছেন। কেবল বাংলাদেশেই নয়, সারাবিশ্বে শান্তিময় পরিবেশ উপহার দেয়া এবং দেশের রাজনৈতিক পরিবেশ সুন্দর করার জন্য তাঁর শান্তিতে নোবেল পাওয়া উচিত। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘের পরিবেশ বিষয়ে সর্বোচ্চ পুরস্কার ‘চ্যাম্পিয়ন অব দ্য আর্থ’-এ ভূষিত হওয়ায় শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে বঙ্গবন্ধু পরিষদ আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ‘চ্যাম্পিয়ন অব বাংলাদেশ, নাউ চ্যাম্পিয়ন্স অব দ্য আর্থ’ শীর্ষক এ আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ডাঃ এসএ মালেক। অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন বলেন, শেখ হাসিনার অবদান আজ বিশ্ব স্বীকৃত। পৃথিবীকে শান্তিময় করার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাজ করে যাচ্ছেন। তাই শান্তিতে তাঁর নোবেল পুরস্কার পাওয়া বড় কিছু নয়। তিনি বলেন, ‘চাম্পিয়ন অব দ্য আর্থ’ পুরস্কারে ভূষিত হওয়া শুধু প্রধানমন্ত্রীর সম্মান নয়, এটা দেশ-জাতি ও মানুষের সম্মান। তিনি বলেন, আজ ইসলাম ধর্মাবলম্বী বিভিন্ন দেশের মানুষ যুদ্ধকবলিত পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও মধ্যপ্রাচ্যে প্রতিদিন বোমা হামলায় অসংখ্য মানুষ মারা যাচ্ছে। হাজার হাজার মানুষ ইউরোপের দিকে ছুটছে। বাংলাদেশ একটি মুসলমান সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ হওয়া সত্ত্বেও দেশে কোন অশান্তি নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঠিক নেতৃত্বের কারণে আমাদের দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এখনও কোন সমস্যা হচ্ছে না। তিনি বলেন, আমাদের দেশে একজন নোবেল পেয়েছেন, যিনি এখন বিবর্ণ।

ঢাবির সাবেক উপাচার্য ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. একে আজাদ চৌধুরী বলেন, পশ্চিমারা গবেষণা করে বলেছে, বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চল ডুবে যাবে। তাদের ওই গবেষণা ভুল প্রমাণিত। কারণ, এদেশে শক্ত নেতৃত্ব রয়েছে। পরিবেশ নিয়ে সঠিক নির্দেশনা ও নেতৃত্বের কারণে বাংলাদেশের তেমন ক্ষতি হয়নি। আর এ জন্য প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘের এ পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন।

সভাপতির বক্তব্যে ডাঃ এসএ মালেক বলেন, শেখ হাসিনা যোগ্য পিতার যোগ্য উত্তরসূরি। তাঁর যোগ্য নেতৃত্বে দেশ দ্রুত এগিয়ে চলেছে। শেখ হাসিনার শান্তি ও উন্নয়নের মডেল বিশ্বব্যাপী আজ সমাদৃত। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাফল্য কামনা করেন।

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহীত উল আলম, বুয়েটের সাবেক ভিসি অধ্যাপক ড. হাবিবুর রহমান, জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি শফিকুর রহমান, ঢাকা মহানগর বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি মাহবুব উদ্দিন আহমদ বীরবিক্রম প্রমুখ।