২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ডিএসইতে লেনদেন কমলেও বেড়েছে সিএসইতে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের পুঁজিবাজারে সূচকের ইতিবাচক প্রবণতা অব্যাহত রয়েছে। আগের সপ্তাহের চার কার্যদিবসে সূচকের বৃদ্ধির পরে রবিবারে প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান সূচক বেড়েছে। তবে শরীয়াহভিত্তিক সূচকটি সেখানে সামান্য কমেছে। দুটি সূচক বাড়লেও বিনিয়োগকারীদের উপস্থিতি বা অংশগ্রহণ কমে যাওয়ার কারণে প্রধান বাজারে লেনদেন কমেছে প্রায় ১শ’ কোটি টাকা। ডিএসইতে লেনদেনের পরিমাণ আগের দিনের তুলনায় কমলেও বেড়েছে সিএসইতে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে সকালে সূচকের বৃদ্ধি দিয়ে লেনদেন শুরু হয়। তবে শুরু থেকেই আগের দিনের তুলনায় বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণ কম ছিল। দিনশেষে যা অব্যাহত ছিল। ঈদ-উল-আযহার ছুটির আগে এবং দিনভর বৃষ্টির কারণে ব্রোকারেজ হাউসগুলোতেও বিনিয়োগকারীদের উপস্থিতি ছিল আগের তুলনায় অনেক কম। যাই হোক দিনশেষে ডিএসইতে ৪১৮ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে; যা আগের দিনের তুলনায় ৯৬ কোটি ৪০ লাখ টাকা কম লেনদেন। আগের দিন এ বাজারে ৫১৪ কোটি ৪৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয় ৩১৬টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৩৩টির, কমেছে ১৪৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৮টির শেয়ার দর। সকালে সূচকের বৃদ্ধি শেষে ডিএসইর সার্বিক সূচক বা ডিএসইএক্স সূচক ১১ পয়েন্ট বেড়ে ৪ হাজার ৮৩০ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক দশমিক ৭৮ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ১৮৫ পয়েন্টে। ডিএস ৩০ সূচক ২ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৮৫০ পয়েন্টে। ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হলো- ইফাদ অটোস, ইসলামী ব্যাংক, বিএসআরএম স্টিলস লিমিটেড, বাংলাদেশ বেক্সিমকো ফার্মা, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন এ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি, আমান ফিড লিমিটেড, স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেড, এ্যাপোলো ইস্পাত এবং সামিট এ্যালায়েন্স পোর্ট লিমিটেড।

দর বৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : পাওয়ার গ্রীড, জাহিন টেক্সটাইল, আরামিট সিমেন্ট, আইএফআইসি, মোহাফফর হোসেন স্পিনিং, ইসলামিক ফাইন্যান্স, রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স, এএমসিএল (প্রাণ), এশিয়া ইন্স্যুরেন্স, অগ্রণী ইন্স্যুরেন্স।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : সায়হাম কটন, মডার্ন ডাইং, এনএফ ১ম মিউচুয়াল ফান্ড, মুন্নু সিরামিক, এলআর গ্লোবাল মিউচুয়াল ফান্ড, ৭ম আইসিবি, আইসিবি সোনালী মিউচুয়াল ফান্ড, ইস্টার্ন ক্যাবলস ও উসমানিয়া গ্লাস।

এদিকে ঢাকার বাজারে মিশ্র প্রবণতা থাকলেও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের একটি ছাড়া বাকি চারটি সূচকই বেড়েছে। পুরোদিনে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ৩৯ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক ৪৩ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ৮০৮ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৪৩টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১৬টি কোম্পানির, দর কমেছে ১০৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৮টি কোম্পানির।