২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষা বাতিল দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ প্রশ্ন ফাঁসবিরোধী নানা স্লোগানের মধ্য দিয়ে বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করেছে মেডিক্যাল কলেজে ভতিচ্ছু রাজশাহীর শিক্ষার্থীরা। চলমান অন্দোলনের অংশ হিসেবে রবিবার দুপুরে ১২ থেকে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের সামনে বিক্ষোভ করে তারা। পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে সোমবার থেকে আমরণ অনশনে যাওয়ার ঘোষণা দেয়া হয়। ‘উপরে ঈশ্বর, নিচে ডাক্তার- প্রশ্ন ফাঁস তাইতো ফ্যাক্টর, প্রশ্ন যদি হবে ফাঁস, পড়ব কেন বারো মাস’, ‘সুচিকিৎসা কি যাবে ঘরে, প্রশ্ন পেলে বাজারদরে’, ‘প্রশ্নপত্র ফাঁস হলে দেশ যাবে রসাতলে’ এমন নানা স্লোগানে রবিবার রাজশাহীতে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি মাথায় নিয়েই বিক্ষোভ করে তারা। বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, এবারের ভর্তি পরীক্ষার দিন সকালে এবং পরীক্ষার আগের রাতে ফেসবুকে প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছে। পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের সঙ্গে তার মিলও পাওয়া গেছে। তাই এই পরীক্ষা বাতিল করতে হবে। বিক্ষোভ চলাকালে শিক্ষার্থীরা দাবি করেন, পরীক্ষার দিন সকাল ৭টা ৫৯ মিনিট এবং ৮ টায়ও প্রশ্নপত্র আপলোড করা হয়েছে। তাঁরা দাবি করেন, যেই প্রশ্নপত্রে তাঁরা পরীক্ষা দিয়েছেন, সেই প্রশ্নপত্রের ছবিও ফেসবুকে পাওয়া গেছে।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা বলেন, দাবি না মানা হলে সোমবার সকাল আটটা থেকে তাঁরা রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের প্রধান ফটকের সামনে আমরণ অনশন শুরু করবেন।

স্টাফ রিপোর্টার রংপুর থেকে জানান, ফাঁসকৃত প্রশ্নে এমবিএস ও বিডিএস ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল বাতিলের দাবি জানিয়েছে রংপুরের ভর্তিচ্ছুক শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। এই দাবিতে রবিবার তারা রংপুরে মানববন্ধন, বিক্ষোভ সমাবেশ সাংবাদিক এবং জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছে। বৃষ্টি উপেক্ষা করে সকাল থেকেই শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকরা প্রেসক্লাবের সামনে এসে জমায়েত হয়। পরে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে। প্রেসক্লাবে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন অভিভাবক লুৎফুন নাহার ও শিক্ষার্থী মাহমুদুল হাসান মুন।

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল থেকে জানান, রবিবার দুপুরে বরিশালে মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষার ফল বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন পরীক্ষার্থীরা। নগরীর অশ্বিনী কুমার টাউন হল চত্বরে সমাবেশে শেষে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে শের-ই বাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষর কাছে স্মারকলিপি পেশ করা হয়। আন্দোলনরত শিক্ষার্থী মোঃ শাহাদাত হোসেন বলেন, যেহেতু প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনা ঘটেছে, সেক্ষেত্রে ঘোষিত ফলাফল বাতিল করে পুনরায় পরীক্ষা গ্রহণ করতে হবে।

নিজস্ব সংবাদদাতা, ফরিদপুর থেকে জানান, ফরিদপুরে মেডিক্যাল কলেজে ভর্তিচ্ছুক ছাত্রছাত্রীরা রবিবার দ্বিতীয় দিনের মতো মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছেন। বেলা ১০টার দিকে ফরিদপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নপ্রত্র ফাঁসের প্রতিবাদ জানিয়ে পুনরায় পরীক্ষা আয়োজনের দাবিতে এ মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে।