২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রেকর্ডের অপেক্ষা বাড়ল রোনাল্ডোর

রেকর্ডের অপেক্ষা বাড়ল রোনাল্ডোর
  • বেনজেমার গোলে স্বস্তির জয় রিয়াল মাদ্রিদের, জয়ে ফিরল এ্যাটলেটিকো, রিয়াল মাদ্রিদ ১-০ গ্রানাডা, এ্যাইবার ০-২ এ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অপেক্ষা বাড়ল ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর। আরেকটি গোল পেলেই সি আর সেভেন আরও কয়েকটি গৌরবময় রেকর্ডের মালিক বনে যেতেন। কিন্তু শনিবার রাতে স্প্যানিশ লা লিগায় গোল পাননি বর্তমান ফিফা সেরা ফুটবলার। যে কারণে তার দল রিয়াল মাদ্রিদকেও জয়ের জন্য বেগ পেতে হয়েছে। ফরাসী তারকা করিম বেনজেমার একমাত্র গোলে ঘরের মাঠ সান্টিয়াগো বার্নাব্যুতে রিয়াল মাদ্রিদ ১-০ গোলে পরাজিত করে গ্রানাডাকে।

এই জয়ে চব্বিশ ঘণ্টার জন্য হলেও পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে পৌঁছে গেছে রাফায়েল বেনিতেজের দল। রবিবার রাতে বার্সিলোনা তাদের ম্যাচে জয় পেলে দুইয়ে নেমে যাবে গ্যালাক্টিকোরা। পরশুর আরেক ম্যাচে এ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ২-০ গোলে হারায় স্বাগতিক এইবারকে। আরেক ম্যাচে এস্পানিওল ৩-২ গোলে রিয়াল সোসিয়েদাদকে পরাজিত করে। ভ্যালেন্সিয়া ও রিয়াল বেটিসের মধ্যকার ম্যাচটি গোলশূন্য ড্র হয়। চার ম্যাচে বর্তমানে রিয়ালের পয়েন্ট ১০। সমান ম্যাচে এ্যাটলেটিকোর পয়েন্ট ৯। এক ম্যাচ কম খেলা বার্সিলোনার পয়েন্টও ৯।

সর্বশেষ দুই ম্যাচে করেছিলেন আট গোল। এ কারণে গ্রানাডার বিপক্ষে ম্যাচে বাড়তি নজর ছিল রোনাল্ডোর দিকে। একটি গোল করতে পারলে পেশাদারী ফুটবল ক্যারিয়ারের ৫০০তম গোলের মাইলফলক ছুঁয়ে ফেলতেন সময়ের অন্যতম সেরা এই ফুটবলার। কিন্তু এবার আর গোলের দেখা পাননি। নিজেদের মাঠে প্রায় পুরো সময়ই আধিপত্য বিস্তার করে খেলে রিয়াল। কিন্তু রক্ষণভাগটা খুব দারুণভাবে সামলেছে অতিথি গ্রানাডা। দলটির গোলরক্ষক আন্দ্রেস ফার্নান্দেজ রুখে দিয়েছেন রিয়াল তারকাদের কয়েকটি গোল প্রচেষ্টা। প্রথমার্ধ ছিল গোলশূন্য সমতা। বিরতির পর ৫৫ মিনিটে অবশ্য আর হতাশ হতে হয়নি রিয়াল সমর্থকদের। ইস্কোর ক্রস থেকে হেড করে গ্রানাডার জালে বল জড়িয়ে দেন বেনজেমা। শেষ পর্যন্ত এটিই থেকে যায় ম্যাচের একমাত্র জয়সূচক গোল হিসেবে। ম্যাচে কিংবদন্তি রাউল গঞ্জালেসকে পেছনে ফেলে দেবেন, এমন আশা করেছিলেন অনেকেই। কিন্তু গোলের দেখা পাননি সি আর সেভেন। যে কারণে সর্বোচ্চ গোলদাতার মুকুট পরতে আরও অপেক্ষা করতে হচ্ছে পর্তুগীজ তারকাকে। বর্তমানে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে রিয়ালের হয়ে সর্বোচ্চ ৩২৩ গোলের রেকর্ডটি আছে রাউলের। ৩২২ (মতান্তরে ৩২১ গোল) গোল নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রোনাল্ডো। গত তিন ম্যাচে ১৫ বার গোলের দেখা পেয়েছে রিয়াল। এ কারণে গ্রানাডার বিপক্ষেও গোলবন্যা দেখার অপেক্ষায় ছিল রিয়াল ভক্তরা। গত মৌসুমে এই বার্নাব্যুতেই গ্রানাডাকে ৯-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল গ্যালাক্টিকোরা। রোনাল্ডো একাই করেছিলেন পাঁচ গোল। যে কারণে প্রত্যাশার পারদটাও ছিল উর্ধমুখী। শেষ পর্যন্ত এবার আর গোলবর্ষণ হয়নি, কোনরকমে তিন পয়েন্ট নিয়েই তুষ্ট থাকতে হয়েছে সাবেক চ্যাম্পিয়নদের।

এবার রিয়ালের রক্ষণভাগটা বেশ জমাট দেখাচ্ছে। এই নিয়ে টানা পাঁচ ম্যাচে কোন গোল হজম করেনি দলটি। বেনজেমাও টানা চার ম্যাচে গোল করে নিজের অপরিহার্যতাকে প্রমাণ করে চলেছেন। গত কয়েক মৌসুম জুড়েই রিয়ালের হয়ে গোলবন্যা বইয়ে দিচ্ছেন রোনাল্ডো। তার ছায়ায় ঢাকা পরা বেনজেমার গুরুত্ব এতে কমছে না। এবারের মৌসুমে কেবল প্রথম খেলায় মাঠের বাইরে ছিলেন ফরাসী এই তারকা। সেই ম্যাচে রিয়াল কোন গোল না করেই মাঠ ছাড়ে। এরপর চার ম্যাচেই খেলেছেন তিনি। প্রতি ম্যাচেই গোল করেছেন, দলও জিতেছে। দুই বদলি খেলোয়াড় ফার্নান্ডো টোরেস ও এ্যাঞ্জেল কোরেয়ার গোলে এইবারকে হারিয়েছে এ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। এইবারের মাঠে প্রথমার্ধে বেশিরভাগ সময় বলের নিয়ন্ত্রণ ধরে রাখে স্বাগতিকরাই। তবে গোলের তেমন কোন সুযোগ সৃষ্টি করতে পারেনি তারা। গোলশূন্য প্রথমার্ধের পর দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই দুটি পরিবর্তন আনেন অতিথি কোচ দিয়াগো সিমিওনে। ৬১ মিনিটে বদলি হিসেবে মাঠে আসেন কোরেয়া। টোরেসের দারুণ এক পাস থেকে এক মিনিটের মধ্যে গোল করেন আর্জেন্টাইন এই ফরোয়ার্ড। এই কোরেয়ার পাস থেকে ৭৭ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন আরেক বদলি খেলোয়াড় টোরেস। স্প্যানিশ এই তারকার গোলেই জয় নিশ্চিত হয় এ্যাটলেটিকোর।