১৭ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শরণার্থীদের পাশে এবার গোয়েতজে

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ইউরোপজুড়েই চলছে এখন শরণার্থী সঙ্কট। তবে জার্মানিরা এ বিষয়ে প্রথম পদক্ষেপ নেয়। এখন পর্যন্ত প্রায় সাড়ে চার লাখ রিফিউজিদের আশ্রয় দিয়েছে তারা। আর অভিবাসন প্রত্যাশীদের শুরু থেকেই সমর্থন দিয়ে এসেছেন জার্মানির অন্যতম সেরা ক্লাব বেয়ার্ন মিউনিখ। এতে মুগ্ধতা প্রকাশ করেছেন ক্লাবটির অভিজ্ঞ কোচ পেপ গার্ডিওলাও। এবার ব্যক্তিগতভাবে শরণার্থীদের সহায়তায় এগিয়ে এসেছেন বেয়ার্ন মিউনিখের জার্মান তারকা মারিও গোয়েতজে।

গত বুধবার উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগের গ্রুপ পর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে অলিম্পিয়াকোসের মুখোমুখি হয়েছিল বেয়ার্ন মিউনিখ। সেই ম্যাচে পেপ গার্ডিওলার দল ৩-০ গোলের বড় জয় পায়। অলিম্পিয়াকোসের বিপক্ষে বেয়ার্নের হয়ে দ্বিতীয় গোলটি করেছিলেন মারিও গোয়েতজে। সেই ম্যাচে বিশেষ এক জোড়া বুট পরে খেলতে নেমেছিলেন গোয়েটজে। যে বুট জোড়ায় ব্রাজিল বিশ্বকাপের ফাইনালেও মাঠে নেমেছিলেন এই জার্মান স্ট্রাইকার। শুধু তাই নয়, সেই ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে দুর্দান্ত এক গোল করে বিশ্বকাপের শিরোপাও উপহার দিয়েছিলেন জার্মানিকে। আর সেই বুট জোড়াই নিলামে তুলতে যাচ্ছেন তিনি। যার অর্থ দিয়ে শরণার্থীদের সহায়তার জন্য একটি তহবিল গঠন করবেন গোয়েটজে। যার অর্থ অভিবাসন প্রত্যাশীদের জন্য ব্যয় করা হবে।

জার্মান বুন্দেসলিগার ৩৬ দলের প্রায় সকলেই শরণার্থীদের বিষয়ে সহনশীল মনোভাব পোষণ করেছে। সে জন্য তারা ‘রিফিউজিদের স্বাগতম’ লিখা জার্সি পরিধান করে মাঠে নেমেছে। যে দলগুলো এখনও নামেনি তারাও ক্রমান্বয়ে এ রকম জার্সি পরে শরণার্থীদের প্রতি সহযোগিতামূলক মনোভাব পোষণের জন্য বিশ্ববাসীর প্রতি আহ্বান জানাবেন। বুন্দেসলিগার বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বেয়ার্ন মিউনিখ। শনিবার তারা ড্রামস্টাডের মুখোমুখি হয়েছিল। এই ম্যাচেও মারিও গোয়েতজে তার সেই বিশ্বকাপে গোল করা বুট জোড়া পরে খেলতে নেমেছিলেন। কিন্তু এদিন তিনি গোলের দেখা পাননি। তবে বিশ্বকাপের এই তারকা ফুটবলার নিজে গোলের দেখা না পেলেও দল ঠিকই জয়ের দেখা পেয়েছে। শনিবার পেপ গার্ডিওলার দল ৩-০ গোলে রীতিমতো উড়িয়েই দেয় ড্রামস্টাডকে।