১৩ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পপির ‘এক্সপ্রেশন অব লাভ’

পপির ‘এক্সপ্রেশন অব লাভ’

সংস্কৃতি ডেস্ক ॥ চিত্রনায়িকা পপি। চলচ্চিত্রে নান্দনিক অভিনয় আর গ্ল্যামার্সের কারণে জনপ্রিয়তা লাভ করেছেন। তবে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে পপিকে চলচ্চিত্রে তেমন আর দেখা যায় না। মাঝে মাঝে ছোট পর্দায় নাটক ও টেলিফিল্মে অভিনয় করেন। বিশেষ করে ঈদের দু’একটি অনুষ্ঠানে দেখা যায় তাকে। এরই ধারাবাহিকতায় এবারের ঈদ-উল-আযহায় ঈদ অনুষ্ঠানমালায় একুশে টেলিভিশনে প্রচার হবে চিত্রনায়িকা পপি অভিনীত বিশেষ টেলিফিল্ম ‘এক্সপ্রেশন অব লাভ’। রুদ্র মাহফুজের রচনা এবং বি ইউ শুভর পরিচালনায় এই বিশেষ টেলিফিল্মে পপিসহ আরও অভিনয় করেছেন পরাগ নেহাসহ আরও অনেকে। টেলিফিল্মটি একুশে টেলিভিশনে ঈদের তৃতীয় দিন বিকেল ৩-৩০ মিনিটে প্রচার হবে। টেফিল্মের কাহিনীতে দেখা যাবে টেলিভিশন মিডিয়ার গামারাস নায়িকা ও মডেল ফারিন বেশ ক’বছর ধরে মিডিয়া থেকে নিজিকে গুটিয়ে নিয়ে পরিবার পরিজন থেকে আলাদা থাকছে। এই নিয়ে রিউমার হয়েছে প্রচুর। কিন্তু ফারিন কখনই স্পষ্ট করে কাউকে কিছু বলেনি। ফারিনের পাশের ফ্ল্যাটে থাকে বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া রাহীদ। রাহীদের বাবা-মা নেই। ছোট চাচার সঙ্গে এই ফ্ল্যাটে উঠেছে বেশি দিন হয়নি। ঘটনার পরম্পরায় রাহীদের সঙ্গে পরিচয় ও এক সময় ঘনিষ্ঠতা বাড়ে ফারিনের। যদিও দু’জনের বয়সের প্রার্থক্য রয়েছে। সময়ের ব্যবধানে ফারিনের মিডিয়া ছেড়ে যাওয়া এবং একা থাকার নেপথ্যের ঘটনা রাহীদ জেনে যায়। মকবুল নামের এক গডফাদারের জন্যই আজ তার রূপালী ভুবন থেকে কক্ষচ্যুত। ফারিনের ফ্ল্যাটে নিয়মিত আসে মকবুলের তিন সহযোগী সুকমল, গাজী ও মঞ্জু। তিনজনের মধ্যে গাজী মুকবুলের ডান হাত বলে খ্যাত। রাহীদের সঙ্গে ফারিনের ঘনিষ্ঠতা গাজী জেনে যায়। গাজী মনে মনে ফারিনকে পছন্দ করে কিন্তু কখনও বলে না। একদিন রাহীদের হাতে ফুলের বান্ডেল দেখে গাজীর মনে হয় তার মনের কথা ফারিনকে জানানো উচিত। ফারিনের বেডরুম ফুলে ফুলে ভরিয়ে তোলে গাজী। শুরু হয় ত্রিমুখী দ্বন্দ্ব। ফারিনের প্রতি ভালবাসার অভিব্যক্তি তথা এক্সপ্রেশন তিনজনের তিন রকম। মকবুলের হিংস্রতা, রাহীদের প্রেমের সততা আর গাজীর নির্লিপ্ততা- সব মিলিয়ে ফারিনের জীবনে ঘটতে থাকে নাটকীয় সব ঘটনা।