২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ট্রলারডুবি ॥ এখনও নিখোঁজ ২৫, জেলে পরিবারে কান্নার রোল

স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট ॥ সুন্দরবন সংলগ্ন বঙ্গোপসাগরে শনিবার রাত থেকে রবিবার দুপুর পর্যন্ত ঝড়ে নিখোঁজ জেলে পরিবারে কান্নার রোল চলছে। ঝড়ে বাগেরহাট ও বরগুনার কমপক্ষে ১২ ট্রলার ডুবে যায়। এতে সোমবার সকাল পর্যন্ত অন্তত ২৫ জেলে নিখোঁজ রয়েছেন। সোমবার দুপুর পর্যন্ত নৌবাহিনী ও কোস্টগার্ড ১০১ জন জেলেকে উদ্ধার করেছে। সাগরে ভাসমান অবস্থায় এদের উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃতদের সিসিএমসি (কোস্টগার্ড ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট সেন্টার), দুবলারচর, কচিখালী ও সুপতী কোস্টগার্ড স্টেশনে নেয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর তাদের বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়া হবে বলে মংলা কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের কমান্ডার ক্যাপ্টেন মেহেদী মাসুদ জানিয়েছেন। এদের বাড়ি বাগেরহাটের চিতলমারী, কচুয়ার বগা-ভাষা, শরণখোলা, মোরেলগঞ্জ, বরগুনা ও পিরোজপুরের বিভিন্ন এলাকায়। এখনও সমন্বিতভাবে উদ্ধার অভিযান চলছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। তবে নিখোঁজের ব্যাপারে তিনি কোন তথ্য দিতে পারেননি।

ঝড়ের কবলে পড়া এখনও অসংখ্য ট্রলার সাগর ও সুন্দরবন সংলগ্ন কটকা, কচিখালী, সুপতি, দুবলা, নারকেলবাড়িয়া এলাকায় রয়েছে বলে জেলেদের সূত্রে জানা গেছে।

সোমবার সকালে বাগেরহাটের দড়াটানা নদীর তীরে সাগর থেকে ইলিশ মাছ এনে বিক্রির আড়ত কে.বি বাজারে নিখোঁজ জেলেদের স্বজনরা ভিড় করেছেন। মা ছেলের জন্য, স্ত্রী তার স্বামীর জন্য, সন্তান-সন্ততি তার বাবার জন্য অপেক্ষা করছেন। সামনে কোববানির ঈদ তাই অনেক জেলে সাগরে মাছ ধরতে গিয়েছিলেন। সোমবার তাদের প্রায় সকলের বাগেরহাট কেবি মাছ বাজারে ট্রলার নিয়ে ফিরে আসার কথা। কিন্তু এদিন সকালে এ মৎস্য আড়তে হাতেগোনা ৪-৫টি ট্রলার ফিরেছে।

ঝড়ের কবল থেকে বেঁচে আসা এফবি মামা ভাগ্নে ট্রলারের মাঝি শহিদ মোল্লা জানান, ঝড়ের সময়ে ঢেউয়ের তোড়ে ট্রলারে ইঞ্জিনের দরজা ভেঙ্গে তিনি ও ইমারত আলী সাগরে পড়ে যান। পরে ট্রলার থেকে রশি ফেলে অনেক কষ্টে তারা ট্রলারে উঠতে সক্ষম হন। শহিদ মোল্লা জানান, সাগরে অসংখ্য ট্রলার ভাসতে দেখেছেন।

কথা হয় বাগেরহাট শহরের ট্রলার ব্যবসায়ী মোঃ মনিরুজ্জামানের সঙ্গে তিনি বলেন তার দুটি ট্রলারের মধ্যে একটি মামা ভাগ্নের ১৩ জন স্টাফ সোমবার সকালে কোন মতে ফিরে এসেছে। অপরটি এফবি মদিনার এখনও কোন সন্ধান পাননি।

সোমবার সকালে বাগেরহাট জেলা মৎস্য কর্মকর্তা নারায়ণ চন্দ্র ম-ল কেবি বাজার মৎস্য আড়তে গিয়ে নিখোঁজ ট্রলার ও জেলেদের বিষয়ে খোঁজখবর নেন। তিনি বলেন, নৌবাহিনী ও কোস্টগার্ড শতাধিক জেলেকে সাগরে ভাসমান অবস্থায় উদ্ধার করে নিরাপদে নিয়েছে। সোমবার সকাল পর্যন্ত বাগেরহাট, কচুয়া ও শরণখোলার ৭টি ট্রলারডুবি এবং ২৭ জন নিখোঁজ রয়েছে বলে তিনি নিশ্চিত হয়েছেন। নৌবাহিনী ও কোস্টগার্ডের মাধ্যমে উদ্ধার হওয়াদের মধ্যে নিখোঁজদের অনেকেই থাকতে পারেন বলে তিনি ধারণা করছেন। এখনও কারও মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি বলে তিনি উল্লেখ করেন।