২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সতর্ক কোচ লোপেজ

সতর্ক কোচ লোপেজ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ‘অনুশীলন ভাল চলছে। তবে গরম আবহাওয়ার কারণে একাধিক ফুটবলার একটু অসুস্থ হয়ে পড়েছে। সেটা অচিরেই সেরে যাবে। আমার ওপর যে দায়িত্ব অর্পিত হয়েছে, তা পালনে সর্বাত্মকভাবে পালনের চেষ্টা করব।’ কথাগুলো ফ্যাবিও লোপেজের। বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের ইতালীয় কোচ। ডাচ্ কোচ লোডভিক ডি ক্রুইফের বিদায়ের পর নতুন এই কোচের অধীনে অনুশীলন করছে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল। ফিফা বিশ্বকাপ ও এএফসি এশিয়ান কাপের বাছাইপর্বে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের পরবর্তী ম্যাচ (এ্যাওয়ে) আগামী ১৩ অক্টোবর কিরগিজস্তানের বিপক্ষে। এই ম্যাচকে সামনে রেখেই প্রথম এ্যাসাইনমেন্ট পেয়েছেন নতুন এই ইতালিয়ান কোচ। গত সোমবার বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের ৪১ জনের প্রাথমিক দল ঘোষণা করে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। এদের নিয়ে একটি আবাসিক প্রশিক্ষণ ক্যাম্প মঙ্গলবার থেকে মতিঝিলে অবস্থিত বাফুফে ভবনে শুরু হয়। বৃহস্পতিবার প্রথমবারের মতো জাতীয় দলে ডাক পাওয়া ফুটবলারদের নিয়ে নেমে পড়েন লোপেজ।

সোমবার বাফুফে আর্টিফিসিয়াল টার্ফে ফুটবলারদের দুই সেশনে আলাদাভাবে অনুশীলন করান লোপেজ। অনুশীলন শেষে প্রথমে কথা বলতে রাজি হননি। পরে পীড়াপীড়ির পর রাজি হন স্বল্প সময়ের জন্য। তাকে প্রশ্ন করা হয় দলের কোন পজিশনে দুর্বলতা আছে বা কোন পজিশনের ওপর বেশি দৃষ্টিপাত করছেন। ঠাট্টা করে কোচ বলেন, ‘দলে কোন পজিশনেই দুর্বলতা নেই!’ কোন পজিশন তাহলে বেশি শক্তিশালী? ‘কোন পজিশনই যেহেতু দুর্বল নয়, তাহলে বুঝতে হবে সব পজিশনই শক্তিশালী!’ বোঝা গেল এ নিয়ে কোন সদুত্তর দেবেন না তিনি।

প্রথমে ঠিক ছিল লোপেজের অধীনে আপাতত ঢাকাতেই পাঁচ দিনের অনুশীলন চলবে। ৪১ ফুটবলারকে যাচাই-বাছাই করবেন তিনি। কোচিং স্টাফদের নিয়ে লোপেজ ২০ সেপ্টেম্বর থেকে সাভারের জিরানির বিকেএসপিতে শুরু করবেন আবাসিক ক্যাম্প। তবে পরে কোচ এই পরিকল্পনা বাতিল করেন। জানান, ঈদের আগে নয়, তিনি দলবহর নিয়ে বিকেএসপি যাবেন ঈদের পর। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ঈদের আগে প্রাথমিক দল নিয়ে সাভারের জিরানির বিকেএসপিতে যাওয়ার পরিকল্পনা বাদ দিয়েছি। ঈদ উপলক্ষে ফুটবলারদের কতদিনের ছুটি দেব বা আদৌ দেব কি না- এ বিষয়ে শীঘ্রই সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেব।’

জাতীয় ফুটবল দলের ক্যাম্প শুরু হয় ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে। শুরু থেকেই অনুপস্থিত হেমন্ত ভিনসেন্ট বিশ্বাস। কারণ হিসেবে সবার জানা ছিল তিনি ইনজুরিতে। তবে শনিবার ক্যাম্পে যোগ দিতে গিয়ে জানা যায় প্রকৃত ঘটনা। কোচ লোপেজ তাকে ক্যাম্প থেকে বের করে দিয়েছেন। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, অসুস্থ থাকাকালীন অন্যত্র ভাড়াটে (খেপ) খেলোয়াড় হিসেবে ঢাকার বাইরে (দিনাজপুরে) খেলতে গিয়েছিলেন তিনি। এ জন্য বাফুফে ইতোমধ্যে তাকে শোকজও (কারণ দর্শানোর নোটিস) করেছে। তার জবাব শনিবারই দেন হেমন্ত। হেমন্ত ফেডারশেনকে অসুস্থতার কথা জানালেও তার বিরুদ্ধে এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে কোচ লোপেজ তাকে ক্যাম্পে স্থান দিতে অস্বীকার করেন। এ প্রসঙ্গে লোপেজকে প্রশ্ন করা হয়। ‘হেমন্তকে নিয়ে কোন মন্তব্য করতে চাই না। এটা বাফুফের ব্যাপার। আমাকে শুধু দলের অনুশীলন নিয়ে প্রশ্ন করলেই খুশি হব।’ হাসিখুশি কোচ লোপেজ হঠাৎই গম্ভীর হয়ে গেলেন।

কিরগিজস্তান অনেক শক্তিশালী দল। তাদের সঙ্গে খেলার আগে কি বাংলাদেশ কোন প্রীতি বা প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে? লোপেজ বলেন, ‘কিরগিজস্তানের সঙ্গে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচ খেলার আগে ১/২টি ফিফা ফ্রেন্ডলি ম্যাচ খেলতে চাই। প্রতিপক্ষ আমাদের চেয়ে শক্তিশালী হবে, না আমাদের সমানের হবে- এটা বাফুফেই ঠিক করবে।’ লোপেজ আরও জানান, ‘এছাড়া অনুর্ধ ১৯ জাতীয় দলের সঙ্গেও একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার পরিকল্পনা আছে। তবে সেটা কবে ও কোথায় হবে, তা এখনও ঠিক করিনি।’ চূড়ান্ত স্কোয়াড ঘোষণা করা হতে পারে কবে নাগাদ? লোপেজের উত্তর, ‘কিরগিজস্তানে যাওয়ার একদিন আগে আমি জাতীয় দলের ২৩ বা ২৭ জনের চূড়ান্ত স্কোয়াড ঘোষণা করব।’ কিরগিজস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়েই প্রথম কোচিং-পরীক্ষা দেবেন লোপেজ। পরীক্ষাটা কেমন দিতে পারবেন? ‘সবকিছু ঠিকমতো (অনুশীলন) চললে এবং খেলোয়াড়দের ইতিবাচক মানসিকতা থাকলে আমরা কিরগিজস্তানকে হারাতেও পারি। কেননা ফুটবলে কিছুই অসম্ভব নয়।’ লোপেজের ভাষ্য।

জর্দানের বিপক্ষে বাংলাদেশ দলের খেলা দেখে মোটেও সন্তুষ্ট হতে পারেননি লোপেজ। তিনি নাকি কিরগিজস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে দলে বেশ কিছু পরিবর্তন আনতে পারেন।

নির্বাচিত সংবাদ