২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সাবেক ইউপি সদস্য ও দারোয়ান খুন

  • শ্রমিকের লাশ উদ্ধার

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ খুলনায় দারোয়ান ও নওগাঁয় সাবেক ইউপি সদস্য খুন হয়েছেন। এছাড়া মাদারীপুরে এক শ্রমিকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। খবর স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতাদের।

খুলনা ॥ জেলা স্টেডিয়ামের এক দারোয়ান খুন হয়েছেন। তার নাম আব্দুল জলিল (৬০)। সোমবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে খুলনা থানা পুলিশ স্টেডিয়াম থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় পুলিশ টুটুল সানা ও বাবুল গাজী নামে দুই শ্রমিককে গ্রেফতার করেছে। স্টেডিয়ামের সংস্কার কাজে নিয়োজিত এক শ্রমিক তাকে শাবল দিয়ে মাথায় আঘাত করলে তিনি প্রাণ হারান বলে জানা গেছে। পুলিশ জানায়, খুলনা জেলা স্টেডিয়ামের সংস্কার চলছে। সেখানে প্রতিদিন শতাধিক শ্রমিক কাজ করছে। সংস্কার কাজে নিয়োজিত কয়রা উপজেলার শ্রমিক টুটুল রবিবার রাত ১২টার পরে অপর এক শ্রমিকের টাকা চুরি করে স্টেডিয়ামের দারোয়ান আব্দুল জলিলের হাতে ধরা পড়ে। দারোয়ান জলিল তাকে রশি দিয়ে বেঁধে রাখে। এক পর্যায়ে টুটুল রশি খুলে জলিলকে লোহার রড (শাবল) দিয়ে মাথায় আঘাত করে পালিয়ে যায়। এতে তার মৃত্যু হয়।

নওগাঁ ॥ সোমবার সকাল ১০টার দিকে নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার পল্লীতে ৫শ’ টাকার বিরোধ মেটাতে গিয়ে জুয়েল রানা (৪২) নামে সাবেক এক ইউপি সদস্য খুন হয়েছে। এ ঘটনায় হত্যাকারী আনোয়ারকে স্থানীয় জনতা আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, বদলগাছী উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের গয়েশপুর গ্রামের মহব্বত আলী দুদু মিয়ার ছেলে মতির কাছ থেকে একই গ্রামের মোহাম্মেলের পুত্র আনোয়ার ৫শ’ টাকা ধার নেয়। এই পাওনা টাকার জের ধরে সোমবার সকালে তাদের মাঝে ঝগড়া হয়। এ সময় মতির চাচা সাবেক মেম্বার জুয়েল রানা দু’জনকে দু’চড় মেরে বিরোধ ভেঙ্গে দেয় এবং সন্ধ্যায় বিষয়টি মীমাংসার কথা বলে জুয়েল নিকটস্থ তার মুরগির ফার্ম দেখতে যায়। সেখান থেকে বাড়ি ফেরার পথে সকাল চারটার দিকে চকজালাল মোড়ে চলন্ত মোটরসাইকেল থামিয়ে আনোয়ার জুয়েলের পেটে ছুরিকাঘাত করলে তার নাড়িভুঁড়ি বের হয়ে পড়ে। সঙ্গে সঙ্গে জুয়েলকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় পার্শ্ববর্তী জয়পুরহাট সদর হাসপাতালে নেয়ার পথে সে মারা যায়।

মাদারীপুর ॥ সদর উপজেলার শ্রীনদী এলাকায় নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনকারী ড্রেজার শ্রমিকের মরদেহ নিখোঁজের ৩ দিন পর নদী থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানের সময় পালাতে গিয়ে পানিতে ঝাঁপিয়ে পড়ে ৫ শ্রমিক। তাদের মধ্য থেকে আব্দুর রাজ্জাক (৫০) হাওলাদার নামের একজন নিখোঁজ ছিলেন। সে বরগুনার চরগাছিয়া গ্রামের গনি হাওলাদারের ছেলে।

পুলিশ জানায়, সোমবার সকালে নদীতে লাশ দেখে উদ্ধার করে এলাকাবাসী পুলিশে খবর দেয়। শ্রীনদী ফাঁড়ি পুলিশ দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে লাশ উদ্ধার করে।