১০ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ছুটির আগের শেষ দিনে সূচক বাড়ল

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ পবিত্র ঈদ উল আযহার ছুটির আগে শেষ কার্যদিবসে দেশের দুই পুঁজিবাজার উত্থানে শেষ হয়েছে লেনদেন। তবে প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) আগের দিনের তুলনায় বিনিয়োগকারীদের অংশ কম থাকায় লেনদেনের পরিমাণও কমেছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, সকালে সূচকের বৃদ্ধি দিয়ে শুরুর পরে প্রধান বাজার ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩৬৪ কোটি ৬৯ লাখ টাকার। যা সোমবারের তুলনায় ১৫৪ কোটি ৯৪ লাখ টাকা বা ২৯ দশমিক ৮২ শতাংশ কম। আগের দিন ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ৫১৯ কোটি ৬৪ লাখ টাকার শেয়ার।

সকাল থেকে ইতিবাচক প্রবণতা দিয়ে শুরুর পরে ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয় ৩১৭টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৭৯টির, কমেছে ৮২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৬টির শেয়ার দর। তবে দরবৃদ্ধিতে তালিকায় থাকা কোম্পানিগুলোর খুব বেশি না বাড়ায় সূচকে বড় ধরনের প্রভাব রাখতে পারেনি।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, দিনটিতে বস্ত্র খাতের বেশিরভাগ কোম্পানিরই দর বেড়েছে। একই পরিস্থিতি খাদ্য ও আনুষঙ্গিক খাতের। দিনটিতে প্রকৌশল খাতের কোম্পানিগুলোর চাহিদা দেখা গেছে।

সকালে সূচকের উর্ধগতি দিয়ে লেনদেন শুরুর পরে ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্য সূচক ১১ পয়েন্ট বেড়ে ৪ হাজার ৮৫৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৩ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে এক হাজার ১৯১ পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক ৪ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৮৬০ পয়েন্টে।

ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা কোম্পানি হচ্ছে - বিএসআরএম স্টিলস লিমিটেড, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি, বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেড, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ বিডি, বেক্সিমকো ফার্মা, আমান ফিড লিমিটেড, এসিআই, শাহজিবাজার পাওয়ার কোম্পানি, কাশেম ড্রাইসেলস এবং এবং আইডিএলসি ফিন্যান্স।

দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : এ্যাপেক্স স্পিনিং, বিডি ল্যাম্পস, রেন উইক যজ্ঞেশ্বর, নদার্ন জুটস, আনোয়ার গ্যালভানাইজিং, প্রাইম টেক্সটাইল, জেমিনি সী ফুড, এ্যাপেক্স ফুডস, বিএসআরএম লিমিটেড ও ৮ম আইসিবি মিউচুয়াল ফান্ড।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : বিচ হ্যাচারী, কে অ্যান্ড কিউ, এমটিবি, আাইসিবি ১ম এনআরবি, পাওয়ার গ্রীড, আইসিবি সোনালী মিউচুয়াল ফান্ড, আরামিট সিমেন্ট, শ্যামপুর সুগার মিল, গ্রীন ডেল্টা মিউচুয়াল ফান্ড ও ডিবিএইচ ১ম মিউচুয়াল ফান্ড।

এদিকে ঢাকার মতো দেশের অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রামেও সব্ ধরনের সূচকই বেড়েছে। সকালে ইতিবাচক প্রবণতা দিয়ে শুরুর পরে এক্সচেঞ্জটিতে ৩০ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক ৬০ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ৮৭৯ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৪৭টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৩৭টির, কমেছে ৭৪টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৬টির।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : মোজাফফর হোসেন স্পিনিং, বিএসআরএম লিমিটেড, ইউনাইটেড এয়ার, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, বে´িমকো ফার্মা, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, বিচ হ্যাচারী, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিািমটেড, বারাকা পাওয়ার ও আমান ফিড মিলস লিমিটেড।