২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রাজশাহী আঞ্চলিক খামারে গরু নিলামে অনিয়ম

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ গোদাগাড়ী উপজেলার রাজাবাড়িহাটে আঞ্চলিক দুগ্ধ ও গবাদি পশু উন্নয়ন খামারে গরু নিলামে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। বড় আকারের ৫টি ষাঁড় বিক্রিতে এই অনিয়ম করা হয়েছে বলে নিলামে অংশগ্রহণকারীরা অভিযোগ করেছেন।

খামার সূত্রে জানা গেছে, ঈদ উপলক্ষে ওই খামারের সরকারী এঁড়ে বাছুর, বলদ, গাভি ও বকনা মিলে মোট ৭২টি গরু নিলামে বিক্রি করতে সম্প্রতি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। ৭২টি গরুর মূল্য নির্ধারণ করা হয় ২০ লাখ ৪৭ হাজার ৪৬০ টাকা। এর মধ্যে রবিবার ও সোমবার দুইদিনে ২২ লাখ ৭৮ হাজার ৬০০ টাকায় ৬৯টি গরু নিলামে বিক্রি করা হয়। অবিক্রিত থেকে যায় ৩টি গরু। এছাড়া নিলাম প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণকারীদের অভিযোগ, ৬৯টি গরুর মধ্যে ৫টি বড় আকারের ষাঁড় নিলামে হাজির করা হয়নি। ওই ৫টি গরু গোদাগাড়ী ও রাজশাহী জেলা সদরের পাঁচজন প্রভাবশালী ব্যক্তির কাছে আলাদা করে বিক্রি করে দেয়া হয়েছে।

তারা জানিয়েছেন, গোপনে বিক্রি করা এসব ষাঁড়গুলোর এক একটির দাম কমপক্ষে এক থেকে দেড় লাখ টাকা। প্রতিযোগিতামূলক নিলাম প্রক্রিয়ায় ষাঁড়গুলো হাজির করা হলে সেগুলো কমপক্ষে ৭ লাখ টাকায় বিক্রি হতো। অথচ ষাঁড়গুলো গোপনে নামমাত্র মূল্যে বিক্রি করা হয়েছে। এ ধরনের অনিয়মের মাধ্যমে খামার কর্তৃপক্ষ মোটা অঙ্কের আর্থিক সুবিধা নিয়েছেন বলেও অভিযোগ করেছেন নিলাম প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণকারীরা।

এ ব্যাপারে রাজাবাড়িহাট আঞ্চলিক দুগ্ধ ও গবাদিপশু উন্নয়ন খামারের ব্যবস্থাপক ডাঃ তোফিজুল ইসলাম অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, নিলাম প্রক্রিয়ায় কোন অনিয়ম হয়নি। ৬৯টি গরুই প্রকাশ্যে নিলামে বিক্রি করা হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।