২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাণিজ্যমন্ত্রীর সঙ্গে মতবিনিময় গার্মেন্টস শ্রমিকদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় গৃহীত পদক্ষেপে ইউএসটিআর সন্তুষ্ট

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ ইউএসটিআর প্রতিনিধি দল নিরাপদ তৈরি পোশাক কারখানা, শ্রমিকদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় গৃহীত পদক্ষেপে সন্তুষ্ট। বাংলাদেশে সফররত ইউনাইটেড স্টেট ট্রেড রিপ্রেজেনটেটিভের (ইউএসটিআর) সাউথ এ্যান্ড সেন্ট্রাল এশিয়া বিষয়ক সহকারী মাইকেল জে, ডিলানির নেতৃত্বে ৮ সদস্যের প্রতিনিধি দলের বুধবার বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের সঙ্গে সচিবালয়ে মতবিনিময় করে। এ সময় জিএসপি ফিরে পেতে যুক্তরাষ্ট্রের দেয়া ১৬ শর্ত বিশিষ্ট এ্যাকশন প্ল্যান বাংলাদেশ বাস্তবায়ন করায় সন্তোষ প্রকাশ করে। বৈঠকে শেষে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেন, জিএসপি ফিরে পেতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দেয়া ১৬ শর্ত বিশিষ্ট এ্যাকশন প্ল্যান বাংলাদেশ বাস্তবায়ন করেছে। কারখানার শ্রমিকরা নিরাপদ এবং কর্মবান্ধব পরিবেশে কাজ করছে। শ্রমিকগণ উপযুক্ত বেতন পাচ্ছেন। গত পাঁচ বছরে শ্রমিকদের ২১৯ ভাগ বেতন বৃদ্ধি করা হয়েছে। শ্রমিকদের জন্য নতুন শ্রম আইন ও বিধিমালা তৈরি করা হয়েছে, শ্রমিক ইউনিয়নগুলো স্বাধীনভাবে কাজ করছে। ইপিজেডে শ্রমিকরা ওয়ার্কার্স ওয়েলফেয়ার এ্যাসোসিয়েশন করছেন। তাদের নির্বাচিত প্রতিনিধিগণ দায়িত্ব পালন করছেন। একটি কারখানার ৩০ ভাগ ওয়ার্কার শ্রমিক ইউনিয়ন করার জন্য আবেদন করলে, তাদের অনুমতি দেয়া হচ্ছে। এভাবেই শ্রমিকদের অধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে। এখন আর কোন বিল্ডিংয়ে পোশাক কারখানা নেই, বৈদ্যুতিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে। বাংলাদেশের পক্ষে সম্ভব সবকিছু করা হয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বাংলাদেশের স্থগিতকৃত জিএসপি ফিরে পেতে আর কোন বাধা নেই।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের ওপর জিএসপি সুবিধা দিত না। প্লাস্টিক, টোবাকো, সিরামিক, টেবিল ওয়্যারের মতো কিছু আইটেমের ওপর জিএসপি সুবিধা দিত।