২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আইন ভঙ্গে দুই কোম্পানির পরিচালককে জরিমানা

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ সিকিউরিটিজ আইন ভঙ্গের দায়ে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি এ্যাপোলো ইস্পাত ও ঢাকা ডায়িং এ্যান্ড ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানির প্রত্যেক পরিচালককে জরিমানা করা হয়েছে। এর মধ্যে এ্যাপোলো ইস্পাতের পরিচালকদের ১ লাখ টাকা করে ও ঢাকা ডায়িংয়ের পরিচালকদের ২ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। মঙ্গলবার কমিশনের বৈঠকে এ জরিমানা করা হয়। বিএসইসির মুখপাত্র সাইফুর রহমান স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তির তথ্যানুযায়ী, এ্যাপোলো ইস্পাত আইপিওর মাধ্যমে উত্তোলিত অর্থ থেকে অতিরিক্ত ৫৮ কোটি ১২ লাখ টাকা ব্যাংক ঋণ পরিশোধে ব্যয় করেছে। এটি কোম্পানির আইপিও প্রসপেক্টাসে এ খাতে উল্লিখিত ব্যয়ের অতিরিক্ত। আইপিওর মাধ্যমে উত্তোলিত অর্থ ব্যবহারে কোম্পানি কর্তৃক (ইস্যুয়ার) দাখিলকৃত প্রতিবেদন পরীক্ষার সময় এ অনিয়মের বিষয়টি উদ্ঘাটিত হয়। এ ধরনের অনিয়মের মাধ্যমে কোম্পানিটি সিকিউরিটিজ আইন ভঙ্গ করায় কোম্পানির প্রত্যেক পরিচালককে ১ লাখ টাকা করে জরিমানা করেছে বিএসইসি। এখানে উল্লেখ্য, কোম্পানিটি ২০১৩ সালে ১২ টাকা প্রিমিয়ামসহ ২২ টাকা বরাদ্দমূল্যে ১০ কোটি শেয়ার ছেড়ে আইপিওর মাধ্যমে শেয়ারবাজার থেকে ২২০ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে। এত বিপুল পরিমাণ অর্থ সংগ্রহ করার পরও কোম্পানির আয় বাড়েনি। বর্তমানে কোম্পানির শেয়ারের মূল্য বরাদ্দ মূল্যের নিচে অবস্থান করছে। মঙ্গলবার দিনশেষে কোম্পানির শেয়ারের দর দাঁড়িয়েছে ২১.৯০ টাকায়।

অন্যদিকে ২০১৩ সালের ৩০ জুনে সমাপ্ত হিসাব বছরের আর্থিক প্রতিবেদনে পুনর্মূল্যায়নজনিত সম্পদের বিপরীতে অবচয় চার্জ না করে কোম্পানির আয়ের প্রতিবেদন প্রণয়ন করেছে। কোম্পানির নিরীক্ষকের রিপোর্টে কোয়ালিফাইড ওপিনিয়ন হিসেবে এটি উল্লেখ করা হয়েছিল। কোম্পানি পুনর্মূল্যায়নজনিত সম্পদের বিপরীতে ২ কোটি ৮৫ লাখ টাকা অবচয় চার্জ না করার কারণে কোম্পানির মুনাফা ও শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) অতি মূল্যায়িত হয়েছে। এতে বিনিয়োগকারীরা বিভ্রান্ত হয়। এর মাধ্যমে কোম্পানি সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ রুলস, ১৯৮৭ এর রুল ১২(২) এবং সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ অর্ডিন্যান্স, ১৯৬৯-এর সেকশন ১৮ এর লঙ্ঘন করেছে। এ কারণে কোম্পানির প্রত্যেক পরিচালককে ২ লাখ টাকা করে জরিমানা করেছে কমিশন।উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে ঢাকা ডায়িং কর পরবর্তী মুনাফা ৬ কোটি ৬৫ লাখ ৯০ হাজার টাকা দেখিয়েছে এবং শেয়ারপ্রতি আয় দেখিয়েছে ১.০২ টাকা। আয়ের ভিত্তিতে কোম্পানিটি শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছিল। ২০০৯ সালে এ কোম্পানি শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হয়।